ভালোবাসা দিবস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভালোবাসা দিবস
Antique Valentine 1909 01.jpg
১৯০৯ সালের ভ্যালেন্টাইন কার্ড
আনুষ্ঠানিক নামসেন্ট ভ্যালেন্টাইন'স ডে
অন্য নামভ্যালেন্টাইন'স ডে
ফিস্ট অব সেন্ট ভ্যালেনটাইন
পালনকারীঅনেক দেশের মানুষ;
এংলিকান কমিউনীয়ন (পঞ্জিকা দেখুন)
ইস্টার্ন অর্থডক্স গির্জা (পঞ্জিকা দেখুন)
লুথেরান গির্জা (পঞ্জিকা দেখুন)
ধরনসাংস্কৃতিক, খ্রিস্টান, বাণিজ্যিক
তাৎপর্যসেন্ট ভ্যালেন্টাইনের পর্বদিন; ভালোবাসা এবং অনুরাগ উদযাপন
পালনঅভিবাদন কার্ড এবং উপহার পাঠানো, ডেটিং, গির্জা পরিষেবা
তারিখ
সংঘটনবার্ষিক
সম্পর্কিতসেন্ট জজ ডে, সেন্ট মার্টিন ডে, সেন্ট বার্থোলোমিজম ডে, আল সেইন্টম ডে, সেন্ট এন্ড্রু ডে, সেন্ট প‌যাট্রিক ডে

ভালোবাসা দিবস বা সেন্ট ভ্যালেন্টাইন'স ডে[১] একটি বার্ষিক উৎসবের দিন যা ১৪ই ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা এবং অনুরাগের মধ্যে উদযাপিত হয়। দিবসটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উদযাপিত হয়ে থাকে, যদিও অধিকাংশ দেশেই দিনটি ছুটির দিন নয় ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২৬৯ সালে ইতালির রোম নগরীতে সেন্ট ভ্যালেন্টাইন'স নামে একজন খৃষ্টান পাদ্রী ও চিকিৎসক ছিলেন। ধর্ম প্রচারের অভিযোগে তৎকালীন রোম সম্রাট দ্বিতীয় ক্রাডিয়াস তাকে বন্দী করেন। কারণ তখন রোমান সাম্রাজ্যে খৃষ্টান ধর্ম প্রচার নিষিদ্ধ ছিল। বন্দী অবস্থায় তিনি জনৈক কারারক্ষীর দৃষ্টহীন মেয়েকে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করে তোলেন। এতে সেন্ট ভ্যালেন্টাইনের জনপ্রিয়তা বেড়ে যায়। আর তাই তার প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে রাজা তাকে মৃত্যুদণ্ড দেন। সেই দিন ১৪ই ফেব্রুয়ারি ছিল। অতঃপর ৪৯৬ সালে পোপ সেন্ট জেলাসিউও ১ম জুলিয়াস ভ্যালেন্টাইন'স স্মরণে ১৪ই ফেব্রুয়ারিকে ভ্যালেন্টাইন' দিবস ঘোষণা করেন। খৃষ্টানজগতে পাদ্রী-সাধু সন্তানদের স্মরণ ও কর্মের জন্য এ ধরনের অনেক দিবস রয়েছে। যেমন: ২৩ এপ্রিল - সেন্ট জজ ডে, ১১ নভেম্বর - সেন্ট মার্টিন ডে, ২৪ আগস্ট - সেন্ট বার্থোলোমিজম ডে, ১ নভেম্বর - আল সেইন্টম ডে, ৩০ নভেম্বর - সেন্ট এন্ড্রু ডে, ১৭ মার্চ - সেন্ট প্যাট্রিক ডে।

পাশ্চাত্যের ক্ষেত্রে জন্মদিনের উৎসব, ধর্মোৎসব সবক্ষেত্রেই ভোগের বিষয়টি মুখ্য। তাই গির্জা অভ্যন্তরেও মদ্যপানে তারা কসুর করে না। খৃস্টীয় এই ভ্যালেন্টাইন দিবসের চেতনা বিনষ্ট হওয়ায় ১৭৭৬ সালে ফ্রান্স সরকার কর্তৃক ভ্যালেইটাইন উৎসব নিষিদ্ধ করা হয়। ইংল্যান্ডে ক্ষমতাসীন পিউরিটানরাও একসময় প্রশাসনিকভাবে এ দিবস উদযাপন নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। এছাড়া অস্ট্রিয়া, হাঙ্গেরিজার্মানিতে বিভিন্ন সময়ে এ দিবস প্রত্যাখ্যাত হয়। সম্প্রতি পাকিস্তানেও ২০১৭ সালে ইসলামবিরোধী হওয়ায় ভ্যালেন্টাইন উৎসব নিষিদ্ধ করে সেদেশের আদালত। [২] বর্তমানকালে, পাশ্চাত্যে এ উৎসব মহাসমারোহে উদযাপন করা হয়। যুক্তরাজ্যে মোট জনসংখ্যার অর্ধেক প্রায় ১০০ কোটি পাউন্ড ব্যয় করে এই ভালোবাসা দিবসের জন্য কার্ড, ফুল, চকোলেট, অন্যান্য উপহারসামগ্রী ও শুভেচ্ছা কার্ড ক্রয় করে এবং আনুমানিক প্রায় ২.৫ কোটি শুভেচ্ছা কার্ড আদান-প্রদান করা হয়।[৩]

পুরাতন এবং দূর্লভ ভ্যালেনটাইন কার্ড, ১৮৫০–১৯৫১[সম্পাদনা]

মধ্য-১৯শ এবং প্রাথমিক ২০শ শতাব্দীর ভ্যালেনটাইন
পোষ্টকার্ড, "পপ-আপ", এবং যান্ত্রিক ভ্যালেন্টাইন, প্রায় ১৯০০–১৯৩০
শিশুদের ভ্যালেন্টাইন
অন্যান্য

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Chambers 21st Century Dictionary, Revised ed., Allied Publishers, 2005 আইএসবিএন ৯৭৮০৫৫০১৪২১০৮
  2. "Pakistan bans Valentine's Day - EWN"। Eyewitness News। 
  3. "Valentine's Day worth £1.3 Billion to UK Retailers"British Retail Consortium। ১৮ জানুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Ansgar Kelly, Henry (১৯৮৬), "The Valentines of February", Chaucer and the cult of Saint Valentine, Davis medieval texts and studies, 5, BRILL, আইএসবিএন 978-90-04-07849-9 
  • "Basilica of Saint Valentine in Terni"। virtualmuseum.ca। ২০০৭-০২-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০২-১৩ 
  • Fedorova, Tatiana (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "St. Valentine"। Pravmir। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]