ডেথ ইন দি আফটারনুন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডেথ ইন দি আফটারনুন
ডেথ ইন দি আফটারনুন.jpg
রবের্তো দোমিঙ্গোর 'ষাড়ের লড়াই'-এর রঙিন ছবিসহ বইয়ের প্রচ্ছদ
লেখকআর্নেস্ট হেমিংওয়ে
মূল শিরোনামDeath in the Afternoon
প্রচ্ছদ শিল্পীরবের্তো দোমিঙ্গো
দেশমার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ভাষাইংরেজি
বিষয়ষাড়ের লড়াই
ধরনভ্রমণকাহিনি
প্রকাশিত১৯৩২
প্রকাশকচার্লস স্ক্রিবনার্স সন্স
মিডিয়া ধরনমুদ্রিত
পৃষ্ঠাসংখ্যা৫১৭[১]

ডেথ ইন দি আফটারনুন (ইংরেজি: Death in the Afternoon, অনুবাদ 'অপরাহ্ণে মৃত্যু') হল আর্নেস্ট হেমিংওয়ে রচিত অকল্পিত সাহিত্য গ্রন্থ। স্পেনীয় ষাড়ের লড়াই নিয়ে রচিত বইটি ১৯৩২ সালে প্রকাশিত হয়। বইটি ইতিহাস সম্পর্কে এবং হেমিংওয়ের ভাষ্যমতে ষাড়ের লড়াইয়ের ব্যাপকতার ধারণা দেয়। এতে ভয় ও সাহসিকতার গভীর ধারণা রয়েছে। সহায়ক গ্রন্থের পাশাপাশি এতে তিনটি অংশ রয়েছে: হেমিংওয়ের লেখনী, চিত্র ও বিভিন্ন পরিভাষার টীকা-টিপ্পনী।

প্রকাশনার ইতিহাস[সম্পাদনা]

হেমিংওয়ে ১৯২০-এর দশকে পাম্পলোনা ফিয়েস্তায় ষাড়ের লড়াই দেখার পর তিনি এতে আসক্ত হয়ে পড়েন, যা তিনি তার দ্য সান অলসো রাইজেস বইতে লিখেছিলেন।[২] ডেথ ইন দি আফটারনুন বইতে তিনি ষাড়ের লড়াইয়ের অধিবিদ্যা সম্পর্কে আলোকপাত করেন, এবং এই রীতিকে তিনি জীবনের অর্থ ও তাৎপর্যের সাথে তুলনা বলে গণ্য করেন। ষাড়ের লড়াইয়ে তিনি জীবন ও মৃত্যুর মৌলিক প্রকৃতি খুঁজে পান।[২]

ডেথ ইন দি আফটারনুন বইটি ১৯৩২ সালের ২৩শে সেপ্টেম্বর চার্লস স্ক্রিবনার্স সন্স থেকে প্রকাশিত হয় এবং প্রথম মুদ্রণের প্রায় ১০,০০০ কপি বিক্রি হয়।অলিভার ১৯৯৯, পৃ. ৭৫

মূল্যায়ন[সম্পাদনা]

দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর আর. এল. ডিউফাস লিখেন, "বইটি শুধু সতর্কই নয়, এমনকি ষাড়ের লড়াই সংগঠিত হওয়ার পদ্ধতির খুঁটিনাটি বিষয়ে যথার্থ ব্যাখ্যা প্রদানকারী নয়, এটি কীভাবে সংগঠিত হয় ও দেখা হয় তার আধ্যাত্মিকতার চিত্রায়ন।"[১] ম্যারিঅ্যান উইগিন্স ডেথ ইন দি আফটারনুন সম্পর্কে লিখেন "লেখনীর জন্য এটি পড়েন, কীভাবে তা বর্ণিত হয়েছে... তিনি আপনাকে এর [ষাড়ের লড়াই] মত করে তুলবে... আপনি যদি এটি বেশি বেশি পড়ুন, তবে তিনি আপনাকে এটি পছন্দ করাতে শুরু করবে, তিনি অবিশ্রান্ত।"[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ডিউফাস, আর. এল. (২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৩২)। "Hemingway Now Writes of Bull-Fighting as an Art"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৯ 
  2. মেয়ার্স ১৯৮৫, পৃ. ১১৮-১১৯
  3. উইগিন্স, ম্যারিঅ্যান (১৯৮৪)। Separate Checks। নিউ ইয়র্ক: র‍্যান্ডম হাউজ। পৃষ্ঠা ১৪৮। 

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • অলিভার, চার্লস এম. (১৯৯৯)। Ernest Hemingway A to Z: The Essential Reference to the Life and Work। নিউ ইয়র্ক: চেকমার্ক। পৃষ্ঠা 0–8160–3467–2। 
  • মেয়ার্স, জেফ্রি (১৯৮৫)। Hemingway: A Biography। লন্ডন: ম্যাকমিলান। পৃষ্ঠা 0–333–42126–4। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]