এমরে কান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এমরে কান
Emre Can 2014.jpg
২০১৪ সালে লিভারপুল দলের সাথে প্রশিক্ষনের সময়ে কান।
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম এমরে কান[১]
জন্ম (1994-01-12) ১২ জানুয়ারি ১৯৯৪ (বয়স ২৫)[১]
জন্ম স্থান ফ্রাঙ্কফার্ট, জার্মানী
উচ্চতা ১.৮৪ মিটার[২]
মাঠে অবস্থান মিডফিল্ডার, ডিফেন্ডার
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব লিভারপুল
জার্সি নম্বর ২৩
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
২০০০–২০০৬ এসভি ব্লাও-গেল্ব ফ্রাঙ্কফার্ট
২০০৬–২০০৯ ইনট্রাচট ফ্রাঙ্কফার্ট
২০০৯–২০১১ বায়ার্ন মিউনিখ
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০১১–২০১৩ বায়ার্ন মিউনিখ II ৩১ (৩)
২০১২–২০১৩ বায়ার্ন মিউনিখ (১)
২০১৩–২০১৪ বায়ের লেভারকুসেন ২৯ (৩)
২০১৪– লিভারপুল ১০৭ (৮)
জাতীয় দল
২০০৯ জার্মানী অনুর্ধ ১৫ (০)
২০০৯–২০১০ জার্মানী অনুর্ধ ১৬ (২)
২০১০–২০১১ জার্মানী অনুর্ধ ১৭ ২৩ (৩)
২০১২–২০১৩ জার্মানী অনুর্ধ ১৯ (০)
২০১৩–২০১৫ জার্মানী অনুর্ধ ২১ ১৩ (১)
২০১৫– জার্মানী ২০ (১)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ২২:২৭, ১৪ই জানুয়ারী ২০১৮ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ২১:৪৭, ১৪ই নভেম্বর ২০১৭ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

এমরে কান (তুর্কি উচ্চারণ: [ˈɛmrɛ ˈd͡ʒɑn],[৩] জন্ম ১২ জানুয়ারী ১৯৯৪) একজন জার্মান পেশাদার ফুটবলার, যিনি একজন সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হিসেবে জনপ্রিয় ব্রিটিশ ফুটবল ক্লাব লিভারপুল এবং জার্মানী জাতীয় দল-এর হয়ে খেলে থাকেন। একজন বহুমুখী প্রতিভাসম্পন্ন খেলোয়াড়, যিনি একজন ডিফেনসিভ মিডফিল্ডার হিসেবে খেলার পাশাপাশি একজন সেন্ট্রে ব্যাক এবং ফুল ব্যাক হিসেবেও খেলতে পারেন।

২০১৩ সালে জার্মান ক্লাব বায়ের লেভারকুসেন-এ স্থানান্তরিত হবার আগ পযন্ত, তিনি আরেক জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ-এর হয়ে তার জ্যেষ্ঠ খেলোয়ারী জীবন শুরু করেন, যেখানে তিনি বেশির ভাগ সময়েই ক্লাবের সংরক্ষিত খেলোয়াড়দের নিয়ে করা দল বায়ার্ন মিউনিখ II-এ খেলেন। এক সিজন পরেই, তিনি জনপ্রিয় ব্রিটিশ ক্লাব লিভারপুল এর সাথে £৯.৭৫;মিলিয়ন পাউন্ডের একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন, এর পর থেকে তিনি লিভারপুলের হয়ে সব প্রতিযোগিতা সমূহ মিলিয়ে ১৫০টিরও বেশি ম্যাচ খেলেছেন।

কান, জার্মানীর হয়ে অনুর্ধ ১৫ দল থেকে অনুর্ধ ২১ দল পযন্ত প্রতিনিধিত্ব করেন, এছাড়াও ২০১৫ সালে অনুষ্ঠেও ২০১৫ অনুর্ধ ২১ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ-এ ও খেলেন। ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে, তিনি জ্যেষ্ঠ খেলোয়াড় জীবনে অভিষেক ঘটান এবং ২০১৬ সালে অনুষ্ঠেও ২০১৬ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ-এর জন্য নির্বাচিত হন। এর পরবর্তী বছরে তিনি রাশিয়ায় অনুষ্ঠেও ২০১৭ ফিফা কনফেডারেশনস কাপ-এ অংশগ্রহণকৃত জার্মানী দলের একজন ছিলেন, এবং যেটিতে তারা বিজয়ী হন।

ক্লাব কর্মজীবন[সম্পাদনা]

