হ্যাপি নিউ ইয়ার (২০১৪-এর চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হ্যাপি নিউ ইয়ার
পরিচালক ফারাহ খান
প্রযোজক গৌরি খান
রচয়িতা ফারাহ খান
বর্ণনাকারী ভিভান শাহ [১]
অভিনেতা দীপিকা পাড়ুকোন
শাহরুখ খান
অভিষেক বচ্চন
বোমান ইরানী
ভিভান শাহ
সনু সুড
সুরকার বিশাল শেখর
চিত্রগ্রাহক মানুষ নন্দন
সম্পাদক আনন্দ সুবায়া
স্টুডিও রেড চিলিস এন্টারটেইনমেন্ট
মুক্তি
দেশ ভারত
ভাষা হিন্দি

হ্যাপি নিউ ইয়ার ফারাহ খান পরিচালিত একটি অ্যাকশন-কমেডি চলচ্চিত্র২০১৪ সালে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে। রেড চিলিস এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারে গৌরি খান প্রযোজিত এই চলচ্চিত্রে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাহরুখ খান, দীপিকা পাড়ুকোন। এছাড়াও আছেন অভিষেক বচ্চন, বোমান ইরানী, সনু সুডভিভান শাহ

এটা ফারাহ খানের সাথে শাহরুখ খানের তৃতীয় চলচ্চিত্র হবে। এর আগে তারা ব্লকবাস্টার ম্যায় হুঁ না (২০০৪), ওম শান্তি ওম (২০০৭) দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। চলচ্চিত্রটির পোস্টার বোঝায় যে কোন কিছু চুরি করা নিয়ে এটির গল্প গড়ে উঠেছে, অর্থাৎ এটি একটি হেইস্ট চলচ্চিত্র (Heist Film)।[২]

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

বিশেষ আবির্ভাব[সম্পাদনা]

প্রযোজনা[সম্পাদনা]

২০০৫ সালে এই চলচ্চিত্রের কাজ শুরু হলেও ২০০৭ সালের ওম শান্তি ওম চলচ্চিত্রের কারণে এর কাজ বন্ধ রাখা হয়। ২০১০ সালের তিস মার খান চলচ্চিত্রের পর ফারাহ খান আবার এই চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করেন। অবশেষে অক্টোবর, ২০১২ সালে এই চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য লেখা শেষ হয়। পরিচালক চেয়েছিলেন এই চলচ্চিত্রে খানের বিপরীতে কোন প্রতিষ্ঠিত নায়িকা অভিনয় করুক, যেমন সোনাক্ষী সিনহা, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন, পরিণীতা চোপড়া এবং ক্যাটরিনা কাইফ। তবে শেষ পর্যন্ত দীপিকা পাড়ুকোনকেই বেছে নেয়া হয়। সেই ওম শান্তি ওম (২০০৭) ও চেন্নাই এক্সপ্রেস এর পর খানের সাথে তার তৃতীয় চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।[৩] নায়কের ভূমিকায় শাহরুখ খানই ছিলেন পরিচালকের প্রথম পছন্দ।[৪] নায়ক এই চলচ্চিত্রে একজন কন আর্টিস্ট এবং নায়িকা একজন মারাঠী নর্তক। এক পর্যায়ে জন আব্রাহামকে পার্শ্বীয় অভিনেতা হিসেবে ঠিক করা হয়েছিল কিন্তু সনু সিড তার স্থান নেয়।[৫] বোমান ইরানীকে পরিচালক এক সাক্ষাৎকারে তার ভূমিকার ব্যাপারে নিশ্চিত করেন। আগস্ট, ২০১৩ সালে জ্যাকি শ্রুফকে এই চলচ্চিত্রের খলনায়ক হিসেবে ঠিক করা হয়।[৬] পরিচালকের ভাই সাজ্জাদ খান ও অভিনেত্রী মালাইকা আরোরা খান এতে বিশেষ আবির্ভাব হিসেবে থাকবেন।[৭] ভিভান শাহ একজন কম্পিউটার হ্যাকার চরিত্রে অভিনয় করবেন এবং ছবির প্রথম অর্ধেকাংশ সম্পর্কে বলবেন। পরিচালক-অভিনেতা প্রভু দেবারও এই চলচ্চিত্রে বিশেষ আবির্ভাব রয়েছে।[৮]

২রা জানুয়ারি, ২০১৪ সালে এই ছবির ফার্স্ট লুক মুক্তি পায়। সেই দিনই একটি অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট খোলা হয় এবং বিভিন্ন হ্যাশট্যাগ চালু করা হয়।[৯]

নির্মান[সম্পাদনা]

১লা সেপ্টেম্বর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই চলচ্চিত্রের দৃশ্যধারণ শুরু হয়। ফারাহ খান টুইট করেন, "এবং উল্টোগণনা শুরু হল! হ্যাপি নিউ ইয়ার শ্যুটিং শুরু হবার ঠিক এক মাস আগে! সবচেয়ে ব্যস্ত, রোমাঞ্চকর, আবেগপ্রবণ এবং মজার সময়!" ("N the Countdown begins! Exactly 1 month before shoot starts for Happy New Year ! The most hectic, exhilirating, stressfully happy time!"[১০] দুবাইয়ে এই ছবির কাজ শুরু হয়।[১১] অ্যারাবিয়ান বিজনেস রিপোর্ট করে যে ছবির একটি বড় অংশ পাম আইল্যান্ডে ধারণ হবে,[১২] সমুদ্রতীরে তিনটি কৃত্রিম দ্বীপ[১৩]

সংগীত[সম্পাদনা]

বিশাল-শেখর এই চলচ্চিত্রের সংগীত পরিচালনা করবেন। বিখ্যাত গায়ক সুখবীর এতে একটি বিশেষ গান নির্মাণ করবেন। চলচ্চিত্রনির্মাতারা বলেন, এতে ইন্ডিয়াওয়ালে নামক একটি গান থাকবে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]