নরম্যান গালিচান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নরম্যান গালিচান
নরম্যান গালিচান.jpg
১৯৩৭ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে নরম্যান গালিচান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামনরম্যান গালিচান
জন্ম(১৯০৬-০৬-০৩)৩ জুন ১৯০৬
পালমারস্টোন নর্থ, নিউজিল্যান্ড
মৃত্যু২৫ মার্চ ১৯৬৯(1969-03-25) (বয়স ৬২)
তাউপো, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩৩)
২৪ জুলাই ১৯৩৭ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৭ জুলাই ১৯৩৭ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯২৯/৩০–১৯৩৮/৩৯ওয়েলিংটন
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩১
রানের সংখ্যা ৩২ ৬৩৬
ব্যাটিং গড় ১৬.০০ ১৮.১৭
১০০/৫০ –/– –/৩
সর্বোচ্চ রান ৩০ ৬২
বল করেছে ২৬৪ ৫৫৫৯
উইকেট ৮৬
বোলিং গড় ৩৭.৬৬ ২৬.০৯
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৩/৯৯ ৬/৪৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং –/– ২২/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৩ এপ্রিল ২০১৮

নরম্যান গালিচান (ইংরেজি: Norman Gallichan; জন্ম: ৩ জুন, ১৯০৬ - মৃত্যু: ২৫ মার্চ, ১৯৬৯) পালমারস্টোন নর্থে জন্মগ্রহণকারী নিউজিল্যান্ডীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ওয়েলিংটনের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স বোলিং করতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন তিনি।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

পালমারস্টোন নর্থ হাই স্কুলে পড়াশোনা করেছেন নরম্যান গালিচান।[১] দীর্ঘদেহী স্লো লেফট-আর্ম বোলার ও নিচেরসারির ব্যাটসম্যান ছিলেন তিনি।

১৯২৪-২৫ মৌসুম থেকে ১৯৪৬-৪৭ মৌসুম পর্যন্ত মানাওয়াতু দলের সদস্যরূপে হক কাপে অংশ নেন। এ সময়ে তিনি ১১.৫৯ গড়ে ১৭৭ উইকেট ও ৩২.৭৬ গড়ে ১৪০৯ রান তুলেন।[২] হক কাপ প্রতিযোগিতায় মানাওয়াতু দলের পক্ষে খেলোয়াড়ী জীবনের অধিকাংশ খেলায় অংশ নিয়েছেন। ১৯৩৫-৩৬ মৌসুমে মানাওয়াতু শিরোপা জয় করে। চার খেলায় মাত্র ৬.৬৬ গড়ে ৩০ উইকেট পান নরম্যান গালিচান।[৩]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ওয়েলিংটনের পক্ষে অনিয়মিতভাবে খেলেছেন তিনি। ১৯২৯-৩০ মৌসুম থেকে ১৯৩৮-৩৯ মৌসুম পর্যন্ত প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট চলমান ছিল নরম্যান গালিচানের। কেবলমাত্র ১৯৩৬-৩৭ মৌসুমে প্লাঙ্কেট শীল্ডে পূর্ণাঙ্গ মৌসুম খেলার সুযোগ পেয়েছেন। তিন খেলায় ২৩.৫০ গড়ে ১০ উইকেট পান তিনি।[৪] এছাড়াও, ২৮.০০ গড়ে ৮৪ রান তুলেছেন নরম্যান গালিচান।[৫]

টেস্ট ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৩৭ সালে ইংল্যান্ড সফরে নিউজিল্যান্ড দলের সদস্যরূপে খেলেন। ঐ সফরে ১৪জন খেলোয়াড়ের অংশগ্রহণ থাকলেও ১৫জন সদস্যকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[৬]

সফরের শুরুরদিকের খেলাগুলোয় বেশ ভালো খেলেন। কিন্তু, উইজডেনের কাছে তার খেলায় ধারাবাহিকতাহীনরূপে গণ্য হয়।[৭] ২৪ জুলাই, ১৯৩৭ তারিখে খেলোয়াড়ী জীবনের একমাত্র টেস্টে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অংশগ্রহণ করেন তিনি। ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ড ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে খেলার সুযোগ হয় তার। তিনি আঘাতপ্রাপ্ত আলবি রবার্টসের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন।[৮] খেলায় তিনি তিন উইকেট ও দুই ইনিংসে ৩২ রান তুলতে পেরেছিলেন। রবার্টস সুস্থ হয়ে সিরিজের তৃতীয় ও চূড়ান্ত টেস্টে খেলেন।

দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর পূর্বে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেন। ঐ খেলায় ইনিংসে ব্যক্তিগত সেরা বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন। ৬/৪৬ ও ৩/৩৮ নিয়ে নিউজিল্যান্ড একাদশকে স্বল্প ব্যবধানের জয় পেতে প্রভূতঃ ভূমিকা পালন করেন।[৯] সফরের শেষদিকে খেলায় ব্যক্তিগত সেরা বোলিং করেন। মাইনর কাউন্টিজের বিপক্ষে ৫/৫২ ও ৫/২০ নিয়ে দলকে নিরঙ্কুশ বিজয়ে সহায়তা করেন নরম্যান গালিচান।[১০] সমগ্র সফরে ২৩.৯৪ গড়ে ৫৯টি প্রথম-শ্রেণীর উইকেট পান তিনি।[১১]

দেহাবসান[সম্পাদনা]

২৫ মার্চ, ১৯৬৯ তারিখে ৬৩ বছর বয়সে তাউপো এলাকায় নরম্যান গালিচানের দেহাবসান ঘটে। এরপর তাউপো সরকারী সমাধিক্ষেত্রে তাকে সমাধিস্থ করা হয়।[১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. New Zealand Truth, 13 November 1930, p. 16.
  2. "Obituaries, 1969"। Wisden Cricketers' Almanack (1970 সংস্করণ)। Wisden। পৃষ্ঠা 1021। 
  3. "Bowling in Hawke Cup 1935-36"CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৭ 
  4. Plunket Shield bowling 1936-37
  5. Plunket Shield batting 1936-37
  6. "Gallichan to join N.Z. team"Press। LXXIII (22049): p. 14। ২৪ মার্চ ১৯৩৭। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১৭ 
  7. "New Zealanders in England in 1937"। Wisden Cricketers' Almanack (1938 সংস্করণ)। Wisden। পৃষ্ঠা 192–196। 
  8. "New Zealanders in England in 1937"। Wisden Cricketers' Almanack (1938 সংস্করণ)। Wisden। পৃষ্ঠা 224–226। 
  9. "Scotland v New Zealanders 1937"CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৭ 
  10. "Minor Counties v New Zealanders 1937"CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৭ 
  11. New Zealanders in British Isles 1937 bowling
  12. "Deceased details"। Taupo District Council। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জানুয়ারি ২০১৫ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]