প্রাথমিক কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তার জন্ম ১৯৯৪ সালে, জার্মানীর হেসেন রাজ্যের ফ্রাঙ্কফার্ট শহরের এক তুর্কী পরিবার-এ। কান মাত্র ছয় বছর বয়সে তার শহরের নিকটস্থ "এসভি ব্লাও-গেল্ব ফ্রাঙ্কফার্ট" নামক একটি ফুটবল স্থানীয় ক্লাবে যোগ দেন এবং ২০০৬ সাল পযন্ত সেখানেই খেলেন, পরবর্তীতে তিনি ইয়থ একাডেমী অব ইনট্রাচট ফ্রাঙ্কফার্ট-এ যোগ দেন। তার দুটো ফ্রাঙ্কফার্ট ক্লাবের সাথে খেলার সময়কালে মূলত তিনি মিডফিল্ডার অবস্থানে খেলেন, যেখানে তিনি আক্রমনে খেলার ভূমিকাও পালন করেন।[৪][৫][৬] ২০০৯ সালে, জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ-এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পর মাত্র ১৫ বছর বয়সে তিনি তার আবাসস্থল পরিবর্তন করে জার্মানীর বাভারিয়া রাজ্যে চলে আসেন।[৬]

আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

তার বংশপরিচয় তুর্কী হওয়ার দরুন, কান তুরষ্ক জাতীয় দল -এর হয়ে খেলার যোগ্যতা রাখেন, কিন্তু তিননি নিদৃষ্ট করেন যে "তিনি জার্মানীর জন্য খেলতে খুব পছন্দ করেন, এবং তিনি জার্মান ফুটবল এসোসিয়েশন" এর সাথেও যুক্ত হতে চান"।[৭][৮][৯]

কর্মজীবনের পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

ক্লাব[সম্পাদনা]

14 January 2018 পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
উপস্থিতি এবং ক্লাব অনুযায়ী গোল, সিজন এবং প্রতিযোগিতা
ক্লাব Season লিগ কাপ1 লিগ কাপ2 বৈদেশিক3 অন্যান্য4 Total তথ্যসূত্র
লিগ উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল
বায়ার্ন মিউনিখ II ২০১১–১২ রেজিওনালিগা সুদ ১৭ ১৭ [১০]
২০১২–১৩ রেজিওনালিগা বায়ার্ন ১৪ ১৪ [১১]
Totals ৩১ ৩১
বায়ার্ন মিউনিখ ২০১২–১৩ বুন্দেসলিগা [১১]
বায়ার্ন লেভারকুসেন ২০১৩–১৪ ২৯ 39 4 [১২]
লিভারপুল ২০১৪–১৫ প্রিমিয়ার লিগ ২৭ ৪০ [১১]
২০১৫–১৬ ৩০ ১৪ ৪৯ [১১]
২০১৬–১৭ ৩২ ৪০ [১১]
২০১৭–১৮ ১৮ ২৭ [১১]
সর্বমোট ১০৭ ১৪ ২৬ ১৫৬ ১২
খেলোয়াড়ী জীবনে সর্বমোট ১৭১ ১৫ ১৪ 1 ১৪ ৩৩ 1 ২৩৩ ২০

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের ১৪ই নভেম্বরে ম্যাচ অনুযায়ী পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[১৩]
২০১৭ সালে জার্মানী দলের সাথে কান।
আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যান
জাতীয় দল সাল উপস্থিতি গোল
জার্মানী ২০১৫
২০১৬
২০১৭ ১৩
সর্বমোট ২০ 1

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. টেমপ্লেট:Hugman
  2. "Emre Can"। Premier League। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০১৭ 
  3. Sarigul, Emre (৯ মার্চ ২০১৫)। "Guide to pronouncing Emre Can"। Turkish Football। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৫ 
  4. Shaw, Chris (২২ এপ্রিল ২০১৭)। "The evolution of Emre Can: The decision"Liverpool FC। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৭ 
  5. "Who is brilliant new Liverpool signing Emre Can? Full lowdown on the Germany starlet"Metro। ৫ জুন ২০১৪। 
  6. "Emre Can"Deutscher Fußball-Bund (German ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মার্চ ২০১৬ 
  7. "Emre Can: Ich will für Deutschland spielen!" [Emre Can: I want to play for Germany!] (German ভাষায়)। tz-online.de। ১৪ জুলাই ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১২ 
  8. "Nach Samed Yesil bekennt sich auch Emre Can zu Deutschland" [After Samed Yesil also Emre Can declares for Germany] (German ভাষায়)। Deutsch-tuerkische-nachrichten.de। ১৪ জুলাই ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১২ 
  9. "Platz 3 gibt mir Selbstvertrauen für Bayern" [Place 3 gives me self-confidence for Bayern]। Sport1.de। ১৩ জুলাই ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১২ 
  10. "Emre Can"kicker.de (German ভাষায়)। kicker। ১৭ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০১৬ 
  11. "Emre Can " Club matches"। World Football। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০১৬ 
  12. "Emre Can," (German ভাষায়)। kicker.de। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৬ 
  13. National-Football-Teams.com-এ এমরে কান (ইংরেজি)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]