হান নদী (কোরিয়া)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হান নদী (한강)
নদী
হ্যাং রেল সেতু হান অতিক্রম করে।
হ্যাং রেল সেতু হান অতিক্রম করে।
আদি নাম: বেয়েক হানজা,
"হানসু" (漢水) [ক][১]
দেশসমূহ দক্ষিণ কোরিয়া(কেওআর), উত্তর কোরিয়া(পিআরকে)
Provinces গঙ্গওয়ান (কেওআর), গ্যেঙী (কেওআর), সিউল (কেওআর), উত্তর হাওয়াঙ্গে (পিআরকে)
উপনদী
 - বাঁদিকে ডালছেণ, চেংমাইছেন, বখেছেণ, গ্যাঙ্গনছেন, অন্যাঙচেঙ, আরা খাল
 - ডানদিকে সওম নদী, বুখান নদী, জুনগ্নাংছেণ, গোঙ্গনিউংছেণ, রিমজিন নদী
উত্স তেঁবেক পর্বতমালা
 - অবস্থান জুমদায় পিক, তেঁবেক, গঙ্গওয়ান, দক্ষিণ কোরিয়া [খ][৩]
মোহনা পীতসাগর
 - অবস্থান কোর-পিআরকে সীমান্তের জিম্পো উপদ্বীপ এর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় টিপ,[২]
দৈর্ঘ্য ৪৯৪ কিলোমিটার (৩০৭ মাইল) [৪]
অববাহিকা ৩৫,৭৭০ বর্গকিলোমিটার (১৩,৮১১ বর্গমাইল) [৪]
প্রবাহ for হ্যাং সেতু, সিওল
 - গড় ৬১৩ /s (২১,৬৪৮ ft³/s) [গ][৫]
হান নদী ব্যবস্থা
হান নদী ব্যবস্থা
† : Distributary of Han
Han river
হাঙ্গুল
হাঞ্জা
সংশোধিত রোমানীকরণHan(-)gang
ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়াHan'gang

হান নদী বা হ্যাং (কোরীয় উচ্চারণ: [ha(ː)n.ɡaŋ])[ঘ] দক্ষিণ কোরিয়ার একটি প্রধান নদী এবং আমনক (ইয়ালু), তুমান (তুমান) এবং নকডং নদীর পরে কোরিয়া উপদ্বীপের চতুর্থ বৃহত্তম নদী।[৭] নদীটি কোরিয়া উপদ্বীপের পূর্ব পাহাড়ে দুটি ছোট নদী হিসেবে শুরু হয় এবং দেশের রাজধানী সিউলের কাছে একত্রিত হয়।

হান নদী এবং এর পার্শ্ববর্তী এলাকাটি কোরিয়ার ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। কোরিয়ার তিন সাম্রাজ্য এই ভূমি নিয়ন্ত্রণের জন্য প্ররোচিত হয়েছিল, যেখানে এই নদীটি চীনের সঙ্গে বাণিজ্য পথ (হলুদ সাগরের মাধ্যমে) হিসাবে ব্যবহৃত হয়েছিল।[৮] যাহোক, নদীটি এখন আর সক্রিয়ভাবে নৌচলাচলের জন্য ব্যবহার করা হয় না, কারণ এর মোহনা দুই কোরিয়ার সীমান্তে অবস্থিত এবং স্থানটিতে যেকোনো বেসামরিক নাগরিকের প্রবেশ নিষিদ্ধ।

নদীটি ১২ মিলিয়ন কোরিয়দের জন্য জলের একটি উৎস হিসেবে কাজ করে। ২০০০ সালের জুলাই মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী নদীতে বিষাক্ত রাসায়নিক দ্রব্য ফেলের কথা স্বীকার করেছিল এবং এর ফলে বিক্ষোভ সংঘটিত হয়েছিল।[৯]

