বরুনপাখা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
বরুনপাখা
(Blue Mormon)
Papilio polymnestor
বরুনপাখা
Close wing position of Papilio polymnestor, Cramer, 1775 – Blue Mormon WLB.jpg
ডানা বন্ধ অবস্থায়
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Arthropoda
শ্রেণী: Insecta
বর্গ: Lepidoptera
পরিবার: Papilionidae
গণ: Papilio
প্রজাতি: P. polymnestor
দ্বিপদী নাম
Papilio polymnestor
(Cramer, 1775)

বরুনপাখা[১] (বৈজ্ঞানিক নাম: Papilio polymnestor (Cramer)) এক বড় আকারের প্রজাপতি, যার মূল শরীরটা কালো বর্ণের এবং ডানায় চওড়া নীলাভ আকাশি রঙের আঁচল দেখা যায়। এরা ‘প্যাপিলিওনিডি’ পরিবারের এবং 'প্যাপিলিওনিনি' উপগোত্রর সদস্য। এই প্রজাপতিটিকে মহারাষ্ট্রর রাজ্যের প্রজাপতি হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।[২][৩]

আকার[সম্পাদনা]

প্রসারিত অবস্থায় বরুনপাখার ডানার আকার ১২০-১৫০ মিলি মিটার দৈর্ঘ্যের হয়।[৪]

বিস্তার[সম্পাদনা]

এই প্রজাপতি ভারতের মুম্বাই, মহারাষ্ট্র, সিকিম, বিহার এছাড়া পূর্ব হিমালয়, ভারতীয় উপদ্বীপেও দেখা যায়। মায়ানমার এবং শ্রীলংকায়[৫] বরুনপাখা লক্ষ্য করা যায়।[৬]

বর্ণনা[সম্পাদনা]

বরুনপাখার পিছনের ডানার ওপর পিঠে এবং গোড়ার দিকের এক-তৃতীয়াংশ বাদ দিয়ে প্রায় পুরোটাই আকাশি নীল বর্ণের হয়। এদের বার আঁচলে দু সারি কালো টিপ থাকে। সামনের ডানার ওপর-পিঠ কালো বর্ণের, মাঝ আঁচল থেকে একটি আকাশি রেখার সরু পটি নেমে এসে পিছনের ডানার আকাশি অঞ্চলে এসে মিশেছে।[৭] স্ত্রী এবং পুরুষ বরুনপাখার নিচের ডানার গোড়ার অংশ লাল বর্ণের হয়, তবে স্ত্রী বরুনপাখার ক্ষেত্রে সামনের ডানার ওপর পিঠের গোড়াতেও লাল ছোপ দেখা যায়। এরা ওড়ে বেশ দ্রুত গতিতে, আট থেকে বারো-চোদ্দো ফুট উচ্চতায় সাধারণত এরা ওড়ে।

ডানা ছড়ানো ম্ররত বরুনপাখার দেহ মাটিতে বা পাতাতে ছড়িয়ে রাখলে ওন্য বরুনপাখা তার কাছাকাছি উড়তে দেখা যায়। এমনকি একটি আকাশী রঙের কাগজের টুকরো পড়ে থাকলেও একই ঘটনা লক্ষ্য করা যায়।[৮]

আচরণ[সম্পাদনা]

এদের উড়ান অত্যন্ত বলিষ্ঠ প্রকৃতির এবং একটি নির্দিষ্ট উচ্চতায় এরা উড়ে বেড়ায়। জাছের গায়ে অথবা পাতার উপর বসে অনেক্ষন ধরে রৌদ্র পোহাতে দেখা যায়।[৯]

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

ডিম[সম্পাদনা]

বরুনপাখার ডিম গোলাকার এবং হালকা সবুজ বর্নের হয়। ডিম পাড়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে ডিমের রঙ পরিবত্তন হয়ে কমলা হলুদ রঙের হয়। এরা মাটি থেকে ১০-১২ ফুট উঁচুতে এবং একটু ছায়ার আড়ালে থাকা পাতার ওপর পিঠে একটি করে ডিম পাড়ে।

শূককীট[সম্পাদনা]

