কৌশিক অমলিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কৌশিক অমলিন
කෞශික් අමලින්
கவுசிக் அமலியன்
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামকৌশিক নাগিন্দা অমলিন
জন্ম৭ এপ্রিল, ১৯৬৫
কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩৭)
২২ মার্চ ১৯৮৬ বনাম পাকিস্তান
শেষ টেস্ট১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৮ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৪৮)
৮ মার্চ ১৯৮৬ বনাম পাকিস্তান
শেষ ওডিআই২৯ মার্চ ১৯৮৮ বনাম নিউজিল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ১৫
ব্যাটিং গড় ৯.০০ ৭.৫০
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান ৭*
বল করেছে ২৪৪ ৩১৮
উইকেট
বোলিং গড় ২২.২৮ ২৩.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৪/৯৭ ৪/৪৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- -/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২০ মার্চ ২০২০

কৌশিক নাগিন্দা অমলিন (সিংহলি: කවුෂික් අමලීන්; জন্ম: ৭ এপ্রিল, ১৯৬৫) কলম্বো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক শ্রীলঙ্কান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৮৬ থেকে ১৯৮৮ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে শ্রীলঙ্কার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিং করতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিংয়ে পারদর্শী ছিলেন কৌশিক অমলিন

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮৫-৮৬ মৌসুম থেকে ১৯৮৭-৮৮ মৌসুম পর্যন্ত কৌশিক অমলিনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ইংল্যান্ড বি দলের বিপক্ষে দূর্দান্ত ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করেছিলেন তিনি। ফলশ্রুতিতে, দল নির্বাচকমণ্ডলী তার দিকে দৃষ্টি নিবদ্ধ করে। ডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার ছিলেন তিনি। তীক্ষ্ণ পেস প্রয়োগে ইনসুইং বোলিংয়ে দক্ষ ছিলেন।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্ট ও আটটি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন কৌশিক অমলিন। ২২ মার্চ, ১৯৮৬ তারিখে কলম্বোয় সফরকারী পাকিস্তান দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ১২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৮৮ তারিখে পার্থে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯৮৫-৮৬ মৌসুমে নিজ দেশে পাকিস্তান দলের আগমন ঘটে। বিশ বছর বয়সী কৌশিক অমলিনকে সিরিজের চূড়ান্ত টেস্টের জন্য শ্রীলঙ্কা দলের সদস্যরূপে মনোনীত করা হয়। নতুন বল হাতে নিয়ে ৩/৫৯ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন। মোহসিন খানজাভেদ মিয়াঁদাদ তার শিকারে পরিণত হয়েছিলেন।

১৯৮৭-৮৮ মৌসুমে দলের সাথে অস্ট্রেলিয়া গমন করেন। এ সফরে নিজের অপর টেস্টটি খেলেন। পার্থে সিরিজের একমাত্র টেস্টটিতে শ্রীলঙ্কা দলের শোচনীয় পরাজয় ঘটে। তবে, অস্ট্রেলিয়ার একমাত্র ইনিংস তিনি ৪/৯৭ লাভ করেছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of Sri Lanka Test Cricketers
  2. "Sri Lanka – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০২০ 
  3. "Sri Lanka – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]