বেগমগঞ্জ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বেগমঞ্জ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, নোয়াখালী
নীতিবাক্যটেক্সটাইল অর্থ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি
ধরনসরকারি কলেজ
স্থাপিত২০০৬
বৃত্তিদানবাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়
অধ্যক্ষইঞ্জিনিয়ার মোবু নাসের মো: শামিম
প্রশাসনিক কর্মকর্তা
৪০
শিক্ষার্থী৩২০
স্নাতক৩২০
অবস্থাননোয়াখালী, চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ
২২°৫৬′৩৪″ উত্তর ৯১°০৬′২০″ পূর্ব / ২২.৯৪২৬৪৫° উত্তর ৯১.১০৫৪৯৯° পূর্ব / 22.942645; 91.105499স্থানাঙ্ক: ২২°৫৬′৩৪″ উত্তর ৯১°০৬′২০″ পূর্ব / ২২.৯৪২৬৪৫° উত্তর ৯১.১০৫৪৯৯° পূর্ব / 22.942645; 91.105499
ওয়েবসাইটtecn.ac.bd

বেগমগঞ্জ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, নোয়াখালী বাংলাদেশের টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত একটি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯১১ থেকে ১৯২৯ সালে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনামলে, যে ৩৩টি ভ্রাম্যমাণ বয়ন বিদ্যালয় ইস্ট বেঙ্গলে প্রতিষ্ঠিত হয় বেগমগঞ্জ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ তাদের একটি। প্রতিষ্ঠানটি ১৯১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

কোর্স সমুহ[সম্পাদনা]

কলেজে চার বছর বি.এস.সি. টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রাম মধ্যে-[২]

  • ইয়ার্ন ম্যানুফ্যাকচারিং টেকনোলজি
  • ফেব্রিক ম্যানুফ্যাকচারিং টেকনোলজি
  • ওয়েট প্রোসেসিং টেকনোলজি
  • গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারিং টেকনোলজি

ওয়ার্কসপ ও ল্যাবরেটরী[সম্পাদনা]

সুতো উৎপাদন ল্যাবরেটরি[সম্পাদনা]

এই পরীক্ষাগারে সুতা প্রস্তুত প্রযুক্তি সংক্রান্ত ব্যবহারিক জ্ঞান প্রদান করে।পরীক্ষাগারে নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে প্রচলিত এবং আধুনিক যন্ত্রপাতি উভয় অন্তর্ভুক্ত আছে।

রসায়ন ল্যাবরেটরি[সম্পাদনা]

রসায়ন পরীক্ষাগারে এক সময়ে ৪০জন ছাত্র ব্যবহারিক পরীক্ষার করতে পারে।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]