চিকমাগালুর জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চিকমাগালুর
Chikkamagaluru
জেলা
চিকমাগালুর জেলাতে পশ্চিমঘাট পর্বতমালা
চিকমাগালুর জেলাতে পশ্চিমঘাট পর্বতমালা
কর্ণাটক রাজ্যের মধ্যে চিকমাগালুর জেলার অবস্থান
কর্ণাটক রাজ্যের মধ্যে চিকমাগালুর জেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ১৩°১৯′ উত্তর ৭৫°৪৬′ পূর্ব / ১৩.৩২° উত্তর ৭৫.৭৭° পূর্ব / 13.32; 75.77স্থানাঙ্ক: ১৩°১৯′ উত্তর ৭৫°৪৬′ পূর্ব / ১৩.৩২° উত্তর ৭৫.৭৭° পূর্ব / 13.32; 75.77
দেশ ভারত
Stateকর্ণাটক
মহকুমাKadur, Chikmagalur, Tarikere, Mudigere, Sringeri, Koppa, Narasimharajapura, Kalasa
সরকার
 • জেলা শাসকডঃ বাগাদি গৌতম
আয়তন
 • মোট৭,২০১ বর্গকিমি (২,৭৮০ বর্গমাইল)
সর্বোচ্চ উচ্চতা১,৯২৫ মিটার (৬,৩১৬ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১১,৩৭,৯৬১
 • জনঘনত্ব১৫৮.১৯/বর্গকিমি (৪০৯.৭/বর্গমাইল)
ভাষা
 • সরকারিকন্নড়
সময় অঞ্চলIST (ইউটিসি+5:30)
যানবাহন নিবন্ধন
ওয়েবসাইটchickmagalur.nic.in chickamagalurcity.mrc.gov.in


চিকমাগালুর জেলা বা চিক্কামাগলুরু, কর্ণাটক রাজ্যের একটি জেলা। চিকমাগালুরে ভারতে প্রথম কফির চাষ হয়েছিল।[১] চিকমাগালুর পাহাড় যেগুলি পশ্চিমঘাটের একটি অংশ, তুঙ্গ এবং ভদ্রার মতো নদীর উত্স। কর্ণাটকের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মূল্যায়নগিরি এই জেলায় অবস্থিত। এটি কেমনাগুন্ডি এবং কুদ্রেমুখের মতো পাহাড়ি স্টেশন এবং মানিক্যধারা, হেব্বি, কল্লাথগিরির মতো জলপ্রপাত সহ পর্যটকদের স্বর্গও। অমৃতপুরায় হোয়সালা মন্দিরে দেখা যায়, চিকমাগালুর জেলার একটি সমৃদ্ধ ইতিহাস রয়েছে। বন্যপ্রাণী উত্সাহীরা এই জেলার উপস্থিত কুদরেমুখ জাতীয় উদ্যান এবং ভদ্রা বন্যজীবন অভয়ারণ্যে আগ্রহী হতে পারেন। কেরেসন্তে শ্রী মহালক্ষ্মী মন্দির টি হিন্দুদের একটি পবিত্র তীর্থ।

নামকরণের ইতিহাস[সম্পাদনা]

চিকমাগালুর জেলাটির নাম সদর দফতর চিকমাগালুর শহরের নাম থেকে। এটি বিকল্পভাবে চিককমলগুরু বা চিকমাগালুর হিসাবেও উচ্চারণ ও লেখা হয়ে থাকে। কন্নড় ভাষায় চিকমাগালুরের আক্ষরিক অর্থ "ছোট মেয়ের শহর"। [২]কথিত আছে যে এই শহরটি সাকরেপট্টার কিংবদন্তি প্রধান রুকমঙ্গদার কন্যাকে যৌতুক হিসাবে দেওয়া হয়েছিল এবং তাই এই নামটি দেওয়া হয়েছিল। যেমন অনুমান করা যায়, হীরমাগালুর নামে একটি শহর আছে যার অর্থ "বড় মেয়ের শহর" যা চিকমাগালুর শহর থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

হোয়সল শাসকরা তাদের রাজত্ব শুরু করেছিলেন চিকমাগালুর থেকে। চিকমাগালুরের একটি জনশ্রুতি অনুসারে, হোয়াসালা রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা সোসেভুরে (যা এখন মুদিগেরে তালুকের আঙ্গাদী নামে পরিচিত) হোয়সালার ক্রেস্টে অমর হয়ে থাকা কিংবদন্তি বাঘটিকে হত্যা করেছিলেন। জানা যায় যে হোয়াসালা সাম্রাজ্যের মহান রাজা দ্বিতীয় বীর বল্লাল (১১৭৩ - ১২২০ খ্রি।) তারেকের তালুকের অমৃতপুরায় অমৃতেশ্বর মন্দিরটি তৈরি করেছিলেন।


১৬৭০ খ্রিস্টাব্দে চিকমাগালুর জেলার বাবা বুদানগিরি পাহাড়ে প্রথম কফির ফসল জন্মেছিল। অরিজিনস অফ কফির নিবন্ধ অনুসারে মক্কায় তীর্থযাত্রায় যাওয়ার পথে সাধু বাবা বুদান ইয়েমেনের মোচার সমুদ্র বন্দর দিয়ে ভ্রমণ করেছিলেন যেখানে তিনি কফি আবিষ্কার করেছিলেন। ভারতে এর স্বাদ পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য, তিনি তার পেটের চারপাশে সাতটি কফি বীজ জড়িয়ে দেশে ফিরে তিনি চিকমাগালুর পাহাড়ে সেই বীজ রোপণ করেছিলেন[১]


