পারকি সমুদ্র সৈকত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পারকি সমুদ্র সৈকত
অবস্থানআনোয়ারা, চট্টগ্রাম
সৈকতের দৈর্ঘ্য১৩ কিঃমিঃ[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
পারকি সমুদ্র সৈকত

পারকি সমুদ্র সৈকত বাংলাদেশের চট্টগ্রাম শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দক্ষিণে আনোয়ারা থানায় অবস্থিত ১৩ কিলোমিটার দীর্ঘ সমুদ্র সৈকত।[১] চট্টগ্রামের নেভাল একাডেমি কিংবা বিমানবন্দর এলাকা থেকে কর্ণফুলী নদী পেরোলেই পারকি চর।

অবস্থান[সম্পাদনা]

চট্টগ্রাম শহর থেকে “পারকি বীচের” দূরত্ব প্রায় ৩৫ কিঃমিঃ। যেতে সময় লাগবে ১ ঘন্টা। এটা মূলত কর্ণফুলী নদীর মোহনায় অবস্থিত। অর্থাৎ কর্ণফুলী নদীর মোহনার পশ্চিম তীরে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত এবং পূর্ব-দক্ষিণ তীরে পারকী সমুদ্র সৈকত। চট্টগ্রাম সার কারখানা ও কাফকো যাওয়ার পথ ধরে এই সৈকতে যেতে হয়।[২] পারকী একটি উপকূলীয় সমুদ্র সৈকত। একসময় বাংলাদেশে সমূদ্র সৈকত বলতে শুধু কক্সবাজার এবং পতেঙ্গা সৈকতকে মনে করা হলেও বর্তমানে পর্যটদের কাছে পারকী সৈকত বেশ জনপ্রিয় হচ্ছে। পারকীর চর হিসেবে পরিচিত এ সৈকত চট্টগ্রাম জেলার আনোয়ার থানায় অবস্থান।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য[সম্পাদনা]

পারকী সমুদ্র সৈকতে যাওয়ার পথে দেখা মিলে অন্যরকম এক দৃশ্য। আঁকা বাকা পথ ধরে ছোট ছোট পাহাড়ের দেখা মিলে। চট্টগ্রাম ইউরিয়া ফার্টিলাইজার লিঃ (সিউএফল) এবং কাফকোর দৃশ্যও পর্যটকদের প্রাণ জুড়ায়। পারকী বীচে যাওয়ার পথে কর্ণফুলী নদীর উপর প্রমোদতরীর আদলে নির্মিত নতুন ঝুলন্ত ব্রীজ চোখে পড়ে। বীচে ঢুকার পথে সরু রাস্তার দুপাশে সারি সারি গাছ, সবুজ প্রান্তর আর মাছের ঘের দেখা যায়। বীচে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের মতো অসংখ্য ঝাউ গাছ আর ঝাউবন রয়েছে।

গ্যালারী[সম্পাদনা]

পারকি সমুদ্র সৈকত

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]