বিষয়বস্তুতে চলুন

প্রশান্ত নীল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
প্রশান্ত নীল
২০২২ এ প্রশান্ত
জন্ম
প্রশান্ত নীলকান্তপুরম

(1980-06-04) ৪ জুন ১৯৮০ (বয়স ৪৪)
জাতীয়তাভারতীয়
অন্যান্য নামনীল
পেশাচলচ্চিত্র পরিচালক, চিত্রনাট্যকার
কর্মজীবন২০১৪–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীলিকিথা
সন্তান

প্রশান্ত নীল হলেন একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক। যিনি কর্ণাটক চলচ্চিত্রে কাজ করে থাকেন। ২০১৪ সালে তিনি উগ্রাম ছবি দিয়ে তাঁর কর্মযাত্রা শুরু করেন, শ্রীমুরালি এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন। চলচ্চিত্রটি ব্লকবাস্টার হিট হিসেবে তাকে কর্মজীবন চালু হয়। ২০১৮ সালে তিনি তুমুল জনপ্রিয় চলচ্চিত্র কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ান (২০১৮) ও কেজিএফ: চ্যাপ্টার টুর (২০২২) চিত্রনাট্য লিখেন এবং পরিচালনা করেন। চলচ্চিত্রগুলো কর্ণাটক চলচ্চিত্রের সর্বকালের উপার্জিত চলচ্চিত্র হিসেবে জায়গা করে নেয়।

ব্যক্তিগত জীবন

[সম্পাদনা]

প্রশান্ত নীলাকান্তপুরম[১] ১৯৮০ সালের ৪ জুন কর্ণাটকের একটি তেলেগু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন ।[২] ২০১০ সালে নীল লিখিতাকে বিয়ে করেন। এই দম্পতির একটি মেয়ে ও ছেলে রয়েছে।[৩] নীলের বোন কন্নড় অভিনেতা শ্রীমুরালিকে বিয়ে করেন, যিনি অবশেষে নীলের পরিচালনায় অভিষেক উগ্রামে অভিনয় করেছিলেন ।[৪] নীল তেলেগু চলচ্চিত্র অভিনেতা আদর্শ বালাকৃষ্ণেরও একজন মামাতো ভাই[৫] এবং অন্ধ্র প্রদেশের প্রাক্তন রাজ্য মন্ত্রী রঘু ভিরা রেড্ডির সাথেও সম্পর্কযুক্ত।

কর্মজীবন

[সম্পাদনা]

কন্নড় সাপ্তাহিক ম্যাগাজিনের সাথে একটি সাক্ষাত্কারে নীল বলেন, তিনি শুরুতে অর্থের প্রয়োজনে চলচ্চিত্র নির্মাণে অংশ নিয়েছিলেন। এরপরে তিনি একটি চলচ্চিত্র নির্মাণের উপর কোর্স শেষ করেন এবং শেষ পর্যন্ত এতে আগ্রহ গড়ে উঠেন। কোর্সটি শেষ করার পরে, তিনি তাঁর ভগ্নীপতি এবং অভিনেতা শ্রীমুরালীকে “আ হুডুগী নীন”-এর প্রধান চরিত্র করানোর জন্য সিদ্ধান্ত নেন এবং সেই সময়ে একটি চিত্রনাট্য তৈরি করেন। অনভিজ্ঞতার কারণে প্রশান্ত নীল পরে তার মনের দিশা পরিবর্তন করেন এবং সময়ের সাথে সাথে শ্রীমুরালির হাবভাওগুলি পর্যবেক্ষণ করতে শুরু করেন এবং একটি অ্যাকশন ধাঁচের চলচ্চিত্র “উগ্রম”-এর প্রকল্প নিয়ে আসেন।[৬] চলচ্চিত্রটি একটি বিশাল ব্যবসায়ী সফল ছবি হিসাবে প্রমাণিত হয়ে সাফল্যের মুখ দেখে এবং ২০১৪ সালের সর্বাধিক উপার্জনকারী কন্নড়-চলচ্চিত্র হিসাবে স্বীকৃতি পায়।[৭]

২০১৪ সালের শেষের দিকে এবং ২০১৫ সালের প্রথম দিকে নীলের তিনটি ছবি পরিচালনার জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হন বলে প্রকাশিত হয়। প্রথমটি “উগ্রম” এর ধারাবাহিক (সিক্যুয়েল) “উগ্রামম বীরাম” শিরোনামে, এতে শ্রীমুরালী উগ্রম থেকে তাঁর ভূমিকাকে নতুনরুপে প্রকাশ করবেন। তাঁর পরবর্তী ছবি কেজিএফ, যা কোলার গোল্ড ফিল্ড নামে পরিচিত, ইয়শকে রকি ভূমিকায় উপস্থাপিত করেন, যেখানে তিনি একজন অনাথ ছেলে থেকে ডন হয়ে উঠার কাহিনী দেখানো হয় এবং ছবিটি সর্বকালের চলচ্চিত্র শিল্পে হিট হিসেবে পরিগণিত হয়। ছবিটি একই সাথে পাঁচটি ভাষায় মুক্তি পায় এবং প্রথম ছবির সাফল্যের কথা মাথায় রেখে কেজিএফ চ্যাপ্টার ওয়ান-এর দ্বিতীয় দান বিবেচনা করে শীঘ্রই নির্মাণের পথে এগিয়ে চলেছে।

