কোরীয় ভাষার সংশোধিত রোমানীকরণ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

কোরীয় ভাষার সংশোধিত রোমানীকরণ (হাঙ্গুল: 국어의 로마자 표기법; আরআর: Gug-eoui Romaja Pyogibeop) দক্ষিণ কোরিয়ায় ব্যবহৃত আনুষ্ঠানিক কোরীয় ভাষার রোমানীকরণ পদ্ধতি। ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব কোরিয়ান ল্যাংগুয়েজ ১৯৯৫ সাল থেকে কাজ শুরু করে এটি উদ্ভাবন করে। ৭ জুলাই ২০০০ তারিখে দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্কৃতি ও পর্যটন মন্ত্রণালয় ২০০০-৮ নং ঘোষণার মাধ্যমে এটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে।[১]

নতুন পদ্ধতিটি ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতিতে বিদ্যমান কিছু সমস্যার সমাধান করে। যেমন, ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতিতে কিছু বিশেষ চিহ্নের অনুপস্থিতিতে বিভিন্ন ব্যঞ্জনবর্ণ এবং স্বরবর্ণ আলাদা করা অসম্ভব হয়ে পড়ে। সুনির্দিষ্টভাবে বলতে গেলে, ম্যাক্কিউন–রাইশাওয়া পদ্ধতিতে, লোপ চিহ্ন সরানো হলে কোরীয় ব্যঞ্জনবর্ণ  (k),  (t),  (p) ও  (ch) এবং  (kʼ),  (tʼ),  (pʼ) (chʼ) এর মধ্যে পার্থক্য করা অসম্ভব হয়ে পড়ে। উপরন্তু, ব্রিভ চিহ্ন অপসারণ করা হলে কোরীয় স্বরবর্ণ  (ŏ) (o) এবং  (ŭ) (u) এর মধ্যে পার্থক্য করা যায় না। বিশেষত ইন্টারনেট ব্যবহারকালে; যেখানে লোপ ও ব্রিভ চিহ্ন বাদ দেওয়া সাধারণ ঘটনা, সেখানে এটি কোরিয়ানদের পাশাপাশি বিদেশীদেরও বিভ্রান্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই সংশোধনটি এই বিশ্বাসে করা হয় যে যদি ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতি অসংশোধিত রাখা হয়, তবে এটি কোরিয়ান এবং বিদেশী উভয় ধরনের মানুষকেই বিভ্রান্ত করতে থাকবে।

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

কোরীয় ভাষার সংশোধিত রোমানীকরণ
হাঙ্গুল국어 로마자 표기
হাঞ্জা國語의 로마 表記
সংশোধিত রোমানীকরণgugeoui romaja pyogibeop
ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়াkugŏŭi romacha pʼyogibŏp

সংশোধিত রোমানীকরণ পদ্ধতির উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্যসমূহ:

