বিষয়বস্তুতে চলুন

ভাল্লেত্তা: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

+
(+)
(+)
}}
 
'''ভাল্লেত্তা''' ([[মাল্টীয় ভাষা|মাল্টীয় ভাষায়]]: Valletta ''ভ়াল্লেত্তা'') [[মাল্টা|মাল্টার]] রাজধানী ও প্রধান শহর। এটি [[মাল্টা]] দ্বীপের মধ্য-পূর্বাংশে অবস্থিত। শহরের মূল অংশের জনসংখ্যা ২০০৫ এর হিসাবে ৬৩১৫।
 
ভালেত্তা শহরে ১৬শ শতক ও তার পরবর্তী আমলে তৈরী হওয়া প্রাচীন প্রচুর ভবন রয়েছে। জেরুজালেমের সেন্ট জনের নাইটদের হাতে এসব ভবন তৈরী হয়েছিলো। শহরটির স্থাপত্যরীতি অনেকটা বারোক ঘরানার, যাতে যুক্ত হয়েছে ম্যানারিস্ট, নিওক্লাসিকাল ও আধুনিক রীতি। তবে শহরের অনেক জায়গাতেই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ধ্বংসযজ্ঞের চিহ্ন বিদ্যমান। ১৯৮০ সালে [[ইউনেস্কো]] ভালেত্তা শহরকে [[বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান]] হিসাবে স্বীকৃতি দেয়।<ref>[http://whc.unesco.org/en/list/131 - Entry about Valletta on the official website of the [[UNESCO]] World Heritage Centre]</ref>
 
শহরটির নাম রাখা হয়েছে জাঁ পারিসো দ্য লা ভালেত্তের নামানুসারে। ভালেত্তে ১৫৬৫ সালে তুর্কী অটোমান সাম্রাজ্যের এক আক্রমণ থেকে শহরটিকে প্রতিরক্ষা করেন। সেন্ট জনের নাইটদের প্রদত্ত শহরের পূর্ণ নামটি হলো "'''Humilissima Civitas Valletta''' — অর্থাৎ বিনয়ী শহর ভালেত্তা। শহরটির সৌন্দর্যের জন্য ইউরোপের বিভিন্ন রাজবংশ এই শহরকে '''Superbissima''' — অর্থাৎ সর্বাপেক্ষা গর্বিত এই ডাকনাম দিয়েছিলো।
 
{{ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রসমূহের রাজধানী}}
১৯,৪০৯টি

সম্পাদনা