জনি টেলর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জনি টেলর
Johnny Taylor cricketer 1921.jpg
১৯২১ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে জনি টেলর
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন মরিস টেলর
জন্ম(১৮৯৫-১০-১০)১০ অক্টোবর ১৮৯৫[১]
স্ট্যানমোর, নিউ সাউথ ওয়েলস[১]
মৃত্যু১২ মে ১৯৭১(1971-05-12) (বয়স ৭৫)[১]
তুরামুরা, নিউ সাউথ ওয়েলস
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরন-
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১১২)
১৭ ডিসেম্বর ১৯২০ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট১০ জুলাই ১৯২৬ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২০ ১৩৫
রানের সংখ্যা ৯৯৭ ৬২৭৪
ব্যাটিং গড় ৩৫.৬০ ৩৩.৩৭
১০০/৫০ ১/৮ ১১/৩৮
সর্বোচ্চ রান ১০৮ ১৮০
বল করেছে ১১৪ ১২৬
উইকেট
বোলিং গড় ৪৫.০০ ৫৩.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/২৫ ১/২৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১১/০ ৬৮/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২২ জুলাই ২০১৯
জন টেলর
জন্মকালীন নামজন মরিস টেলর[১]
বিদ্যালয়নিউইংটন কলেজ
বিশ্ববিদ্যালয়সেন্ট অ্যান্ড্রুজ কলেজ
সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়
আত্মীয়হিউ টেলর (ভ্রাতা)
পেশাদন্তচিকিৎসক
রাগবি ইউনিয়নে খেলোয়াড়ী জীবন
জাতীয় দল
সাল দল অংশগ্রহণ (পয়েন্ট)
১৯২২[১] ওয়ালাবাইস[১] ১৫[১]

জন মরিস জনি টেলর (ইংরেজি: Johnny Taylor; জন্ম: ১০ অক্টোবর, ১৮৯৫ - মৃত্যু: ১২ মে, ১৯৭১) নিউ সাউথ ওয়েলসের সিডনির স্ট্যানমোর এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও রাগবি ইউনিয়ন খেলোয়াড় ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯২০ থেকে ১৯২৬ সময়কালে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে নিউ সাউথ ওয়েলস দলের প্রতিনিধিত্ব করেন জন টেলর নামে পরিচিত জনি টেলর। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯০৬ থেকে ১৯১৫ সাল পর্যন্ত নিউইংটন কলেজে পড়াশোনা করেছেন।[২] এরপর সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সেন্ট অ্যান্ড্রুজ কলেজে অধ্যয়ন করেন। প্রথম বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে ফার্স্ট অস্ট্রেলিয়ান ইম্পেরিয়াল ফোর্সে যোগ দেন। আর্টিলেরি গানার হিসেবে কাজ করেন। যুদ্ধ শেষ হবার পর অস্ট্রেলিয়ান ইম্পেরিয়াল ফোর্সেস ক্রিকেট দলের সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্ত হন। ব্রিটেন, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ায় ২৮টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেন। ১৯১৩-১৪ মৌসুম থেকে ১৯২৬-২৭ মৌসুম পর্যন্ত জনি টেলরের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

টেস্ট ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে বিশ টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জনি টেলর। ১৭ ডিসেম্বর, ১৯২০ তারিখে সিডনিতে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১০ জুলাই, ১৯২৬ তারিখে লিডসে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯২০ থেকে ১৯২৬ সালের মধ্যে ২০ টেস্টে অংশ নেন তিনি। ১৯২৪-২৫ মৌসুমে ইংল্যান্ড দল অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে আসে। সিডনিতে দশম উইকেট জুটিতে সফরকারী দলের বিপক্ষে আর্থার মেইলির সাথে রেকর্ডসংখ্যক রান তুলেন। ১১ জুলাই, ২০১৩ তারিখে ফিল হিউজঅ্যাস্টন অ্যাগার এ রেকর্ড ভাঙ্গার পূর্ব-পর্যন্ত অক্ষত ছিল।[৩]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি রাগবি ইউনিয়ন খেলায়ও সিদ্ধহস্তের পরিচয় তুলে ধরেন জনি টেলর। ১৯২২ সালে ওয়ালাবাইসের সদস্যরূপে নিউজিল্যান্ডীয় মাউরিসের বিপক্ষে দুইটি রাগবি ইউনিয়ন টেস্টে অংশগ্রহণ করেছিলেন।[৪]

১২ মে, ১৯৭১ তারিখে ৭৬ বছর বয়সে নিউ সাউথ ওয়েলসের তুরামুরা এলাকায় জনি টেলরের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "John Taylor"। Scrum.com। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০১০ 
  2. Newington College Register of Past Students 1863-1998. Sydney. 1999. p. 194
  3. Jack Pollard (১৯৮৮)। "Taylor, John Morris (1900-1971)"। Australian Cricket: The Game and the Players। Sydney: Angus & Robertson। পৃষ্ঠা 1033। আইএসবিএন 978-0-207-15269-6 
  4. Jack Pollard (১৯৮৪)। "Taylor, John Morris (1900-1971)"। Australian Rugby Union: The Game and the Players। Sydney: Angus & Robertson। পৃষ্ঠা 607। আইএসবিএন 978-0-207-15006-7 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]