বিষয়বস্তুতে চলুন

অনুপম হাজরা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অনুপম হাজরা
সংসদ সদস্য, লোকসভা
কাজের মেয়াদ
২০১৪ – ২০১৯
পূর্বসূরীড.রাম চন্দ্র গম্বুজ
উত্তরসূরীঅসিত কুমার মাল
সংসদীয় এলাকাবোলপুর
ভারতীয় জনতা পার্টির জাতীয় সম্পাদক
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২০২০
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1982-05-30) ৩০ মে ১৯৮২ (বয়স ৪২)
রাজনৈতিক দলভারতীয় জনতা পার্টি
অন্যান্য
রাজনৈতিক দল
সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস (২০১৯ আগে)
প্রাক্তন শিক্ষার্থীআসাম বিশ্ববিদ্যালয় -(ডক্টরেট)
জীবিকাশিক্ষক

অনুপম হাজরা (জন্ম ৩০ মে ১৯৮২) হলেন একজন সমাজকর্ম শিক্ষাবিদ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একজন রাজনীতিবিদ। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজকর্মে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি আসাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রামীণ স্যানিটেশন বিষয়ে ডক্টরেট গবেষণা সম্পন্ন করেছেন। বর্তমানে তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির জাতীয় সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এবং তিনি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাবেক সংসদ সদস্য ছিলেন। [১]

জীবন এবং কাজ

[সম্পাদনা]

বর্তমানে তিনি পশ্চিমবঙ্গের শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। [২] [৩] তিনি বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে কাজ করেছেন। অনুপম হাজরা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় পত্রিকায় নিয়মিত লেখক। তার কিছু প্রবন্ধ হল "The Ignored Indians" (Man and Development 2009) "Tackling The Global Threat of Climate Change" (Journal of Social Welfare 2009), "Corption and Development: Exploring The Dynamics in Social Action" (2009), "An Analysis of Scarcity of Surcity in a Journal, and 2009-2009)।

তিনি কুরুক্ষেত্রের নিয়মিত লেখক এছাড়া তিনি গ্রামীণ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত একটি পল্লী উন্নয়ন পত্রিকায় শত শত নিবন্ধ প্রকাশ করেছেন। তিনি বেশ কয়েকটি ভারতীয় একাডেমিক প্রতিষ্ঠানের ভিজিটিং ফ্যাকাল্টি। অনুপম হাজরা পাবলিশিং ইন্ডিয়া গ্রুপ এর সম্পাদক।

রাজনৈতিক পেশা

[সম্পাদনা]

হাজরা বোলপুর কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস থেকে লোকসভার সংসদ সদস্য হিসাবে তার রাজনৈতিক জীবন শুরু করেছিলেন। [৪]

দলবিরোধী কার্যকলাপের জন্য ৯ জানুয়ারি হাজরাকে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বহিষ্কার করে। যাদবপুর লোকসভা আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য বিজেপি তাকে প্রার্থী করেছিল। তৃণমূল কংগ্রেসের মিমি চক্রবর্তী অনুপম হাজরাকে ২৯৫২৩৯ ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন। ২০২০ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর হাজরাকে বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসাবে নিযুক্ত করা হয়। [৫] [৬]