শূককীট গুলি লম্বাটে এবং উজ্জবল ঘন সবুজ বর্নের হয়। এরা প্রথম দিকে খয়েরি-ঘেঁষা সবুজ রঙের থাকে। মাথার পর থেকে চতুর্থ এবং পঞ্চম খন্ড পর্যন্ত শরীরটা দ্রুত চওড়া হয়েছে, তারপর থেকে শরীরের শেষ প্রান্ত অবধি ধীর ঢাল বজায় রেখে আবার সরু হয়ে এসেছে।[১০] দেহের পাশ বরাবর, অষ্টম এবং নবম খন্ডে সাদার ওপর খয়েরি বর্নের ছিটযুক্ত একটা চওড়া পটি দেখা যায়। শেষ দেহ খন্ডের আগের খন্ডে পিঠের দুপাশে দুটো ছোট ছোট মাংসল গুটি থাকে।

আহার্য উদ্ভিদ[সম্পাদনা]

এই শূককীট লেবু জাতীয় উদ্ভিদ, যেমন- পাতিলেবু Citrus medica, বাতাবি লেবু Citrus decumana, জাম্বুরা Citrus maxima এছাড়া আশশেওড়া Glycosmis pentaphylla, Atalantia racemosa, Atalantia wightii[১১],Paramigyna monophylla গাছের পাতার রসালো অংশ আহার করে। এদের ওসমেটেরিয়াম Osmeterium গাঢ় লাল বর্নের হয়।

মূককীট[সম্পাদনা]

বরুনপাখার মূককীট সবুজ বর্নের হয় এবং পিঠের দিকে পাতার জালিকাবিন্যাসের মতো দাগ দেখা যায়। অনেক সময়, কাছাকাছি সবুজ পাতা না থাকলে মূককীটের রঙ ফিকে খয়েরী রঙের হয়।

জীবনচক্রের চিত্রশালা[সম্পাদনা]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Dāśagupta, Yudhājit̲̲̲̲̲̲a (২০০৬)। Paścimabaṅgera prajāpati (1. saṃskaraṇa. সংস্করণ)। Kalakātā: Ānanda। পৃ: 48। আইএসবিএন 81-7756-558-3 
  2. RASHID, OMAR (২৩ জুন ২০১৫)। "Maharashtra gets ‘State butterfly’"। The Hindu। সংগৃহীত ২৩ জুন ২০১৫ 
  3. http://timesofindia.indiatimes.com/city/nagpur/Blue-Mormon-declared-state-butterfly/articleshow/47776614.cms
  4. Collins, N.M. & Morris, M.G. (1985). Threatened Swallowtail Butterflies of the World. IUCN. |আইএসবিএন ২-৮৮০৩২-৬০৩-৬}}
  5. Perera, W.P.N.; Bambaradeniya, Channa N. B. (২০০৬)। "Species richness, distribution and conservation status of butterflies in Sri Lanka"। in Bambaradeniya, Channa N. B.। The fauna of Sri Lanka: status of taxonomy, research, and conservation। Sri Lanka: IUCN। পৃ: ৫৫। আইএসবিএন 978-955-8177-51-8। সংগৃহীত ২০১০-০৪-১৩ 
  6. Pratap Singh, Arun (২০১১)। Butterflies of India (1st সংস্করণ)। Utter Pradesh: Om Books International। পৃ: 5। আইএসবিএন 978-93-80069-60-9 
  7. Isaac, Kehimkar (২০০৮)। The book of Indian Butterflies। New Delhi: Oxford University Press। আইএসবিএন 978 019569620 2 
  8. Bell,T.R., (1925). The Common Butterflies of the Plains of India (Including those Met, with in the Hill Stations of the Bombay Presidency.) J. Bombay Nat. Hist. Soc. Volume XXX(3):561-ii.
  9. বসু রায়, অর্জন; বৈদ্য, সারিকা; রায়, লিপিকা। সুন্দরবনের কিছু পরিচিত প্রজাপতি (মার্চ ২০১৪ সংস্করণ)। সুন্দরবন জীবপরিমণ্ডল,Department of Forest Government of West Bengal। পৃ: ৯। 
  10. Dāśagupta, Yudhājit̲̲̲̲̲̲a (২০০৬)। Paścimabaṅgera prajāpati (1. saṃskaraṇa. সংস্করণ)। Kalakātā: Ānanda। পৃ: ৪৮। আইএসবিএন 81-7756-558-3 
  11. Kunte, K. (2006). Additions to known larval host plants of Indian butterflies. J. Bombay Nat. Hist. Soc. 103(1):119-120.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]