হ্যারি হাওয়েল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হ্যারি হাওয়েল
Harry Howell cricketer 1920.jpg
১৯২০ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে হ্যারি হাওয়েল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহেনরি হাওয়েল[১]
জন্ম(১৮৯০-১১-২৯)২৯ নভেম্বর ১৮৯০
হকলি, পশ্চিম মিডল্যান্ডস, ইংল্যান্ড
মৃত্যু৯ জুলাই ১৯৩২(1932-07-09) (বয়স ৪১)
সেলি ওক, ওয়ারউইকশায়ার, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৮৫)
৩১ ডিসেম্বর ১৯২০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১৬ আগস্ট ১৯২৪ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২২৭
রানের সংখ্যা ১৫ ১৬৭৯
ব্যাটিং গড় ৭.৫০ ৭.৮০
১০০/৫০ -/- ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩৬
বল করেছে ৯১৮ ৪৩১১২
উইকেট ৯৭৫
বোলিং গড় ৭৯.৮৫ ২১.২৩
ইনিংসে ৫ উইকেট ৭৫
ম্যাচে ১০ উইকেট ১৮
সেরা বোলিং ৪/১১৫ ১০/৫১
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ৬৭/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৮ জুন ২০১৯
ফুটবল খেলোয়াড়ি জীবন
মাঠে অবস্থান ইনসাইড ফরোয়ার্ড
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
সাল দল ম্যাচ (গোল)
বারস্লেম সুইফট
১৯১৩ - ১৯২০ উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স[১] ৩৮ (৬)
১৯২০ - ১৯২১ সাউদাম্পটন (০)
১৯২১ - ১৯২২ নর্থফ্লিট
১৯২২ - ১৯২৩ অ্যাক্রিংটন স্ট্যানলি (০)
ম্যান্সফিল্ড টাউন
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লীগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে

হেনরি হাওয়েল (ইংরেজি: Harry Howell; জন্ম: ২৯ নভেম্বর, ১৮৯০ - মৃত্যু: ৯ জুলাই, ১৯৩২) ওয়ারউইকশায়ারের বার্মিংহাম এলাকার হকলিতে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও ফুটবলার ছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯২০ থেকে ১৯২৪ সময়কালে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ওয়ারউইকশায়ার দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ফাস্ট বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে কার্যকরী ব্যাটিং করতেন হ্যারি হাওয়েল

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯১৩ থেকে ১৯২৮ সাল পর্যন্ত হ্যারি হাওয়েলের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ওয়ারউইকশায়ারের হকলি এলাকায় হ্যারি হাওয়েলের জন্ম। ডানহাতি ফাস্ট বোলার ও ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ারউইকশায়ারের পক্ষে কাউন্টি ক্রিকেটে অংশ নিতেন।[২]

১৯২২ সালে হ্যাম্পশায়ার দলকে মাত্র ১৫ রানে গুটিয়ে দিতে অবিশ্বাস্য ভূমিকায় রাখেন। ঐ ইনিংসে তিনি মাত্র সাত রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট লাভ করেন। ১৯২৩ মৌসুমে ১৫২ উইকেট পেয়েছিলেন। তন্মধ্যে, ওয়ারউইকশায়ারের প্রথম বোলার হিসেবে এক ইনিংসে দশ উইকেট পেয়েছিলেন।[৩]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে পাঁচটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করার সুযোগ হয়েছিল হ্যারি হাওয়েলের। ৩১ ডিসেম্বর, ১৯২০ তারিখে মেলবোর্নে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১৬ আগস্ট, ১৯২৪ তারিখে ওভালে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯২০-২১ মৌসুমে ইংরেজ দল অস্ট্রেলিয়া গমন করে। এমসিজিতে অ্যাশেজ সিরিজের খেলায় অংশ নেন। টেস্টগুলোয় অংশ নিয়ে সাতটি উইকেট দখল করতে সমর্থ হন।[২]