বর্তমানে, হান নদীটির নিম্নপ্রবাহে পথচারীর জন্য হাঁটা পথ, সাইকেল পথ, সরকারি উদ্যান এবং পানশালার বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে। ৮০০ জন বাসিন্দা এবং ১০৩ জন শহুরে পরিকল্পনা ও স্থাপত্য বিশেষজ্ঞদের নিয়ে সিউল ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউটের দ্বারা পরিচালিত ২০১১ সালের জরিপে ৫১.৩ শতাংশ বাসিন্দারা এবং ৬৮.৯ শতাংশ বিশেষজ্ঞরা নামসান পর্বতের পরে শহরটির দ্বিতীয় সবচেয়ে সুন্দর স্থান হিসেবে হান নদীকে ভোট দিয়েছেন।[১০]

ভূগোল[সম্পাদনা]

হান নদীটি নামহান নদী (দক্ষিণ হান নদী)-এর সমাহার দ্বারা গঠিত, যা ডেডিয়োক পর্বত থেকে উৎপন্ন হয় এবং উত্তর কোরিয়ার কুমগাং পর্বতের ঢালগুলোতে উদ্ভূত বুখান নদী (উত্তর হান নদী)। নদীটি সিউলের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয় এবং তারপরে এটি হলুদ সাগরে প্রবাহিত হওয়ার পূর্বে রিজজিন নদীর সঙ্গে মিলিতভাবে প্রবাহিত হয়। নদীর দুটি প্রধান শাখা, নামহান নদী এবং বুখান নদী গায়ংগি প্রদেশের ইয়াংপাইং নামক স্থানে মিলিত হয়[১১] এবং নদীটি হান নদী হিসেবে পরিচিত হয়। এরপর এটি সিউলের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয় এবং হলুদ সাগরে পতিত যায়।[১২] বৃহৎ জোয়ারের স্থান হান নদীর মুখে পাওয়া যায়, যেখানে নদীটি দক্ষিণ ও উত্তর কোরিয়াকে বিভক্তকারী কোরীয় অসামরিকীকৃত অঞ্চল বরাবর সমুদ্রের সাথে মিলিত হয়।[১৩]

হান নদীর মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ৪৯৪ কিলোমিটার (৩০৭ মাইল)।[৪][১৪]

নোট[সম্পাদনা]

  1. Presumed to be a tranliterated form of ancient Korean, "Hangaram" [the big river ; 한가람]
  2. Geumdae Peak (1,418.1m, হাঙ্গুল: 금대봉; হানজা: 金臺峰; RR: Geumdaebong)
  3. Discharge average from 2004 to 2013.
  4. In the 19th century, the Han was also known in English sources as the Hang River or Hang Kang.[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. 2013년 한국하천일람 [List of Rivers of South Korea, 2013] (PDF) (Korean ভাষায়)। Han River Flood Control Office, Republic of Korea। ৩১ ডিসেম্বর ২০১২। পৃষ্ঠা 23–24। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০১৪  |প্রকাশক= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  2. HRFCO 2012 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে, pp. 82-83.
  3. HRFCO 2012 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে, pp. 25, 28.
  4. HRFCO 2012 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে, pp. 22, 25, 33, 82-83.
  5. 2014년 1월 월간 수자원 현황 및 전망 [Monthly Status & Predictions Report on Water Resources, January 2014] (Korean ভাষায়)। Han River Flood Control Office, Republic of Korea। ১৩ জানুয়ারি ২০১৪। পৃষ্ঠা 3। ১৫ জুলাই ২০১৪ তারিখে মূল (HWP) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০১৪  |প্রকাশক= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  6. EB (1878), p. 390.
  7. Shin, Jung-il, "Historic River Flowing through the Korean Peninsula." Koreana (Summer, 2004), 6.
  8. "The Chinese Market Economy, 1000–1500" 
  9. "U.S. Dumping Of Chemical Riles Koreans" 
  10. "Mt. Nam Picked as Seoul's No. 1 Scenic Attraction"Chosun Ilbo। ২৮ এপ্রিল ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১২ 
  11. "Water, nature and people" 
  12. "Hangang River Cruise And Other Ways To Enjoy The Han River Seoul" 
  13. Kim Jae-il, "Preservation of the Hangang's Ecology", Koreana 18:2 (Summer 2004).
  14. "Han River" 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]