জেসমিন চা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জেসমিন চা
Jasmine Pearls.jpg
জেসমিন ড্রাগন ফিনিক্স মুক্তা চা
চীনা 茉莉花茶

জেসমিন চা বা জুঁই চা (চীনা: ; ফিনিন: mòlìhuā chá) হচ্ছে প্রস্ফুটিত জুঁই ফুল থেকে চায়ের সাথে সৌরভ মিশ্রিত করে একধরনের সুগন্ধি চা। জেসমিন চা মূলত চায়ের প্রকৃত রং হিসেবে সবুজ চায়ের মতো হয়ে থাকে; যদিও, সাদা চা এবং কালো চাও ব্যবহৃত হয়। জেসমিন চায়ের পরিণত স্বাদ নিগূঢ় মিষ্টি এবং তীব্র সুগন্ধি হয়ে থাকে। এটি চীনের সবথেকে জনপ্রিয় সুগন্ধি চা।[১]

জুঁই গাছকে মনে করা হয় যে হান সাম্রাজ্যের (২০৬ খ্রিঃপূঃ থেকে ২২০খ্রিঃ) সময়ে ভারত হয়ে দক্ষিণ এশিয়ার পূর্বাঞ্চল থেকে চীন দেশে এসে পৌঁছেছে,[২] এবং সুগন্ধি চা হিসেবে পঞ্চম শতাব্দী থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে।[২] যাইহোক না কেন, কিন সাম্রাজ্যের (১৬৬৪ থেকে ১৯১২) আগে জেসমিন চা ব্যাপক ভাবে বিস্তৃতি পায়নি যতক্ষন না চা বিপুল পরিমাণে পশ্চিমা দেশে রপ্তানি হতে থাকে। বর্তমানে, এটি একটি পরিচিত পানীয় যা সারা বিশ্বজুড়ে চায়ের দোকানগুলোতে পাওয়া যায়।

জুঁই গাছ পর্বতের উঁচু উপত্যকায় জন্মে থাকে। চীনা প্রদেশ ফুচিয়েন এ উৎপন্ন জুঁই গাছের সবথেকে বেশি সুখাত্যি রয়েছে।[১] এছাড়াও জুঁই গাছ হুনান, চিয়াংসু, চিয়াংশি, কুয়াংতুং, কুয়াংশি, এবং চচিয়াং প্রদেশেও জন্মে থাকে।[১] ভিয়েতনাম এবং জাপানও জুঁই গাছ উৎপাদন করে থাকে।

আধুনিক জীববিজ্ঞানের গবেষণায় দেখানো হয়েছে যে জেসমিন চা পানে স্বাস্থ্য এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উপকার বয়ে আনতে পারে। জেসমিন চায়ে কিছু ভিন্ন ভিন্ন ধরনের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে যা লোহিত রক্ত কনিকার কোষঝিল্লীর প্রতিরোধ কল্পে কাজ করে। এই বাড়তি সুরক্ষা লোহিত রক্ত কনিকার মূল-আবিষ্ট অক্সাইডেশন মুক্ত হতে প্রতিরোধে সহায়তা করে।[৩]

প্রস্তুতপ্রণালী[সম্পাদনা]

চায়ের পাতা বসন্তের শুরুতে সংগ্রহ করা হয় এবং গ্রীষ্মের শেষ অবধি যতদিন না তাজা জুঁই ফুল প্রস্ফুটিত হচ্ছে সঞ্চয় করে রাখা হয়। জুঁই ফুলকে দিনের শুরুতে তুলা হয় যখন ছোট ছোট পাপড়িগুলো দৃঢ়ভাবে আবদ্ধ থাকে। সন্ধ্যা না হওয়া পর্যন্ত ফুলোগুলোকে শীতল রাখা হয়। রাতের বেলা জুঁই ফুল প্রস্ফুটিত হয়, এবং তাদের সুগন্ধ ছড়াতে থাকে, এবং এভাবেই চায়ের সুগন্ধের কার্য সম্পাদন করা হয়ে থাকে। জুঁই ফুলের সাথে চাকে সুগন্ধি করে তোলার দুটি পদ্ধতি বিদ্যমান।[৪] একটা পদ্ধতিতে, চা এবং ফুলকে একটার উপর আরেকটা স্তরে রাখা হয়;[৫] অন্য পদ্ধতিতে, চা এবং জুঁই ফুলকে মিশ্রিত করে সারা রাত ব্যাপী সংরক্ষণ করে রাখা হয়।[২] প্রস্ফুটিত জুঁই ফুলের সুগন্ধ এবং স্বাদ শুষে নিতে এই চায়ের চার ঘণ্টার বেশি সময় লেগে যায়। ইয়িন হাওয়ের মতো উচ্চ গ্রেডের পাতা পেতে সুগন্ধ প্রক্রিয়াকে ছয় থেকে সাত বার করে করা হয়।[২] এই চা তাজা জুঁই ফুলের সব আদ্রতা শোষণ করে নেয় ফলে নষ্ট হয়ে যাওয়া থেকে এটাকে প্রতিরোধ করতে অবশ্যই শুকাতে হয়।

সাংস্কৃতিক ব্যবহার[সম্পাদনা]

চীনের উত্তরাঞ্চলে অতিথিকে স্বাগতম জানানোর প্রতীক হিসেবে জেসমিন চা পরিবেশন করা তাদের প্রথা।[১] জেসমিন বা জুঁই চা হচ্ছে ফুজহু অঞ্চলের স্থানীয় বাসিন্দাদের দেশীয় চা পানীয়, যেখানে জুঁই ফুল হচ্ছে নগরীটির পৌর ফুল।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

জেসমিন বা জুঁই চা প্রস্তুত করার জন্য সাধারণত জুঁই প্রজাতি ব্যবহৃত হয়ে থাকে:

  • জেসমিনাম অফিসিন্যাল – সাধারণ জুঁই
  • বেলি ফুল – সাম্পাগুইটা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Gong, Wen. Lifestyle in China. 五洲传播出版社, 2007. Retrieved October 23, 2010, from [১]
  2. Ron Rubin, Stuart Avery Gold (২০০২)। Tea Chings: The Tea and Herb Companion। Newmarket Press। পৃষ্ঠা 101। 
  3. Zhang, Anqi; Zhu, Qin Yan; Luk, Yan Shun; Ho, Ka Yan; Fung, Kwok Pui; Chen, Zhen-Yu (১৯৯৭-০৬-২০)। "Inhibitory effects of jasmine green tea epicatechin isomers on free radical-induced lysis of red blood cells"Life Sciences61 (4): 383–394। doi:10.1016/S0024-3205(97)00395-0 
  4. Lindsey Goodwin। "What is Jasmine Tea?"about.com 
  5. Dawn Campbell (১৯৯৫)। The Tea Book। Pelican Publishing। পৃষ্ঠা 117।