  • মহাপ্রাণ ধ্বনি লেখার জন্য এক নতুন পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়। অল্পপ্রাণ ধ্বনি যথাক্রমে ⟨g⟩ ⟨d⟩ ⟨b⟩ ⟨j⟩ দিয়ে এবং মহাপ্রাণ ধ্বনি যথাক্রমে ⟨k⟩ ⟨t⟩ ⟨p⟩ ⟨ch⟩ দিয়ে লেখা হয়। শব্দের শুরুতে ইংরেজি ভাষায়ও এদের মধ্যে অল্পপ্রাণ-মহাপ্রাণ পার্থক্য রয়েছে (একইসাথে তাদের মধ্যে অঘোষ-ঘোষ পার্থক্য রয়েছে, যেটি কোরীয় ভাষায় নেই); এধরণের পদ্ধতি ফিনিনেও ব্যবহৃত হয়। অন্যদিকে ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতি অল্পপ্রাণ ও মহাপ্রাণ দুই ক্ষেত্রেই ⟨k⟩ ⟨t⟩ ⟨p⟩ ⟨ch⟩ ব্যবহার করে, শুধু মহাপ্রাণতা বোঝাতে একটি অতিরিক্ত ইলেক বা লোপ চিহ্ন ব্যবহার করে (⟨kʼ⟩ ⟨tʼ⟩ ⟨pʼ⟩ ⟨chʼ⟩)। (ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতিতে অঘোষ-ঘোষ পার্থক্য করা হয়, যা সংশোধিত রোমানীকরণে করা হয় না।)
    • যাইহোক, সবসময় ⟨g⟩ ⟨d⟩ ⟨b⟩ ⟨j⟩ দিয়ে লেখা হয় না। পরিবেশভেদে এর ব্যতিক্রম ঘটে। উদাহরণস্বরূপ, শব্দের শেষে এদের ⟨k⟩ ⟨t⟩ ⟨p⟩ ⟨ch⟩ দিয়ে লেখা হয়, কারণ তখন এরা প্রায় অনুচ্চারিত থাকে: [pjʌk̚]byeok, [pak̚]bak, 부엌 [pu.ʌk̚]bueok, 벽에 [pjʌ.ɡe̞]byeoge, 밖에 [pa.k͈e̞]bakke, 부엌에 [pu.ʌ.kʰe̞]bueoke, [kʰʌp̚] → keop.
  • স্বরধ্বনি যথাক্রমে ⟨eo⟩ ও ⟨eu⟩ দিয়ে লেখা হয়, ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতিতে যা ছিলো ⟨ŏ⟩ ও ⟨ŭ⟩।
    • যাইহোক, /wʌ/ ⟨wo⟩ দিয়ে (⟨weo⟩ নয়) এবং /ɰi/ ⟨ui⟩ দিয়ে (⟨eui⟩ নয়) লেখা হয়।
  • ㅅ সাধারণত পরিবেশভেদে sh ও s দিয়ে লেখা হতো। এখন এটি সবক্ষেত্রেই s দিয়ে লেখা হয়।
    • পরের স্বরধ্বনি বা অর্ধস্বর যা-ই হোক না কেন /s/ সবক্ষেত্রেই এখন ⟨s⟩ দিয়ে লেখা হয়; ⟨sh⟩ কোথায়ও ব্যবহৃত হয় না: [sa]sa, [ɕi]si.
    • পরে ব্যঞ্জন থাকলে কিংবা শব্দান্তে এটি ⟨t⟩ হিসেবে লেখা হয়: [ot̚]ot (কিন্তু 옷에 [o.se̞]ose).
  • স্বরধ্বনি ও অর্ধস্বরের পূর্বে /l/, ⟨r⟩ দিয়ে এবং বাকি সব ক্ষেত্রে ⟨l⟩ দিয়ে লেখা হয়: 리을 [ɾi.ɯl]rieul, 철원 [tɕʰʌ.ɾwʌn]Cheorwon, 울릉도 [ul.lɯŋ.do]Ulleungdo, 발해 [pal.ɦɛ̝]Balhae.

ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতির মতোই, /n/, ⟨l⟩ দিয়ে লেখা হয়, যখন এটি নাসিক্যধ্বনির পরিবর্তে পার্শ্বিকধ্বনি হিসেবে উচ্চারিত হয়: 전라북도 [tɕʌl.la.buk̚.do]Jeollabuk-do

এছাড়া, প্রতিবর্ণীকরণ ব্যতিরেকে নিয়মিত ধ্বনিতাত্ত্বিক নিয়মের জন্য বিশেষ পদ্ধতি রয়েছে (দেখুন কোরীয় ভাষার ধ্বনিতত্ত্ব)

অন্যান্য নিয়ম ও প্রস্তাবনার মধ্যে রয়েছে:

  • কোন কোন ক্ষেত্রে অক্ষর আলাদা করার জন্য হাইফেন ব্যবহৃত হয়: 가을ga-eul (হেমন্ত) ও 개울gae-ul (ঝর্ণা). যাইহোক, অল্প কিছু প্রকাশনায় এ বিধান অনুসৃত হয় যেহেতু নামের ক্ষেত্রে এ ধরনের দ্ব্যর্থতা বিরল।
    • ভাষাতাত্ত্বিক প্রতিবর্ণীকরণের ক্ষেত্রে অবশ্যই হাইফেন থাকতে হবে, যাতে শব্দের শুরু ছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে অক্ষর শুরুর ধারক আলাদা করা যায়: 없었습니다eobs-eoss-seumnida, 외국어oegug-eo, 애오개Ae-ogae
  • প্রচলিত পদ্ধতিতে কোরীয় প্রদত্ত নামে অক্ষর আলাদা করার জন্য হাইফেনের ব্যবহার অনুমোদিত। অন্যান্য ক্ষেত্রে অনুসৃত কিছু ধ্বনিতাত্ত্বিক পরিবর্তন এক্ষেত্রে উপেক্ষিত হয়,যাতে নামের মধ্যে সুস্পষ্ট পার্থক্য রক্ষিত হয়: 강홍립Gang Hongrip অথবা Gang Hong-rip (*Hongnip নয়), 한복남Han Boknam অথবা Han Bok-nam (*Bongnam অথবা "Bong-nam" নয়)
  • প্রশাসনিক শব্দাংশ (যেমন do) আসল নাম থেকে আলাদা করার জন্য হাইফেন ব্যবহৃত হয়: 강원도Gangwon-do
    • কেউ কেউ 시, 군, 읍 এর মতো শব্দাংশ বাদ দিতে পারে: 평창군Pyeongchang-gun অথবা Pyeongchang, 평창읍Pyeongchang-eup অথবা Pyeongchang.
  • যাইহোক, ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্য ও কৃত্রিম অবকাঠামোর ক্ষেত্রে হাইফেন ব্যবহৃত হয় না : 설악산Seoraksan, 해인사Haeinsa
  • নামবাচক বিশেষ্য বড় হাতের হরফে লেখা হয়।

ব্যবহার[সম্পাদনা]

দক্ষিণ কোরিয়ায়[সম্পাদনা]

পুছনে একটি রেলওয়ে স্টেশনের নামফলক — উপরে হাঙ্গুল লিপিতে, নিচে সংশোধিত রোমানীকরণ অনুসারে লাতিন লিপিতে এবং একইসাথে হাঞ্জা অক্ষরে
চেছনে একটি রেলওয়ে স্টেশনের নামফলক — উপরে হাঙ্গুল লিপিতে, নিচে সংশোধিত রোমানীকরণ অনুসারে লাতিন লিপিতে এবং হাঞ্জা অক্ষরে

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রায় সব সড়কচিহ্ন, লাইন মানচিত্র ও চিহ্নে ব্যবহৃত রেলওয়ে ও সাবওয়ে স্টেশনের নাম সংশোধিত রোমানীকরণ পদ্ধতি (আরআর পদ্ধতি, দক্ষিণ কোরিয়ান পদ্ধতি অথবা সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ২০০০ পদ্ধতি নামেও পরিচিত) অনুসারে পরিবর্তন করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়া বাস্তবায়নে অনুমিত ব্যয় কমপক্ষে ৫০০ থেকে ৬০০ বিলিয়ন ওন (৫০০~৬০০ মার্কিন ডলার)।[২] সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের সাথে জড়িত সমস্ত কোরীয় পাঠ্যবই, মানচিত্র ও চিহ্ন ২০০২ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নতুন পদ্ধতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ করার প্রয়োজন হয়। নিম্নে উল্লিখিত কারণে পদবি ও বিদ্যমান কোম্পানির নাম এ প্রক্রিয়ার বাইরে রাখা হয়েছিল। তবে, নতুন নামের ক্ষেত্রে কোরীয় সরকার সংশোধিত রোমানীকরণ পদ্ধতি অনুসরণ করতে উৎসাহিত করে।

ব্যতিক্রম[সম্পাদনা]