প্রকাশনা

[সম্পাদনা]
  1. হাজরা, এ (2009) 'জলবায়ু পরিবর্তনের গ্লোবাল থ্রেট মোকাবেলা', জার্নাল অফ সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার; ভলিউম 56, নং 3আইএসএসএন 0037-8038
  2. হাজরা, এ (2009) 'ডিসপ্লেসমেন্টস: অ্যান এমার্জিং গ্লোবাল কনসার্ন', কুরুক্ষেত্র, এ জার্নাল অফ রুরাল ডেভেলপমেন্ট ভলিউম। 57, নং 8আইএসএসএন 0023-5660
  3. হাজরা, এ (2009) 'সবার জন্য খাদ্য - এখনও একটি দূরবর্তী স্বপ্ন' কুরুক্ষেত্র, গ্রামীণ উন্নয়নের একটি জার্নাল খণ্ড। 57, নং 11আইএসএসএন 0023-5660
  4. হাজরা, এ (2009) 'ভারতে নারীর শিক্ষাগত অবস্থা', জার্নাল অফ সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার ভলিউম। 56, নং 6আইএসএসএন 0037-8038
  5. Hazra, A (2009) 'শিক্ষায় লিঙ্গ বৈষম্য' যোজনা, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রনালয় ভলিউম। 53আইএসএসএন 0971-8400
  6. Hazra, A (2009) 'The Ignored Indians' Man and Development Vol. 32, নং, 3আইএসএসএন 0258-0438
  7. হাজরা, এ (2009) 'দুর্নীতি ও উন্নয়ন: এক্সপ্লোরিং দ্য ডায়নামিক্স' সোশ্যাল অ্যাকশন ভলিউম। 59, নং 4আইএসএসএন 0037-7627
  8. হাজরা, এ (2010) 'ভারতে স্বাস্থ্যের অবস্থা বর্তমান পরিস্থিতি' কুরুক্ষেত্র, গ্রামীণ উন্নয়নের একটি জার্নাল ভলিউম। 58, নং 4।আইএসএসএন 0023-5660আইএসএসএন 0023-5660
  9. Hazra, A (2010) 'মানব জীবনের মূল্যে উন্নয়ন?' সোশ্যাল অ্যাকশন ভলিউম। 60, নং 2আইএসএসএন 0037-7627
  10. জার্নাল অন সোশ্যাল ইকোনমিক্স কনসোর্টিয়াম ফর টিচিং, রিসার্চ, লার্নিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, ইউএসএ স্প্রিং 2010 অ্যানালাইসিস অফ স্ক্যারসিটি ইন অ্যা অ্যানালাইসিস অফ অ্যা স্টেট অফ সার্প্লাস পৃষ্ঠা 37আইএসবিএন ০-৯৭০৩৭৯৭-৭-৩
  11. জার্নাল অন সোসিওলজি কনসোর্টিয়াম ফর টিচিং, রিসার্চ, লার্নিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, ইউএসএ স্প্রিং 2010, জেন্ডার বাজেটিং: দ্য ইমার্জিং ফ্রেমওয়ার্ক ফর রেইজিং উইমেন ভয়েস পৃষ্ঠা 99আইএসবিএন ০-৯৭০৩৭৯৭-৫-৭
  12. হাজরা, এ (2010) 'মাইগ্রেশন: স্টিল এ সারভাইভাল স্ট্র্যাটেজি ফর রুরাল ইন্ডিয়া' কুরুক্ষেত্র, গ্রামীণ উন্নয়নের একটি জার্নাল ভলিউম। 59, নং 2আইএসএসএন 0023-5660
  13. হাজরা, এ (2013) ' গ্রামীণ ভারত এবং উদীয়মান উন্নয়নমূলক চ্যালেঞ্জ ', মিত্তাল প্রকাশনা, নয়াদিল্লিআইএসবিএন ৮১৮৩২৪৪৬৬১
  14. হাজরা, এ (2014) ' উত্তর-পূর্ব ভারতে টেকসই উন্নয়ন: উদীয়মান সমস্যা, চ্যালেঞ্জ এবং নীতি ব্যবস্থা ', কনসেপ্ট পাবলিশিং প্রাইভেট লিমিটেড। লিমিটেড , নতুন দিল্লি

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. "Lok Sabha Official Website" 
  2. Loiwal, Manogya (জুন ২৭, ২০১৮)। "TMC MP wins lawsuit against Modi govt to keep university job"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-২৮ 
  3. "Visva-Bharati not letting me return despite court order, says Trinamool MP Anupam Hazra"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৬-৩০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-২৮ 
  4. Seetharaman, G.; Balasubramanyam, K. R.। "32 newly elected under-35 MPs & what they intend to do for their constituencies"The Economic Times। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-২৮ 
  5. Bhattacharya, Snigdhendu (২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০)। "What BJP's National Committee Rejig Means to Poll-Bound Bengal"The Wire। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-২৮ 
  6. Das, Madhuparna (২০২০-০৯-২৬)। "In Mukul Roy's elevation as BJP vice-president, a message for Trinamool turncoats"ThePrint (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-২৮ 

বহিসংযোগ

[সম্পাদনা]