ফ্রাঙ্ক মার্টিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফ্রাঙ্ক মার্টিন
Frank Martin.jpg
১৯৩১ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে ফ্রাঙ্ক মার্টিন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামফ্রাঙ্ক রেজিনাল্ড মার্টিন
জন্ম(১৮৯৩-১০-১২)১২ অক্টোবর ১৮৯৩
কিংস্টন, জ্যামাইকা
মৃত্যু২৩ নভেম্বর ১৯৬৭(1967-11-23) (বয়স ৭৪)
কিংস্টন, জ্যামাইকা
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ )
২৩ জুন ১৯২৮ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৩১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯২৪–১৯৩০জ্যামাইকা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৬৫
রানের সংখ্যা ৪৮৬ ৩,৫৮৯
ব্যাটিং গড় ২৮.৫৮ ৩৭.৭৭
১০০/৫০ ১/০ ৬/১৬
সর্বোচ্চ রান ১২৩* ২০৪*
বল করেছে ১,৩৪৬ ৭,৯৩৪
উইকেট ৭৪
বোলিং গড় ৭৭.৩৭ ৪২.৫৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৩/৯১ ৫/৯০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ১৯/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৯ মে ২০১৯

ফ্রাঙ্ক রেজিনাল্ড মার্টিন (ইংরেজি: Frank Martin; জন্ম: ১২ অক্টোবর, ১৮৯৩ - মৃত্যু: ২৩ নভেম্বর, ১৯৬৭) জ্যামাইকার কিংস্টনে জন্মগ্রহণকারী ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯২৮ থেকে ১৯৩১ সময়কালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে জ্যামাইকা দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, স্লো লেফট-আর্ম বোলার হিসেবে সম্যক কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন ফ্রেডি মার্টিন নামে পরিচিত ফ্রাঙ্ক মার্টিন

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯২৪-২৫ মৌসুম থেকে ১৯২৯-৩০ মৌসুম পর্যন্ত ফ্রাঙ্ক মার্টিনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। জ্যামাইকার পক্ষে ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন ফ্রাঙ্ক মার্টিন।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে নয়টিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করার সুযোগ লাভ করেছিলেন ফ্রাঙ্ক মার্টিন। ২৩ জুন, ১৯২৮ তারিখে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইতিহাসের সর্বপ্রথম টেস্ট খেলায় অভিষেক ঘটে তার।

১৯২৮ সালে ইংল্যান্ড দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমন করে। ঐ সফরের দুই টেস্টেই তার অংশগ্রহণ ছিল। এছাড়াও, ১৯৩০-৩১ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সাথে অস্ট্রেলিয়া গমন করেছিলেন। তন্মধ্যে, সিডনিতে অনুষ্ঠিত সিরিজের পঞ্চম টেস্টের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার শক্তিশালী বোলিং আক্রমণ রুখে দিয়ে ১২৩ রানে অপরাজিত ইনিংসে খেলেন। এরফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল ৩৫০/৬ করে ইনিংস ঘোষণা করে। এরপর বল হাতে নিয়ে ৪/১১১ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান তিনি।[১] ঐ খেলায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল প্রথমবারের মতো বিদেশের মাটিতে টেস্টে জয় পায়। এটিই ফ্রাঙ্ক মার্টিনের সর্বশেষ টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপরও অবশ্য তিনি ১৯৩৩ সালে পুণরায় ইংল্যান্ড গমন করেছিলেন।

২৩ নভেম্বর, ১৯৬৭ তারিখে জ্যামাইকার কিংস্টনে ৭৪ বছর বয়সে ফ্রাঙ্ক মার্টিনের দেহাবসান ঘটে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Scorecard of Sydney Test in 1931 from Cricinfo. Retrieved 21 May 2012.
  2. "Player Profile: Frank Martin"CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১২ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]