বানান সংশোধন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাওয়া বেশকিছু ইউরোপীয় ভাষার মতোই (যেমন, পর্তুগিজ, জার্মান, সুইডিশ) সংশোধিত রোমানীকরণ পদ্ধতি কোরীয় পারিবারিক নামের (পদবি) রোমানীকরণে ব্যবহৃত হওয়াটা প্রত্যাশা করা যায় না। কারণ পাসপোর্টে পদবির রোমানীকরণে পরিবর্তনের অনুমতি প্রদানের শর্ত বেশ কড়া। এর কারণ নিম্নরূপ।

১. বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশ তাদের জনজীবনের জন্য হুমকিস্বরূপ বিদেশি নাগরিকদের (আন্তর্জাতিক অপরাধী ও অবৈধ প্রবেশকারী) নাম তাদের অতীতে ব্যবহৃত পাসপোর্টের রোমান নাম ও জন্মতারিখ দিয়ে সংরক্ষণ করে রাখে। পাসপোর্টধারীদের ইচ্ছেমতো নাম পরিবর্তনের সুযোগ দিলে তা পরিচিতি নির্ধারণে সমস্যা তৈরির মাধ্যমে সীমানা ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে ব্যাপক ঝুঁকি তৈরি করবে।

২. নাম পরিবর্তনের সুযোগ থাকা দেশের যাত্রীদের কড়া পরীক্ষা-নিরীক্ষা ব্যবস্থার মুখোমুখি হতে হবে, যা অবধারিতভাবে উক্ত দেশের সাধারণ যাত্রীদের ভোগান্তির কারণ হবে।

৩. পাসপোর্টের রোমানীকরণে নির্বিচার পরিবর্তনের সুযোগ পাসপোর্টের বিশ্বাসযোগ্যতা ও জাতীয় গ্রহণযোগ্যতা কমে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি করতে পারে, যা ভিসা মওকুফ চুক্তি ইত্যাদির উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে।

খুবই সামান্য কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া একজন ব্যক্তির পক্ষে, যে একবার তার রোমানীকৃত নামের অধীনে দেশত্যাগ করেছে, তার পদবি পুনরায় পরিবর্তন করা অসম্ভব।[৩] তবে যারা নতুনভাবে রোমানীকৃত নাম নিবন্ধন করছে, দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্কৃতি, ক্রীড়া ও পর্যটন মন্ত্রনালয় তাদের সংশোধিত রোমানীকরণ পদ্ধতি অনুসরণ করতে উৎসাহিত করে। এছাড়া, উত্তর কোরিয়া ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়া পদ্ধতির এক রূপ এখনো ব্যবহার করে থাকে, যা দক্ষিণ কোরিয়ায় ১৯৮৪ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ব্যবহৃত হতো।

কোরিয়ার বাইরে[সম্পাদনা]

কোরীয় ভাষার শিক্ষার্থীদের জন্য রচিত পাঠ্যবই ও অভিধানে এই রোমানীকরণ পদ্ধতি অন্তর্ভুক্ত করার প্রবণতা রয়েছে। তবে কিছু প্রকাশক স্বীকার করেন যে অ-স্থানীয় কোরীয়ভাষী, যারা এ শৈলীর মূলসূত্রগুলোর সাথে পরিচিত নয় তাদের জন্য এটি জটিল ও বিভ্রান্তিকর হতে পারে।[৪]

প্রতিলিপি নিয়ম[সম্পাদনা]

স্বরবর্ণ[সম্পাদনা]

হাঙ্গুল
রোমানীকরণ a ae ya yae eo e yeo ye o wa wae oe yo u wo we wi yu eu ui i

ব্যঞ্জনবর্ণ[সম্পাদনা]

হাঙ্গুল
রোমানীকরণ প্রারম্ভিক g kk n d tt r m b pp s ss j jj ch k t p h
অন্তিম k k t l p t t ng t t t

