কাব বিন আশরাফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(কাব ইবনে আল আশরাফ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

কাব বিন আশরাফ (হিব্রু ভাষায়: כעב אבן אלאשרףKa'b iben al-Ashraf, আরবি: كعب بن الاشرف‎‎, ৬২৪-এ নিহত) ছিল মদিনার একজন ইহুদি নেতা। বদরের যুদ্ধের ছয় মাস পর ইসলামের নবী মুহাম্মাদের নির্দেশে মুসলমানরা তাকে হত্যা করে।[১] কাবের পিতা আরবের বনু তায়ি গোত্র এবং মাতা বনু নাদির গোত্রের অন্তর্ভুক্ত ছিলো, তাকে তার মায়ের গোত্রের অন্তর্ভুক্ত বলে গণ্য করা হতো, যেখানে সে একজন অন্যতম নেতৃস্থানীয় ব্যক্তি ছিল।[২]

ইবনে ইসহাকের বর্ণনা অনুযায়ী, মুহাম্মদ কাবকে হত্যা করার জন্য তার অনুসারীদেরকে নির্দেশনা দেন, এর কারণ; কাবের প্রেরিত একটি চিঠি বদর যুদ্ধের পর মক্কায় পৌঁছেছিলো এবং তা মুহাম্মদের বিরুদ্ধে কুয়াইশদেরকে খেপিয়ে দিয়েছিল। সে এমন কবিতাও লিখত যেগুলোতে সে বদর যুদ্ধে নিহত কুরাইশদের জন্য দুঃখ প্রকাশ করতো। মদিনা থেকে ফেরার অল্পদিন পরেই সে মুসলিম মহিলাদের প্রকৃতি সম্পর্কে কটাক্ষ করে কবিতা রচনা করে।[১] অন্যান্য ঐতিহাসিক সূত্র দাবি করে যে, কাবকে হত্যা করার কারণ ছিল যে, সে মুহাম্মদকে হত্যা করার জন্য একদল ইহুদির সঙ্গে গোপন পরিকল্পনা করেছিল। আল-যামাখাশারি, আল-তাবারসি, আল-রাযি এবং আল-বায়দাভির মত পরবর্তী ভাষ্যকারদের কাছ থেকে আরেকটি পৃথক মত পাওয়া যায় যে, কাবকে হত্যা করা হয়েছিল কারণ ফেরেশতা জিবরাইল মুহাম্মাদকে কাবের চুক্তি সম্পর্কে জানিয়ে দিয়েছিলেন, যেখানে কাব তার মক্কা সফরের সময় কুরাইশ এবং চল্লিশজন ইহুদির মধ্যে মুহাম্মাদের বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক সন্ধিচুক্তিতে আবু সুফিয়ানের সাথে সাক্ষর করেন। অধ্যাপক ইউরি রবিনের ভাষ্যমতে, প্রাথমিক উৎসগুলোতে কুরাইশ এবং ইবনে আশরাফের মাঝে সাক্ষরিত একটি মুসলিমবিরোধী সন্ধির অস্তিত্বের বিষয়ে বর্ণনা পাওয়া যেতে পারে।[১]

সহিহ বুখারি এবং সহিহ মুসলিমের অসংখ্য হাদিসে কাবকে হত্যার নির্দেশটি উল্লেখ করা হয়েছে।[৩]

মুহাম্মাদের সঙ্গে দ্বন্দ্ব[সম্পাদনা]

বদরের যুদ্ধে মুসলিমদের জয়ের পর বন্দী কয়েকজন মক্কার নেতার মৃত্যুদন্ডের ঘটনায় কাব বিন আশরাফ অসন্তুষ্ট ছিল।[৪]

কাব এরপর মক্কা গিয়ে সেখানে কুরাইশদের প্রশংসায় কবিতা রচনা করে এবং মুসলিমদের বিরুদ্ধে অস্ত্রধারণে উৎসাহ যোগায়।[২] কিছু সূত্র অনুযায়ী কাব মক্কা গিয়ে মুহাম্মাদের বিরুদ্ধে পারস্পরিক সহযোগিতার জন্য কুরাইশ ও ইহুদিদের একটি চুক্তি করে।[৫]

মদিনা ফিরে আসার পর কাব মুসলিম নারীদের বিরুদ্ধে অশ্লীল কবিতা রচনা শুরু করে।[৬]

কাব বিন আশরাফের কর্মকাণ্ডের এক পর্যায়ে মুহাম্মদ কাবকে হত্যার নির্দেশ দেন।[৭] মুহাম্মদ ইবনে মাসলামা এই দায়িত্ব নেন এবং কয়েকজন সাহাবি তার সাহায্যে এগিয়ে আসেন। এরপর রাতের বেলা কাবকে হত্যা করা হয়।[৪]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Uri Rubin, The Assassination of Kaʿb b. al-Ashraf, Oriens, Vol. 32. (1990), pp. 65-71.
  2. Montgomery Watt, W (১৯৫৬)। Muhammad at Medina। পৃষ্ঠা 18-19। 
  3. সহীহ বুখারী, ৪:৫২:২৭০ (ইংরেজি) সহীহ বুখারী, ৫:৫৯:৩৬৯ (ইংরেজি), সহীহ মুসলিম, ১৯:৪৪৩৬ (ইংরেজি) সহীহ বুখারী, ৩:৪৫:৬৮৭ (ইংরেজি) সহীহ বুখারী, ৪:৫২:২৭১ (ইংরেজি)
  4. Montgomery Watt, W.। "Ka'b ibn al-Ashraf"। Encyclopaedia of Islam (Online সংস্করণ)। Brill Academic Publishers। ISSN 1573-3912। 
  5. Rubin, Uri (১৯৯০)। The Assassination of Kaʿb b. al-Ashraf.Oriens32। পৃষ্ঠা 66। 
  6. Stillman, Norman (১৯৭৯)। The Jews of Arab Lands: A History and Source BookJewish Publication Society (Translation of Ibn Hisham's al-Sira al-Nabawiyya (The Life of The Prophet))। পৃষ্ঠা 124–127। আইএসবিএন 0-8276-0116-6 
  7. সহীহ বুখারী, ৪:৫২:২৭০ (ইংরেজি)