খরখগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
খরখগ প্রস্তুতি। ধাতব দুধের পাত্র, কালো পাথর এবং সিদ্ধ মাংসের টুকরো দিয়ে এটা প্রস্তুত করা হবে
উলানবাটোরের রাজধানীতে প্রস্তুতকৃত খরখগ

খরখগ হচ্ছে মঙ্গোলীয় রন্ধনশৈলীর একটি বারবিকিউ ধরণের খাবার। খরখগ একটি পাত্রের মধ্যে রান্না করা হয় যার মধ্যে গরম পাথর এবং পানি থাকে এবং পাত্রটিকে বাইরে থেকে উত্তপ্ত করা হয়।[১][২]

প্রস্তুতপ্রণালী[সম্পাদনা]

খরখগ তৈরীতে মঙ্গোলীয়গণ মেষের মাংস (ছাগল মাংসও ব্যবহার করা যায়) গ্রহণ করে এবং হাড় সংযুক্ত থাকা অবস্থায় এটি উপযুক্ত আকারের টুকরো করে কেটে নেয়। এরপরে দশ-বিশটি মুঠোর আকারের পাথর আগুনে উত্তপ্ত করা হয়। পাথরগুলি যথেষ্ট গরম হলে রান্নার পাত্রে পাথর এবং মাংসগুলোকে একসাথে দেওয়া হয়। প্রথাগতভাবে ধাতব দুধের পাত্র ব্যবহৃত হয়। তবে মাংস এবং পাথর ব্যবহার করা যায় এমন যে কোন পাত্রই ব্যবহার করা যায়।

বাবুর্চি অন্যান্য উপাদানের জন্য পছন্দসই গাজর, বাঁধাকপি, আলু ইত্যাদি ব্যবহার করে একটি ঝোল তৈরী করেন,তারপর লবণ এবং অন্যান্য মশলা যোগ করেন। উপাদানগুলি স্তরযুক্ত হওয়া উচিত, সবার উপরে থাকবে সবজি। সবশেষে পর্যাপ্ত পানি যোগ করা হয় যাতে পাত্রের মধ্যে বাষ্পের বুদবুদ ওঠে। পাত্রটি ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়।

পাথরের উত্তাপ এবং বাষ্প পাত্রের ভেতরের মাংস রান্না করে ফেলবে। যদি পাথরের উত্তাপ যথেষ্ট না হয় তবে চুলার আগুনে পাত্রটি রাখা হয়। আগুনের উত্তাপে এবং মাংসের চর্বি শুষে নিয়ে পাথরগুলো কালো হয়ে যায়। পাচক ঘ্রাণ শুকে রান্না হয়ে না যাওয়া পর্যন্ত পাত্রটি ঢেকে রাখতে হবে। পাথরে মাংস রান্না করতে প্রায় দেড় ঘন্টার মত সময় লাগে। মাংস রান্না হলে পাথর সমেত কিছু মাংস পাচক বের করে আনে। সাধারনত খরখগ হাত দিয়ে খাওয়া হয়। তবে অনেকে মাংস হাড় থেকে আলাদা করার জন্যে ছুরি ব্যবহার করে থাকে। খোরখোগ মঙ্গোলীয় গ্রামাঞ্চলে একটি জনপ্রিয় খাবার। তবে এটি সাধারণত রেস্তোরাঁয় পরিবেশিত হয় না।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Thrift, Eric (২০০১)। The cultural heritage of Mongolia। Naranbulag printing। 
  2. Sanders, Alan J.K.; J. Bat-Ireedui (১৯৯৫)। Mongolian phrasebook। Lonely Planet। পৃষ্ঠা 99। আইএসবিএন 978-0-86442-308-5। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১০ 
  3. "Savour Asia - What to Try"। ২২ এপ্রিল ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ নভেম্বর ২০১৭