চলচ্চিত্র

[সম্পাদনা]
চাবি
Films that have not yet been released যে চলচ্চিত্রগুলি এখনও মুক্তি পায়নি তা নির্দেশ করে
বছর চলচ্চিত্র পরিচালক চিত্রনাট্য ভাষা
২০১৪ উগ্রাম হ্যাঁ হ্যাঁ কন্নড়
২০১৮ কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ান হ্যাঁ হ্যাঁ কন্নড়
২০২২ কেজিএফ: চ্যাপ্টার টু হ্যাঁ হ্যাঁ কন্নড়
২০২৩ সালার হ্যাঁ হ্যাঁ তেলুগু
২০২৪ বাঘিরা না হ্যাঁ কন্নড়
২০২৫ এনটিআর৩১ হ্যাঁ হ্যাঁ তেলেগু

পুরস্কার এবং মনোনয়ন

[সম্পাদনা]
প্রশান্ত নীল পুরস্কার এবং মনোনয়নের তালিকা
চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেণী ফলাফল রেফা
উগ্রাম ৬২তম ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ পরিচালক ( কন্নড় ) মনোনীত [৮]
৪র্থ দক্ষিণ ভারতীয় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র পুরস্কার সেরা নবাগত পরিচালক ( কন্নড় ) বিজয়ী [৯]
কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ান ৮তম দক্ষিণ ভারতীয় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পরিচালক ( কন্নড় ) বিজয়ী [১০]
৬৬ তম ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ পরিচালক ( কন্নড় ) মনোনীত [১১]
জি কন্নড় হেমমেয়া কান্নাডিগা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৯ সেরা পরিচালক বিজয়ী [১২]

তথ্যসূত্রসমূহ

[সম্পাদনা]
  1. Desam, A. B. P. (২০২২-০৪-২১)। "నీల్ అంటే నీలకంఠాపురం - ప్రశాంత్ నీల్ మనోడే ! ఇవిగో డీటైల్స్"telugu.abplive.com (তেলুগু ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৪-১২ 
  2. "Prabhas and Jr NTR wish 'KGF' director Prashanth Neel for birthday"The News Minute (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২১-০৬-০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৪-১২ 
  3. "In Pictures: Prashanth Neel shares a heart-warming post to wish daughter a happy birthday"The Times of Indiaআইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৪-১২ 
  4. "ಪ್ರಶಾಂತ್​ ನೀಲ್,​ ಶ್ರೀಮುರಳಿಗೆ ಸಿನಿಮಾ ನಿರ್ದೇಶಕ ಮಾತ್ರವಲ್ಲ; ಇಲ್ಲಿವೆ ಬಾವ-ಬಾಮೈದರ ಅಪರೂಪದ ಫೋಟೋಗಳು"News18 Kannada (কন্নড় ভাষায়)। ২০২০-১২-১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৪-১২  zero width space character in |শিরোনাম= at position 9 (সাহায্য)
  5. "Exclusive Interview : Aadarsh Balakrishna- I have taken my career very seriously now"123telugu.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৫-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৪-১২ 
  6. Setlur, Mukund। ""ಸಿನೆಮಾ ಉದ್ದೇಶ ಕತೆ ಹೇಳುವುದಲ್ಲ"- ಪ್ರಶಾಂತ್ ನೀಲ್" [Aim of the Film is Not Narration of the Story] (Kannada ভাষায়)। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৫ 
  7. "The Top 5 Kannada films of 2014 so far" 
  8. "Filmfare Awards South 2019 Kannada Nominations | Filmfare"। ৬ মার্চ ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  9. "SIIMA AWARDS | 2015 | winners | |"www.siima.in। ১০ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১  Note: Select "Kannada" language tab.
  10. "SIIMA AWARDS | 2019 | winners | |"www.siima.in। ২২ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১  Note: Select "Kannada" language tab.
  11. "Winners of the 66th Filmfare Awards (South) 2019"Filmfare। ২২ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  12. Parinika Uchil (৩১ মার্চ ২০১৯)। "Hemmeya Kannadiga Awards 2019 Winners List: A Big Win For Rachitha Ram, Yash And Chikkana"। ১৬ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 

বহিঃসংযোগ

[সম্পাদনা]