নীল ফেরেইরা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নীল ফেরেইরা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামনীল রবার্ট ফেরেইরা
জন্ম৩ জুন, ১৯৭৯
সলসবারি, রোডেশিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান, উইকেট-রক্ষক
সম্পর্কম্যাথু ফেরেইরা (পুত্র), মাইকেল ফেরেইরা (পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট৭ আগস্ট ২০০৫ বনাম নিউজিল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪০
রানের সংখ্যা ২১ ২৫১৫
ব্যাটিং গড় ১০.৫০ ৩৪.৯৩
১০০/৫০ ০/০ ৯/৮
সর্বোচ্চ রান ১৬ ২২০*
বল করেছে - -
উইকেট - -
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/- ৮৪/৮
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২০ জানুয়ারি ২০২০

নীল রবার্ট ফেরেইরা (ইংরেজি: Neil Ferreira; জন্ম: ৩ জুন, ১৯৭৯) সলসবারিতে জন্মগ্রহণকারী সাবেক জিম্বাবুয়ীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ২০০৫ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে জিম্বাবুয়ের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর জিম্বাবুয়ীয় ক্রিকেটে মনিকাল্যান্ড দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন নীল ফেরেইরা। পাশাপাশি উইকেট-রক্ষণেও অগ্রসর হতেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ফ্যালকন কলেজে অধ্যয়ন করেছেন। জিম্বাবুয়ের পক্ষে বিভিন্ন বয়সভিত্তিক দলে খেলেছেন তিনি। ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি অন্যান্য ক্রীড়া যেমন: টেনিস, স্কোয়াশ ও হকি খেলায় দক্ষতা ছিল তার। ১৯৯৭ সালে ফ্যালকন প্রথম একাদশ দলের পক্ষে হকি খেলায় অধিনায়কত্ব করেন।

একাডেমি ও মনিকাল্যান্ডের পক্ষে বামহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে আবির্ভূত হন। এছাড়াও, উইকেট-রক্ষণেও সিদ্ধ ছিলেন তিনি। ১৯৯৮-৯৯ মৌসুম থেকে ২০০৫-০৬ মৌসুম পর্যন্ত নীল ফেরেইরা’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ১৯৯৮-৯৯ মৌসুমে সিএফএক্স একাডেমি দলে খেলেন।[১] নিজ দেশের পক্ষে খেলায় অংশগ্রহণের পূর্বে মনিকাল্যান্ডের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নেন। ১৯৯৯-২০০০ মৌসুমে ৫০১ রান তুলেন। এরপর, ২০০১-০২ মৌসুমে ৬৫০ রান তুলে শীর্ষস্থানীয় রান সংগ্রাহকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০৪ সালে বিদ্রোহী খেলোয়াড়দের অন্যতম ছিলেন। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন নীল ফেরেইরা। ৭ আগস্ট, ২০০৫ তারিখে হারারেতে সফরকারী নিউজিল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

আগস্ট, ২০০৫ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টেস্ট ক্রিকেটে অংশ নেন। অভিষেক টেস্টটি মাত্র দুইদিনেই শেষ হয়ে যায়। ৮ আগস্ট, ২০০৫ তারিখে ৭০তম টেস্ট ক্যাপধারী জিম্বাবুয়ীয় হন। ব্যাটিং উদ্বোধনে নেমে ৯ বল মোকাবেলান্তে মাত্র ৫ রান সংগ্রহ করতে পেরেছিলেন। তার দল মাত্র ৫৯ রানে গুটিয়ে যায়। নিউজিল্যান্ডীয় অধিনায়ক স্টিফেন ফ্লেমিং স্বাগতিক দলকে ফলো-অনে ফেলে পুণরায় মাঠে নামায়। আবারও তিনি ব্যাটিং উদ্বোধন করেন। এবার ৯০ বলে ১৬ রানে আউট হন ও তার দল ৯৯ রানে অল-আউট হয়ে যায়। তার খেলার ধরন অনেকাংশেই আন্তর্জাতিক মানদণ্ডের নীচে অবস্থান করতো। কিন্তু, খুব কমই নিজের উইকেট বিলিয়ে দিয়েছেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

বন্দুক চালনা ও মাছ ধরা তার প্রধান শখ ছিল। ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত তিনি। তিন সন্তান রয়েছে তার। গ্রেট সাউদার্ন গ্রামারের পক্ষে বি-গ্রেডে খেলছে। ম্যাথু ফেরেইরা অল-রাউন্ডার হিসেবে ডানহাতি ব্যাটসম্যান ও ডানহাতি লেগ স্পিনার এবং মাইকেল ফেরেইরা শীর্ষসারির বামহাতি ব্যাটসম্যান ও ডানহাতি মিডিয়াম পেসার।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Players who have played for CFX Academy"অর্থের বিনিময়ে সদস্যতা প্রয়োজন। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৬ ডিসেম্বর ২০১৬ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]