জন নিউস্টিড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জন নিউস্টিড
জন নিউস্টিড.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন টমাস নিউস্টিড
জন্ম(১৮৭৭-০৯-০৮)৮ সেপ্টেম্বর ১৮৭৭
মার্টন, মিডলসবোরা, ইয়র্কশায়ার, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২৫ মার্চ ১৯৫২(1952-03-25) (বয়স ৭৪)
ব্ল্যাকবার্ন, ল্যাঙ্কাশায়ার, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক, মিডিয়াম পেস
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১০৯
রানের সংখ্যা ২,১০৪
ব্যাটিং গড় ১৬.১৮
১০০/৫০ ১/৬
সর্বোচ্চ রান ১০০*
বল করেছে ১৫৫৫৬
উইকেট ৩১০
বোলিং গড় ১৯.১৮
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৪
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৭/১০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৮৩/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৭ মে ২০১৯

জন টমাস নিউস্টিড (ইংরেজি: John Newstead; জন্ম: ৮ সেপ্টেম্বর, ১৮৭৭ - মৃত্যু: ২৫ মার্চ, ১৯৫২) ইয়র্কশায়ারের মার্টন ইন ক্লেভল্যান্ড এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ ক্রিকেট তারকা ছিলেন। ১৯০৩ থেকে ১৯১৩ সময়কালে ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ইয়র্কশায়ার দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।[১] দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতেন। ডানহাতে মাঝারিসারিতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে অফ ব্রেক কিংবা মিডিয়াম পেস বোলিংয়ে পারদর্শীতা প্রদর্শন করেছেন জ্যাক নিউস্টিড নামে পরিচিত জন নিউস্টিড

তার বোলিং অনেকাংশেই উচ্চমানসম্পন্ন ও স্বাভাবিক ধরনের ভঙ্গীমায় ছিল যা মিডিয়াম পেসের চেয়ে কিছুটা বেশী। তিনি প্রতিভাধর হলেও খামখেয়ালীপূর্ণ ব্যাটসম্যান হিসেবে বিবেচিত হয়েছিলেন।

শৈশবকাল[সম্পাদনা]

ইয়র্কশায়ারের মার্টন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী জন নিউস্টিড তৎকালীন ইংল্যান্ড একাদশ দলের সদস্য ও নর্থ রাইডিংয়ের ক্রিকেটার উইলিয়াম ব্রান্টনের তত্ত্বাবধানে ক্রিকেট খেলা শিখতে শুরু করেন। খেলায় তিনি এতোটাই দক্ষতা লাভ করেন যে সতেরো বছর বয়সে মিডলসবোরা ক্রিকেট ক্লাবের সাথে তাকে চুক্তি করা হয়। ১৯০৩ সালে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ডার্বিশায়ারের বিপক্ষে দুইটি খেলায় যাচাই-বাছাইয়ের উদ্দেশ্য নিয়ে তাকে খেলানো হয়। এতে দেখা যায় যে, তিনি ব্যাটসম্যান হিসেবে ভালো খেলেন ও বোলার হিসেবে নয়। ফলশ্রুতিতে, এ ধরনের ভুলের খেসরাত গুণতে হয় তাকে ও দলে রাখা হয়নি।[১]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯০৩ থেকে ১৯১৩ সাল পর্যন্ত প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল জন নিউস্টিডের। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ইয়র্কশায়ারের পক্ষে ৯৬টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশগ্রহণ করেছিলেন জন নিউস্টিড। ১৯০৩ সালে ইয়র্কশায়ারের পক্ষে দুইবার খেলেন। এরপর ১৯০৬ সালের পূর্ব-পর্যন্ত এমসিসি’র কর্মী হিসেবে কাজ করতে থাকেন। এ সময়ে ক্লাবের পক্ষে আটটি খেলায় অংশ নেন। মাঝারিমানের ফলাফল করেন ও বোলার হিসেবে তাকে নিয়মিতভাবে বল করানো হতো না। ১৯০৭ সালে আয়ারল্যান্ডের সাথে যুক্ত হন। এটিই তার খেলোয়াড়ী জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। বারো সপ্তাহ উডব্রুক ব্রে ক্রিকেট ক্লাবের সাথে যুক্ত ছিলেন। এ পর্যায়ে শতাধিক উইকেট তুলে নেন। ফলশ্রুতিতে, ইয়র্কশায়ার কর্তৃপক্ষ জন নিউস্টিডের বোলার হিসেবে গুরুত্বতার বিষয়টি উপলদ্ধি করে।

