অস্টিন কডরিংটন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অস্টিন কডরিংটন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামঅস্টিন কডরিংটন
জন্ম (1975-08-22) ২২ আগস্ট ১৯৭৫ (বয়স ৪৪)
পোর্টল্যান্ড, জামাইকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৭)
১১ ফেব্রুয়ারি ২০০৩ বনাম বাংলাদেশ
শেষ ওডিআই৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ বনাম কেনিয়া
ওডিআই শার্ট নং১৫
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০১/০২–২০০৭কানাডা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই এফসি এলএ আইসিসি
ম্যাচ সংখ্যা ২৪
রানের সংখ্যা ৪৭ ৯৬ ২৬৭ ৩৪
ব্যাটিং গড় ৫.৮৭ ১৬.০০ ১২.৭১ ১১.৩৩
১০০/৫০ –/– –/০ ০/০ –/–
সর্বোচ্চ রান ১৬ ৪৮ ৩৩ ১৩
বল করেছে ৩০০ ৪২০ ৯৩৪ ১২৬
উইকেট ১০ ২১
বোলিং গড় ২৬.৫০ ৪০.৬০ ৩৫.৩৮ ৪৮.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - - -
সেরা বোলিং ৫-২৭ ৫-২৭ ৫-২৭ ১/১৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ০/– ৬/– ০/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ১৯ নভেম্বর ২০০৭

অস্টিন কডরিংটন (জন্ম: ২২ আগস্ট, ১৯৭৫) জামাইকায় জন্মগ্রহণকারী বিশিষ্ট কানাডীয় ক্রিকেটার। কানাডা ক্রিকেট দলের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ বোলিংয়ের দায়িত্ব পালন করতেন। পাশাপাশি ফিল্ডিংয়েও চমৎকার দক্ষতা দেখিয়েছেন তিনি। এছাড়াও নিচের সারির ব্যাটসম্যান হিসেবেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

কানাডায় অণুষ্ঠিত ২০০১ সালের আইসিসি ট্রফিতে টরন্টোয় তিন খেলার সবকটিতেই অংশ নেন। কিন্তু, তিনি মাত্র দুই উইকেট পেয়েছিলেন। ২০০১-০২ মৌসুমে নামিবিয়ায় ৬ জাতি চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার পর সেন্ট লুসিয়ায় ২০০২-০৩ মৌসুমের রেড স্ট্রিপ বোলের পক্ষে খেলেন।

আগস্ট, ২০০৪ সালে আইসিসি আন্তর্মহাদেশীয় কাপে বারমুদার বিপক্ষে তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক হয়। ড্র হওয়া ঐ খেলায় তিনি তার একমাত্র ইনিংসে ৪৮ রান ও একটি উইকেট পান।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০০৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে কানাডা দলের সদস্য মনোনীত হন। ডারবানে বাংলাদেশের মুখোমুখি হয়। ১৬ রান করে দলকে ১৮০ নিয়ে যেতে সহায়তা করেন ও তৎকালীন সময়ে নিজেদের সর্বোচ্চ রান তুলে কানাডা দল। পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ে নেমে ১০৬/৪ করলেও তার অবিশ্বাস্য নৈপুণ্যে ১২০ রানে অল-আউট হয় বাংলাদেশ দল। তিনি নয় ওভারে ২৭ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট দখল করেন ও বিশ্বকাপে দলকে প্রথমবারের মতো জয়ে সহায়তা করেন।[১] এছাড়াও তার এ বোলিং পরিসংখ্যান ওডিআইয়ে কানাডার সেরা নৈপুণ্য।

২০০৫ সালের আইসিসি ট্রফি কিংবা আইসিসি আন্তর্মহাদেশীয় কাপে দলের সদস্য মনোনীত হননি। কিন্তু আগস্ট, ২০০৬ সালে বারমুদার বিপক্ষে ওডিআইয়ে কানাডা দলে পুণরায় অন্তর্ভুক্ত হন। এরপর আইসিসি আমেরিকাস চ্যাম্পিয়নশীপ প্রতিযোগিতায় খেলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Pool B - 2003 World Cup: Bangladesh v Canada"Wisden Cricketers' Almanack। reprinted by ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]