সাম্প্রতিক ইতিহাসে, ১৯৭ সালে চিকমাগালুর বিশ্বব্যাপী মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছিল, যখন ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী এখানে নির্বাচনের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন এবং ভারতীয় সংসদে লোকসভায় নির্বাচিত হয়েছিলেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

ভূগোল[সম্পাদনা]

চিকমাগালুর জেলার সদর দফতর চিকমাগালুর শহরটি রাজ্যের রাজধানী বেঙ্গালুরু থেকে ২৫১ কিলোমিটার (১৫৬ মাইল) দূরে এবং চন্দ্র দ্রোণ পাহাড় আর ঘন বন দ্বারা বেষ্টিত। জেলাটি ১২°৫৪´ থেকে ১৩°৫৩´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৭৫°০৪´ এবং ৭৬°২১´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে রয়েছে। পূর্ব থেকে পশ্চিমে এর বৃহত্তম দৈর্ঘ্য প্রায় ১৩৮.৪ কিলোমিটার এবং উত্তর থেকে দক্ষিণে ৮৮.৫ কিলোমিটার। জেলাতে ১৯২৫ মিমি গড় বৃষ্টিপাত হয়। জেলার সর্বোচ্চ পয়েন্টটি মূল্যায়নগিরি,যা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৯২৬ মিটার উচ্চে, এটি কর্ণাটক রাজ্যেরও সর্বোচ্চ পয়েন্ট।জেলার ৩০% (২১০৮বর্গকিমি) বনভূমিতে আবৃত।জেলাটি উত্তরে শিবমোগ্গা, উত্তর-পূর্বে দাবণগেরে, পূর্বে চিত্রদুর্গতুমকুর জেলা, দক্ষিণে হাসান জেলা, দক্ষিণ-পশ্চিমে দক্ষিণ কন্নড় এবং পশ্চিমে উড়ুপি জেলা দ্বারা সীমাবদ্ধ।ভদ্রা, তুঙ্গ, হেমবতী, নেত্রবতী এবং বেদবতী নদীগুলি সারা বছর প্রবাহিত হয়। জেলাটি আয়রন, ম্যাগনেটাইট এবং গ্রানাইট আকরিকে সমৃদ্ধ। বাবা বুদন গিরি পাহাড়ের আশেপাশে কালো মাটি পাওয়া যায় এবং জেলার দক্ষিণাঞ্চলে লাল ও নুড়ি মাটি পাওয়া যায়।

দেবীরাম্মা মন্দিরের এরিয়াল ভিউ
ভাদ্র বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যতে ব্রিটিশ বন বাংলো
হাউজিং বোর্ড স্কুল কাদুর রোড
কুদ্রেমুখ পাহাড়

জনমিতি[সম্পাদনা]

২০১১ সালের জনগণনা অনুযায়ী চিকমাগালুর জেলার জনসংখ্যা ১,১৩৭,৯৬১ জন [৩] যা প্রায় সাইপ্রাস[৪] রাষ্ট্রের জনসংখ্যা অথবা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেমন্টানা[৫] রাজ্যের জনসংখ্যার সমতুল্য। জনসংখ্যার বিচারে ভারতের ৬৪০টি জেলার মধ্যে চামরাজনগরের স্থান ৪০৮তম। জেলায় জনসংখ্যার ঘনত্ব ১৫৮ জন প্রতি বর্গকিলোমিটার (৪১০ জন/বর্গমাইল) । ২০০১ থেকে ২০১১ সালের মধ্যে জেলার জনসংখ্যা-বৃদ্ধির হার ছিল -০.২৮ শতাংশ।[৬] জেলার লিঙ্গানুপাত প্রতি ১০০০ জন পুরুষ পিছু ১০০৫ জন নারী এবং সাক্ষরতার হার ৭৯.২৪ শতাংশ[৭]

কন্নড জেলার সবথেকে বেশি ব্যবহৃত ভাষা।

ঐতিহাসিক জনসংখ্যা
বছরজন.±%
1901৩,৫৯,২৭০—    
1911৩,৩৮,৪৫৭−৫.৮%
1921৩,৩৩,৫৩৮−১.৫%
1931৩,৪৭,৭১৫+৪.৩%
1941৩,৫৮,২৯০+৩%
1951৪,১৭,৫৩৮+১৬.৫%
1961৫,৯৭,৩০৫+৪৩.১%
1971৭,৩৬,৬৪৭+২৩.৩%
1981৯,১১,৭৬৯+২৩.৮%
1991১০,১৭,২৮৩+১১.৬%
2001১১,৪০,৯০৫+১২.২%
2011১১,৩৭,৯৬১−০.৩%

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "About Chikkamagaluru"www.chickmagalur.nic.in। ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৭-১৯ 
  2. National Informatics Centre। "About Chikkamagaluru"The Official website of Chikkamagaluru। District Administration, Chikkamagaluru। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০০৭ [অকার্যকর সংযোগ]
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; districtcensus নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  4. US Directorate of Intelligence। "Country Comparison:Population"। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১১Benin 9,325,032 
  5. "2010 Resident Population Data"। U. S. Census Bureau। সংগ্রহের তারিখ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১১North Carolina 9,535,483 
  6. "District Census 2011"। Census2011.co.in। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০ 
  7. "District Census 2011"। Census2011.co.in। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০