বুক অফ দ্য ডেড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পাপাইরেস কাগজের দৃশ্যটি "হুনেফের" (খ্রিষ্টপূর্ব প্রায় ১৩৭৫), এর কথা বর্ণনা করছে। দৃশ্যে দেখাচ্ছে আনুবিস দ্বারা "হুনেফের" তার হৃদয় মাত বা সত্যের মাপকাঠি দ্বারা একটি পালকের সত্যের সাথে ওজন করছে।[১]
মৃতের বই

মৃতের বই নামটি প্রাচীন মিশরীয়দের দেওয়া নাম। মিশরীয় এই বইটিতে জাদু, সম্মোহন এবং প্রচলিত বিধিবদ্ধ উপাসনার নির্দেশাবলী সংগ্রহীত করা হয়েছে, যা মৃত ব্যক্তির মৃত্যর পরবর্তী জীবযাপনের জন্য প্রয়োজন হবে। এইটি সাধারণভাবে সূত্র এবং সূর্য দেবতার রাতে যাত্রা গল্পতে মনোনয় দেয় (এর বিভিন্ন আবির্ভাবে) এবং খারাপ শক্তিসমূহের সঙ্গে (সাপ আপোফিস সহ) তার লড়াই, যারা তাকে রাত্রিতে থামতে চেষ্টা করে, যাতে প্রভাতে উদয় করতে না পারে। মৃতের বই সাধারণত একটি পাপাইরেসে (মিশরদেশীয় নলখাগড়া বিশেষ) গোটানো কাগজ লেখা হত এবং মৃত ব্যক্তির কফিনে অথবা কবরের কহ্মে রাখা হত।[২] এটি মধ্য রাজ্যের কফিনে লেখার মধ্য দিয়ে প্রাচীন রাজ্যের পিরামিড লেখার সঙ্গে বিবর্তন আরম্ভ করার একটি দীর্ঘ পদ্ধতির সৃষ্টি ছিল। বইয়ের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ পরিচ্ছেদ কফিনে লেখার আগে থেকে এর উৎপত্তি হয়।[৩]

বিশেষভাবে, বইটি প্রয়োজন হবে তার জীবযাপনের নৈতিক আচরণের সাহ্মী প্রস্তুত করতে, যা মৃত ব্যক্তি বিচারক ওসিরিস এর সামনে পেশ করবে। পরে পাপাইরেস কাগজটি মৃত ব্যক্তির কফিনে অথবা কবরের কহ্মে রাখা হত তার ধন-সম্পদের সাথে এবং সাজসজ্জা প্রয়োজনীয় গণ্য করা হতো আত্মা ভ্রমণের জন্য।

প্রাথমিকভাবে লেখাগুলো কবর কক্ষের দেয়ালে আঁকা হয়েছিল। মধ্য রাজ্যেতে ব্যবহার করা হয়েছিল সারকোফাগুসের উপরে হাইআরাগ্লিফ রং করার জন্য এবং অষ্টদশ রাজবংশ থেকে কেবল পাপাইরেসে লিখা শুরু হয়। এই ভাবে, মিশরীয় প্রত্নতত্ত্বরা অনেক সাহ্মী পেয়েছে মমি করণের এবং অনেক রাজবংশের সাধারণ মৃত্যর।

মৃতের বই নিন্ম রাজার ভ্যালি কবরগুলোতে দেখতে পাওয়া যায়ঃ[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. www.egyptartsite.com
  2. "Feature story: The Book of Dead" by Caroline Seawright
  3. Goelet, Ogden (1998)। A Commentary on the Corpus of Literature and Tradition which constitutes the Book of Going Forth By Day। San Francisco: Chronicle Books। পৃ: 139–170। 
  4. it.wikipedia.org

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Thomas George Allen, The Egyptian Book of the Dead: Documents in the Oriental Institute Museum at the University of Chicago, Thomas George Allen, (University of Chicago Press, Chicago), c 1960.
  • Thomas George Allen, The Book of the Dead or Going Forth by Day. Ideas of the Ancient Egyptians Concerning the Hereafter as Expressed in Their Own Terms, Thomas George Allen, (SAOC vol. 37; University of Chicago Press, Chicago), c 1974.
  • E. A. Wallis Budge, The Egyptian Book of the Dead,(The Papyrus of Ani), Egyptian Text, Transliteration, and Translation, E.A.Wallis Budge, (Dover (Note: 240 pages of running hieroglyphic text. NB: Budge's translations and transliterations are extremely outdated and are not generally cited by modern Egyptologists)
  • Raymond O. Faulkner, The Ancient Egyptian Book of the Dead, translated by Raymond Faulkner, edited by Carol Andrews (University of Texas Press, Austin), c 1972.
  • Raymond O. Faulkner, The Egyptian Book of the Dead, The Book of Going forth by Day. The First Authentic Presentation of the Complete Papyrus of Ani translated by Raymond Faulkner, edited by Eva von Dassow, with contributions by Carol Andrews and Ogden Goelet (Chronicle Books, San Francisco), c 1994.
  • Gunther Lapp, The Papyrus of Nu (Catalogue of Books of the Dead in the British Museum), by Gunther Lapp, (British Museum Press, London), c 1997.
  • Andrzej Niwinski, Studies on the Illustrated Theban Funerary Papyri of the 11th and 10th Centuries B.C., by Andrzej Niwinski, (OBO vol. 86; Universitätsverlag, Freiburg), c 1989.
  • Kolpaktchy, Gregoire. Le Livre des Morts des Anciens Egyptiens. (France, 1954)
  • Kolpaktchy, Gregoire. Das Agyptische Totenbuch. (Switzerland, 1954)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]