১৯০৭ সালে ইয়র্কশায়ার দলের পক্ষে পুণরায় যোগ দেন।[২] ১৯০৮ সালে জন নিউস্টিডের বৈপ্লবিক উত্থান ঘটে। ব্রাডফোর্ডে ওরচেস্টারশায়ারের বিপক্ষে ৭/১০ লাভ অসাধারণ বোলিং পরিসংখ্যানরূপে বিবেচিত হয়। ঐ মৌসুমে ১৬.৫০ গড়ে ১৪০ উইকেট ও ৯২৭ রান তুলেছিলেন তিনি। এ পর্যায়ে ইয়র্কশায়ারকে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা বিজয়ে প্রভূতঃ ভূমিকা পালন করেছিলেন। বোলার হিসেবে তিনি প্রায় মিডিয়াম পেসসহ তৎকালীন ধ্রুপদীশৈলীর দাবীদার ইন-ডাকার্স কিংবা দ্রুতগতিসম্পন্ন অফ স্পিন বোলিংয়ে সক্ষম ছিলেন। ১৯০৮ সালে ঘরোয়া ক্রিকেটে অনিন্দ্যসুন্দর ও দর্শনীয় ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯০৯ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সম্মাননায় ভূষিত হয়েছিলেন।

অবসর[সম্পাদনা]

টেস্ট সিরিজের জন্য উপযুক্ত হলেও খেলার সুযোগ হয়নি তার। কিন্তু, পরের বছরই তার খেলা দূর্বলতর হতে থাকে। তবে, সেরা মৌসুম কাটানোর পর তিনি আর নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। এরপর তিনি আর মাত্র ১৫১ উইকেট পেয়েছিলেন। ১৯০৯ সাল শেষ হবার পূর্বেই স্থানচ্যূত হন তিনি। ১৯১০ সালে দলের বাইরে অবস্থান করতে বাধ্য হন। ব্যাট হাতে তিনি মাত্র চৌদ্দ গড়ে রান তুলেছিলেন। এরপর আর দলে তাকে নিয়মিতভাবে খেলানো হয়নি। ১৯১৩ সালে আর একটিমাত্র খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। এটিই তার প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনের সর্বশেষ খেলা ছিল।[১]

১৯১৪ সালে ল্যাঙ্কাশায়ার লীগে রিশটন ক্রিকেট ক্লাবে খেলার জন্যে চুক্তিবদ্ধ হন। ৭.৫৭ গড়ে ৯৪ উইকেট পান। পরবর্তীতে লিজেট গ্রীন ও ইস্ট বায়ারলিতে অংশ নেন। এরপর ১৯১৯ থেকে ১৯২১ সাল পর্যন্ত চার্চ ক্রিকেট ক্লাব ও ১৯২২ সালে শেষবারের মতো হ্যাসলিংডেনে খেলেন।

দেহবসান[সম্পাদনা]

২৫ মার্চ, ১৯৫২ তারিখে ৭৪ বছর বয়সে ল্যাঙ্কাশায়ারের ব্ল্যাকবার্ন এলাকায় জন নিউস্টিডের দেহাবসান ঘটে। একমাত্র বর্ষসেরা ক্রিকেটার হওয়া স্বত্ত্বেও উইজডেনে মৃত্যুকালীন সংবাদ পরিবেশন করা হয়নি। তবে, ১৯৯৪ সালের বিশেষ ‘সম্পূরক শোকসংবাদ’ বিভাগে একবার তার কথা উল্লেখ করা হয়েছিল।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Warner, David (২০১১)। The Yorkshire County Cricket Club: 2011 Yearbook (113th সংস্করণ)। Ilkley, Yorkshire: Great Northern Books। পৃষ্ঠা 374। আইএসবিএন 978-1-905080-85-4 
  2. "Yorkshire v Worcestershire 1907"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১১ অক্টোবর ২০১৮ 
  3. Wisden 1994, p. 1363.

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

  • A History of Yorkshire Cricket by Tony Woodhouse

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]