ইকবাল বাহার চৌধুরী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইকবাল বাহার চৌধুরী
জন্ম১৯৪০
জাতীয়তাবাংলাদেশী
যেখানের শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাসংবাদ উপস্থাপক
কার্যকাল১৯৪৯-২০১০
পিতা-মাতাহবীবুল্লাহ বাহার চৌধুরী
আনোয়ারা বাহার চৌধুরী

ইকবাল বাহার চৌধুরী (জন্ম ১৯৪০) একজন বাংলাদেশী সংবাদ উপস্থাপক এবং কণ্ঠ অভিনেতা। ১৯৭২ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত তিনি ভয়েস অফ আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।[১]

শৈশবকাল ও পড়ালেখা[সম্পাদনা]

চৌধুরীর জন্ম ১৯৪০ সালে [২]। তার বাবা হবীবুল্লাহ বাহার চৌধুরী পূর্ববাংলার রাজনীতিবিদ ও লেখক ছিলেন [২] । তার মা আনোয়ারা বাহার চৌধুরী (১৯১৯-১৯৮৭) একজন সমাজ কর্মী ও লেখক ছিলেন [৩] । তিনি ঢাকার বুলবুল ললিতকলা একাডেমি (বাএফএ) এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। ১৯৬০ এর দশকের গোড়ার দিকে, তিনি ইরান, ইরাক এবং প্রাক্তন সোভিয়েত ইউনিয়নে একটি সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি দলের সহ-সভাপতির পদে কাজ করেছিলেন [৩] ।ইকবালের তিন বোন রয়েছে- সেলিনা বাহার জামান, নাসরিন শামস এবং তাজিন চৌধুরী। [৪][৫]

চৌধুরী ১৯৪৯ সালে রেডিও পাকিস্তান ঢাকার জন্য পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোড থেকে সম্প্রচার শুরু করেছিলেন [১] । তার বোন সেলিনার সাথে তিনি একটি সাপ্তাহিক প্রোগ্রাম খেলা ঘর শুরু করেছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী থাকাকালীন তিনি "ইউরেকা" সহ মঞ্চ নাটকে অভিনয় করেছিলেন [১][২] । ১৯৬৩ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন। [৬]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

চৌধুরী রেডিও পাকিস্তান ঢাকায় খান আতাউর রহমান, গোলাম মোস্তফা, নুরুন্নাহার ফাইজনেসেসা, লিলি চৌধুরী এবং কাফি খানের মতো অভিনেতাদের সাথে রেডিও নাটকে অংশ নিয়েছিলেন। ১৯৬৪ সালে তিনি পূর্ব বাংলার প্রথম টেলিভিশন সংবাদ উপস্থাপকদের একজন [২] । ১৯৬০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়ে তিনি রাষ্ট্রীয় পরিচালিত বাংলাদেশ টেলিভিশনে (বিটিভি) বাংলা সংবাদ উপস্থাপন করেছিলেন [৪] । তিনি ১৯৭২ সালে ভয়েস অফ আমেরিকাতে নিউজ উপস্থাপক হিসাবে যোগদান করেছিলেন এবং ২০১০ সালে অবসর গ্রহণ করেছিলেন [১] । ২০০৬ সালে, তিনি ভিওএ-তে বাংলা টেলিভিশন পরিষেবা চালু করেন [২]

চৌধুরী কবিতা আবৃত্তির বেশ কয়েকটি অ্যালবাম প্রকাশ করেছিলেন। তিনি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকাজী নজরুল ইসলাম এর কবিতা আবৃত্তি করেন। তার মতে তার পিতামহ খান-বাহাদুর আবদুল আজিজ নামে একজন শিক্ষাবিদ কাজী নজরুল ইসলাম এর সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিলো। [৪]

চৌধুরী দুটি ডকুমেন্টারি ফিল্ম নির্মাণ করেছিলেন - একটি বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন এর উপর এবং অন্যটি তার মা আনোয়ারা বাহার চৌধুরী এর উপর। [২]

কাজসূমহ[সম্পাদনা]

  • প্রানের জয়বার্তা (২০১৫)[৪]
  • আনন্দলোকে: এসো নতুন পৃথীবি গড়ি (২০০৭)[৫]
  • শুধুই তোমার বাণী (১৯৮০)
  • সার্থক জনম আমার
  • জানিনা বাসুন্ধুরা[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Fayza Haq (জানুয়ারি ৭, ২০০৫)। "Iqbal Bahar Chowdhury : The resonance of a baritone"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৭, ২০১৬ 
  2. Md Shahnawaz Khan Chandan (মে ১, ২০১৫)। "The Voice of Bangladesh"The Daily Star 
  3. "ULAB screens documentary on Anwara Bahar Choudhury"The Daily Star। মার্চ ১৬, ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৭, ২০১৬ 
  4. "Iqbal Bahar Chowdhury's recitation evening today"The Daily Star। মে ৬, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৭, ২০১৬ 
  5. "The art of recitation: Then and now"The Daily Star। মার্চ ৩, ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৭, ২০১৬ 
  6. "Alumni Directory"। Dhaka University Alumni Association। মার্চ ২৬, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৭, ২০১৬ 
  7. "Where the poem ends and song begins"The Daily Star। ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৭, ২০১৬