কিথ স্ট্যাকপোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Keith Stackpole থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কিথ স্ট্যাকপোল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামকিথ রেমন্ড স্ট্যাকপোল
জন্ম (1940-07-10) ১০ জুলাই ১৯৪০ (বয়স ৭৯)
কলিংউড, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ ব্রেক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৩৮)
২৬ জানুয়ারি ১৯৬৬ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২২ মার্চ ১৯৭৪ বনাম নিউজিল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ )
৫ জানুয়ারি ১৯৭১ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই৩১ মার্চ ১৯৭৪ বনাম নিউজিল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৫৯–১৯৭৪ভিক্টোরিয়া বুশর‌্যাঞ্জার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৪৩ ১৬৭ ১৬
রানের সংখ্যা ২,৮০৭ ২২৪ ১০,১০০ ৫২২
ব্যাটিং গড় ৩৭.৪২ ৩৭.৩৩ ৩৯.২৯ ৩৪.৮০
১০০/৫০ ৭/১৪ ০/৩ ২২/৫০ ০/৫
সর্বোচ্চ রান ২০৭ ৬১ ২০৭ ৬৯
বল করেছে ২,৩২১ ৭৭ ১৪,১০২ ২৪০
উইকেট ১৫ ১৪৮ ১০
বোলিং গড় ৬৬.৭৩ ১৮.০০ ৩৯.২৮ ১৭.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/৩৩ ৩/৪০ ৫/৩৮ ৩/১৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৪৭/– ১/– ১৬৬/– ৮/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ৯ জুলাই ২০১৮

কিথ রেমন্ড স্ট্যাকপোল (ইংরেজি: Keith Stackpole; জন্ম: ১০ জুলাই, ১৯৪০) কলিংউডে জন্মগ্রহণকারী সাবেক ও বিখ্যাত অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা। ১৯৬৬ থেকে ১৯৭৪ সময়কালে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে ভিক্টোরিয়ার প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যানের দায়িত্ব পালন করতেন। এছাড়াও, লেগ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শীতা দেখিয়েছেন কিথ স্ট্যাকপোল

দীর্ঘদেহী ও শক্তসমর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে কিথ স্ট্যাকপোল অনেকাংশে কলিন মিলবার্নের অনুরূপ ছিলেন। মাঠের সর্বত্র মারমূখী ভূমিকায় বলকে নিয়ে যেতে পারদর্শীতা দেখাতেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ৪৩ টেস্ট ও ৬টি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছেন তিনি। ১৯৬৫-৬৬ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাশেজ সিরিজের চতুর্থ টেস্টে অভিষেক ঘটে কিথ স্ট্যাকপোলের। ২৬ জানুয়ারি, ১৯৬৬ তারিখে অ্যাডিলেডে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টে জিম পার্কসের দূর্দান্ত ক্যাচ তালুবন্দী করেছিলেন তিনি। আট নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে তিনি ৪৩ রানের ইনিংস খেলেন। এছাড়াও, ইংরেজ অধিনায়ক এম. জে. কে. স্মিথ ও সহঃ অধিনায়ক কলিন কাউড্রেকে লেগ স্পিনে কাবু করেন। খেলায় তিনি তাঁর নিজস্ব সেরা ২/৩৩ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ইনিংস ব্যবধানে জয়ী হয়ে সিরিজে ১-১ সমতা আনে।

১৯৭০-৭১ মৌসুমে একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলেন। সফরকারী ইংরেজ দলের বিপক্ষে ৫২.২৫ গড়ে ৬২৭ রান তুলে অস্ট্রেলীয়দের প্রধান রান সংগ্রহকারীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। প্রথম টেস্টে ১৮ রান সংগ্রহকালে জিওফ বয়কটের বলে বোলিং প্রান্তে রান আউটের কবলে পড়লেও আম্পায়ার ল্যু রোয়ানের বদান্যতায় বেঁচে যান। পরদিন অস্ট্রেলীয় সংবাদপত্রে স্থিরচিত্রে দেখা যায় যে, তিনি পরিস্কার আউট। এ সিদ্ধান্তের বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম নোংরা ঘটনারূপে আখ্যায়িত করা হয়।[১] এর খেসারতস্বরূপ ইংল্যান্ড জয় পায়নি। স্ট্যাকপোল ২০৭ রান তুলে অস্ট্রেলিয়াকে ৪৩৩-এ নিয়ে যান। তাঁর এ রানটি ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিল। ষষ্ঠ টেস্টে ৪৬৯ রানের অসম্ভব জয়ের লক্ষ্যমাত্রায় অগ্রসর হয় অস্ট্রেলিয়া দল। স্ট্যাকপোল ১৬ বাউন্ডারি সহযোগে মূল্যবান ১৩৬ রানের ইনিংস খেলে দলকে বাঁচান। শেষদিন দ্বিতীয় উইকেটে ইয়ান চ্যাপেলের ১০৪ রানের সাথে এ জুটি ২০২ রান তুলে।

সপ্তম ও চূড়ান্ত টেস্টে ২২৩ রানের জয়ের লক্ষ্যমাত্রায় অ্যাশেজ বাঁচাতে অগ্রসর হয় অস্ট্রেলিয়া দল। স্ট্যাকপোল ২ ছক্কা ও ৬ চারের মারে ৬৭ রান তুলেন। কিন্তু অন্যান্যদের কাছ থেকে খুব কমই সহযোগিতা পান। ফলশ্রুতিতে তাঁর দল ১৬০ রানে অল-আউট হয়।

১৯৭২ সালে ইয়ান চ্যাপেলের নেতৃত্বাধীন অ্যাশেজ সফরে অস্ট্রেলিয়া দলের সহঃ অধিনায়ক ছিলেন তিনি। ঐ সিরিজে ৫২.৮৮ গড়ে ৪৮৫ রান তুলে উপর্যুপরী দ্বিতীয় সফরে অস্ট্রেলীয়দের মধ্যে শীর্ষে ছিলেন। ফলশ্রুতিতে, ১৯৭৩ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটার মনোনীত হন কিথ স্ট্যাকপোল।

অবসর[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসরগ্রহণের পর বেতারে ধারাভাষ্যকার কর্মে নিয়োজিত আছেন কিথ স্ট্যাকপোল। তাঁর বাবা কিথ সিনিয়র প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেছেন। এছাড়াও, অস্ট্রেলীয় রুলস ফুটবলে কলিংউড ও ফিটজরয়ের প্রতিনিধিত্ব করেছেন সিনিয়র।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. p98-99, John Snow, Cricket Rebel, Hamlyn, 1976

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


পূর্বসূরী
ইয়ান চ্যাপেল
ওডিআইয়ে অস্ট্রেলীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী
৬১ বনাম ইংল্যান্ড, বার্মিংহাম, ১৯৭২
উত্তরসূরী
ইয়ান চ্যাপেল