, , -কে যথাক্রমে g, d, br হিসেবে প্রতিবর্ণীকরণ করা হয় যখন এরা শব্দের শুরুতে বা স্বরবর্ণের পূর্বে বসে এবং k, t, pl হিসেবে প্রতিবর্ণীকরণ করা হয় যখন শব্দের শেষে বা ব্যঞ্জনবর্ণের পূর্বে বসে।[৫]

বিশেষ বিধান[সম্পাদনা]

সংশোধিত রোমানীকরণ পদ্ধতিতে পূর্ববর্তী অক্ষরের অন্তিম ব্যঞ্জন ও পরবর্তী অক্ষরের প্রারম্ভিক ব্যঞ্জনের মিথস্ক্রিয়ায় সংঘটিত কিছু ধ্বনিতাত্ত্বিক পরিবর্তন প্রতিলিপি করা হয়। যেমন, HangukHangugeo

উল্লেখযোগ্য এ পরিবর্তনসমূহ ঘটে (হলুদ রঙে চিহ্নিত):

পরবর্তী অক্ষরের
প্রারম্ভিক ব্যঞ্জন
পূর্ববর্তী অক্ষরের
অন্তিম ব্যঞ্জন
g n d r m b s j ch k t p h
k g kg ngn kd ngn ngm kb ks kj kch k-k kt kp kh, k
n n n-g nn nd ll nm nb ns nj nch nk nt np nh
t d, j tg nn td nn nm tb ts tj tch tk t-t tp th, t, ch
l r lg ln ld ll lm lb ls lj lch lk lt lp lh
m m mg mn md mn mm mb ms mj mch mk mt mp mh
p b pg mn pd mn mm pb ps pj pch pk pt p-p ph, p
t s tg nn td nn nm tb ts tj tch tk t-t tp th, t, ch
ng ng- ngg ngn ngd ngn ngm ngb ngs ngj ngch ngk ngt ngp ngh
t j tg nn td nn nm tb ts tj tch tk t-t tp th, t, ch
t ch tg nn td nn nm tb ts tj tch tk t-t tp th, t, ch
t t, ch tg nn td nn nm tb ts tj tch tk t-t tp th, t, ch
t h k nn t nn nm p hs ch tch tk t tp t

প্রদত্ত নামের ক্ষেত্রে সংঘটিত ধ্বনিতাত্ত্বিক পরিবর্তন প্রতিলিপি করা হয়না: 정석민Jeong Seokmin বা Jeong Seok-min, 최빛나Choe Bitna বা Choe Bit-na

, , এর সাথে বসলে সংঘটিত ধ্বনিতাত্ত্বিক পরিবর্তন প্রতিলিপি করা হয়: 좋고joko, 놓다nota, 잡혀japyeo, 낳지 → nachi

তবে বিশেষ্যপদে , -এর পরে থাকলে সংঘটিত মহাপ্রাণ ধ্বনি প্রতিলিপিতে প্রকাশ করা হয়না: 묵호Mukho, 집현전Jiphyeonjeon.[৫]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

  • কোরীয় ভাষার রোমানীকরণ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Romanization of Korean"Korea.net। Ministry of Culture & Tourism। জুলাই ২০০০। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০০৭ 
  2. "2005년까지 연차적으로 도로표지판을 바꾸는 데 5000억~6000억원이 들고"। Monthly Chosun ilbo। ২০০০-০৯-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২২ 
  3. "로마자성명 표기 변경 허용 요건"। Ministry of Foreign Affairs। ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১৭ 
  4. Tuttle Publishing: "In addition, easy-to-use phonetic spellings of all Korean words and phrases are given. For example, “How are you?”—annyeonghaseyo? is also written as anh-nyawng-hah-seyo?", blurb for two Korean phrasebooks: Making Out in Korean আইএসবিএন ৯৭৮০৮০৪৮৪৩৫৪৬ and More Making Out in Korean ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৬-০৩-০৬ তারিখে আইএসবিএন ৯৭৮০৮০৪৮৩৮৪৯৮. All accessed 2 March 2016.
  5. "Romanization of Korean"National Institute of Korean Language। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]