কোরীয় অসামরিকীকৃত অঞ্চল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

টেমপ্লেট:'''কোরীয় অসামরিকীকৃত অঞ্চল'''

ডিএমজেড র মধ্যে একটি দক্ষিণ কোরিয়ার চেকপয়েন্ট, উত্তর কোরিয়ার দিক থেকে দেখা

কোরিয়ান ডেমিলিটারাইজড জোন(ডিএমজেড;হান্‌গেউল্한반도 비무장지대;হাঞ্জা韓半島非武裝地帶) একটি অত্যন্ত মিলিতারিযেদ এলাকা চলমান কোরীয় উপদ্বীপ জুড়ে। এটি কোরীয় যুদ্ধ এর শেষে তৈরি হয় উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে বাফার জোন হিসেবে। ডিএমজেড একটি ডি ফ্যাক্টর সীমান্ত বাঁধা যেটি কোরীয় উপদ্বীপ কে প্রায় অর্ধেক দ্বিধাবিভক্ত করেছে। এটি ১৯৫৩ সালে উত্তর কোরিয়া, চীন এবং জাতিসংঘ চুক্তির মাধ্যমে তৈরি হয়েছে। এর দৈর্ঘ্য ২৫০ কিমি আর প্রস্থ ৪ কিমি।

মূল বিষয়[সম্পাদনা]

অবস্থানইতিহাসযৌথ নিরাপত্তা এলাকাডিএমজেড-সংক্রান্ত ঘটনা এবং আক্রমণ

  ৪.১ বহিরাক্রমণ টানেল

প্রচারণা

  ৫.১ গ্রাম
  ৫.২ পতাকাদন্দ
  ৫.৩ লাওডস্পিকার ইন্সটলাসন
  ৫.৪ বেলন্স
  ৫.৫ কোরিয়ান দেয়াল

পরিবহনপ্রকৃতি সংরক্ষণআরো দেখুননোট ১০ তথ্যসূত্র ১১ বহিঃসংযোগ

অবস্থান[সম্পাদনা]

ডিএমজেড দীর্ঘে ২৫০ কিমি লম্বা, প্রায় ৪ কিমি প্রস্থ। যদিও জোনটি উভয় পক্ষের পৃথক অসামরিকিকৃত, তবুও বহিঃ সীমান্ত বিশ্বের অন্যতম সবচেয়ে ব্যাপক সামরিক উপস্থিতি এখানে। উত্তর সীমা রেখা বা এনএনএল পীত সাগরের মধ্যে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে বিতর্কিত সমুদ্রসীমা নির্ধারণে লাইন, যুদ্ধবিরতি সম্মত নয়। তটরেখা এবং এনএনএল উভয় পক্ষের দ্বীপপুঞ্জ এ আরো ব্যাপক সামরিক উপস্থিতি আছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

৩৮তম সমান্তরাল উত্তর, যেটি কোরীয় উপদ্বীপ কে প্রায় অর্ধেক দ্বিধাবিভক্ত করেছে, মূলত এটি ছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ র শেষের দিকের যুক্তরাষ্ট্র এবং কোরিয়া সোভিয়েত ইউনিয়নের সংক্ষিপ্ত প্রশাসন এলাকার মধ্যকার সীমান্ত। ১৯৪৮ সালে উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিন কোরিয়া সৃষ্টির সময়কালে এটি হয়ে উঠে একটি কার্যত আন্তর্জাতিক সীমান্ত এবং শীতল যুদ্ধের সবচেয়ে উত্তেজনাকর একটি মুখপত্র । ১৯৪৮ সাল থেকে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া যুদ্ধ শুরু হওয়া থেকে তাদের পৃষ্ঠপোষক রাজ্যের উপর নির্ভরশীল ছিল। ১৯৫৩ সালের ২৭ জুলাই এ ঘোষিত যুদ্ধবিরতি চুক্তি তে, ডিএমজেড তৈরি করা হয়েছে যেমন প্রতিটি পাশ, একটি বাফার জোন তৈরি ৪ কিলোমিটার প্রশস্ত, সামনে লাইন থেকে তাদের সৈন্য ফিরে ২০০০ মিটার সরাতে একমত। যখন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়, সেনাবাহিনী সীমানা রেখা ডিএমজেড কেন্দ্রে মাধ্যমে যায় এবং সামনে ইঙ্গিত করে। উভয় পক্ষের সৈন্য ডিএমজেড র ভিতরে টহল দিতে পারে, কিন্তু তারা সেনাবাহিনী সীমানা রেখা পার করতে পারেন না; দক্ষিণ কোরিয়ার সৈন্যরা অবশ্য প্রচন্ডভাবে সশস্ত্র, সামরিক পুলিশ পৃষ্ঠপোষকতায় চৌকি, এবং যুদ্ধবিরতি প্রতিটি লাইন কণ্ঠস্থ আছে। সহিংসতার বিক্ষিপ্ত প্রাদুর্ভাবে, ১৯৫৩ এবং ১৯৯৯ সালের মধ্যে ডিএমজেড বরাবর নিহিত হয়েছে ৫০০ দক্ষিণ কোরিয়ার সৈন্যরা, ৫০ জন মার্কিন সৈন্য ও কোরিয়ার থেকে ২৫০ সেনা। ঘোষিত যুদ্ধবিরতি চুক্তি ব্যাখ্যা করে ঠিক কতজন সামরিক ব্যক্তি এবং কি ধরনের অস্ত্র ডিএমজেড এ অনুমতিআপাবে। উত্তর কোরিয়ার বহিরাক্রমণ নিরস্ত অব্যাহত রাখার জন্য , ২০১৪ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার কোরিয়ান ডিএমজেড কে অব্যাহতি দেয় এর অঙ্গীকার বিরোধী কর্মিবৃন্দ ল্যান্ডমাইন নিষ্কাশন করা থেকে ।

যৌথ নিরাপত্তা এলাকা[সম্পাদনা]