ফুটবলে অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

ক্রিকেটের পাশাপাশি ফুটবল খেলায়ও সিদ্ধহস্তের অধিকারী ছিলেন হ্যারি হাওয়েল। উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স, স্টোক, পোর্ট ভেল, সাউদাম্পটন, নর্থফ্লিট, অ্যাক্রিংটন স্ট্যানলি ও ম্যান্সফিল্ড টাউনের পক্ষে পেশাদারী পর্যায়ের ফুটবল খেলায় অংশ নিয়েছেন তিনি।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন বারস্লেম সুইফটস ও উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সের পক্ষে ফুটবল খেলায় অংশ নিয়েছেন। এছাড়াও, স্টোক ও পোর্ট ভ্যালের পক্ষে অতিথি খেলোয়াড় হিসেবে অংশ নিতেন।[৪] স্টোকসের সদস্য থাকাকালে ১৯১৬-১৭ ও ১৯১৭-১৮ মৌসুমে ৫৭ খেলায় অংশ নিয়ে ৪২ গোল করেন।[৫] ৯ এপ্রিল, ১৯১৭ তারিখে ভিক্টোরিয়া গ্রাউন্ডে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে হ্যাট্রিক করেন। ঐ খেলায় তার দল ৫-০ গোলে জয় পায়। এরপর ১৬ মার্চ, ১৯১৮ তারিখে আবারো হ্যাট্রিক কর্ম সম্পন্ন করেন। বার্নলির বিপক্ষে খেলায় তার দল ৯-০ গোলে জয়লাভ করে। অতিথি খেলোয়াড় হওয়া সত্ত্বেও পোর্ট ভ্যালের পক্ষে সর্বোচ্চ গোলকারীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। ১৯১৮-১৯ মৌসুমে এগারো খেলায় অংশ নিয়ে নয় গোল করেছিলেন তিনি।[৪]

১৯১৯ সালের গ্রীষ্মে ওল্ভসে ফিরে আসেন ও পরবর্তীতে সাউদাম্পটনের পক্ষে খেলার জন্যে চুক্তিবদ্ধ হন। তবে, একাদশ দলের পক্ষে কোন খেলায় অংশ নিতে পারেননি। ফুটবল লীগে ওল্ভসের পক্ষে সর্বমোট ৩৮টি ও অ্যাক্রিংটন স্ট্যানলির পক্ষে তিনটি খেলায় অংশ নেন।[১]

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

উৎস:[৬]

ক্লাব মৌসুম বিভাগ লীগ এফএ কাপ সর্বমোট
অংশগ্রহণ গোল অংশগ্রহণ গোল অংশগ্রহণ গোল
উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স ১৯১৩-১৪ দ্বিতীয় বিভাগ ১৫ ১৮
১৯১৪-১৫ দ্বিতীয় বিভাগ ১২ ১২
১৯১৯-২০ দ্বিতীয় বিভাগ ১১ ১১
সর্বমোট ৩৮ ৪১
সাউদাম্পটন ১৯২০-১৯২১ তৃতীয় বিভাগ দক্ষিণ
অ্যাক্রিংটন স্ট্যানলি ১৯২২-২৩ তৃতীয় বিভাগ দক্ষিণ
খেলোয়াড়ী জীবনের সর্বমোট ৪১ ৪৪

দেহাবসান[সম্পাদনা]

৯ জুলাই, ১৯৩২ তারিখে ৪১ বছর বয়সে বার্মিংহামের সেলি ওক এলাকায় হ্যারি হাওয়েলের দেহাবসান ঘটে। তার কনিষ্ঠ ভ্রাতা আলবার্ট হাওয়েল ১৯১৯ থেকে ১৯২২ সময়কালে ওয়ারউইকশায়ারের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Joyce, Michael (২০০৪)। Football League Players' Records 1888 to 1939। Soccerdata। আইএসবিএন 1-899468-67-6 
  2. Harry Howell stats at cricinfo
  3. "Poacher-turned-gamekeeper"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০১৮ 
  4. Kent, Jeff (১৯৯৬)। Port Vale Personalities। Witan Books। পৃষ্ঠা 144। আইএসবিএন 0-9529152-0-0 
  5. Matthews, Tony (১৯৯৪)। The Encyclopaedia of Stoke City। Lion Press। আইএসবিএন 0-9524151-0-0 
  6. হ্যারি হাওয়েল at the English National Football Archive (সদস্যতা প্রয়োজনীয়)

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]