হরকাতুল জিহাদ আল-ইসলামী বাংলাদেশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হরকাতুল জিহাদ আল-ইসলামী বাংলাদেশ
Bangladesch Bombenexplosionen JMB 2005.svg
১৯৯৯ সাল থেকে ২০০৫ পর্যন্ত বাংলাদেশের (হুজি-বি) বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়।
প্রতিষ্ঠা৩০ এপ্রিল ১৯৯২
নামকরনহুজি-বি
প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলজাতীয় প্রেস ক্লাব (বাংলাদেশ), ঢাকা
সক্রিয়১৯৯২-২০০৫
সন্ত্রাসী কর্মকান্ডবাংলাদেশের ১৪টি স্থানে বিভিন্ন সন্ত্রাসী হামলায় ১০০ জনেরও বেশি মানুষকে হত্যায় দায়ী করা হয়
উল্লেখযোগ্য সদস্য১ লাখ

হরকাতুল জিহাদ আল-ইসলামী বাংলাদেশ হলো হরকাতুল-জিহাদ আল-ইসলামি (হুজি) নামক আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী গ্রুপের বাংলাদেশী শাখা। এটি বাংলাদেশে নিষিদ্ধ এবং যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাস আইন ২০০০ এর অধীনে একটি নির্দিষ্ট সংস্থা। বাংলাদেশে সংগঠনটির নামের সংক্ষিপ্ত রূপ হুজি-বি নামেও এর পরিচিতি রয়েছে।[১]

নেতৃত্ব[সম্পাদনা]

গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন মাওলানা আবদুস সালাম। [২] মুফতি আবদুল হান্নান হুজি বাংলাদেশের বাংলাদেশী শাখার সর্বশেষ নেতা ছিলেন। হান্নানকে বাংলাদেশের উচ্চ আদালতে নির্দেশে ১২ই এপ্রিল ২০১৭ সালে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। তবে তার মামলাটি ছিলো ব্রিটিশ হাইকমিশনার হত্যাচেষ্টা মামলা। [৩] সন্ত্রাসবাদ জড়িত থাকার তথ্যে ২৫ ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত করা হয়। [৪]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

হরকত-উল-জিহাদ-আল-ইসলাম (হুজি) কেন্দ্রীয় সংগঠন ১৯৮৪ সালে সোভিয়েত-আফগান যুদ্ধের সময় প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। [৫] সোভিয়েত-আফগান যুদ্ধের বাংলাদেশী মুজাহিদীনদের দ্বারা ১৯৮৯ সালে হরকাতুল জিহাদ আল ইসলামী বাংলাদেশ (হুজি-বি) প্রতিষ্ঠা করেছিলেন যশোরের মনিরামপুরের মাওলানা আবদুর রহমান ফারুকী। কিন্তু ওই বছরই আফগানিস্তানের খোস্তে মাইন অপসারণের সময় মাওলানা ফারুকী নিহত হন। পরে ঢাকায় বাংলাদেশ জাতীয় প্রেস ক্লাবে ৩০ এপ্রিল ১৯৯২ সালে হুজি বাংলাদেশ পুনঃপ্রতিষ্ঠা পায়। [৬] গোষ্ঠীর বাংলাদেশি শাখার প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন মাওলানা আবদুস সালাম। [২] দলটি প্রতিষ্ঠার পর বিভিন্ন সন্ত্রাসী হামলায় ১০০ জনেরও বেশি লোকের মৃত্যুতে এ দলকে দায়ী করা হয়। [৭] পশ্চিমা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা বিদ্রোহকে সমর্থন করার জন্য এই গ্রুপটি পরিচিত। [৮] এটি রোহিঙ্গা সলিডারিটি অর্গানাইজেশন (আরএসও) এবং আরাকান রোহিঙ্গা জাতীয় সংস্থা (এআরএনও) এর সাথে সম্পর্কযুক্ত। [৫]

আক্রমণের তালিকা[সম্পাদনা]

  • ১৮ জানুয়ারি ১৯৯৯, দলটি কবি শামসুর রহমানকে হত্যার চেষ্টা করেছিল। [৭]
  • ৬ মার্চ ১৯৯৯ সালে, দলটি যশোরের উদিচি সমাজে একটি বোমা হামলা চালায়[৭]
  • ৮ অক্টোবর ১৯৯৯, দলটি খুলনায় আহমাদিয়া মসজিদে বোমা হামলা চালায় । [৭]
  • ২০ জুলাই ২০০০ তারিখে, দলটি শেখ হাসিনা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা করেছিল । [৭]
  • ২০০১ সালের ২০ জানুয়ারি, দলটি ঢাকায় কমিউনিস্ট পার্টি সমাবেশে বোমা হামলা করে । [৭]
  • ২০০১ সালের ১৪ এপ্রিল, দলটি রমনা পার্কে বাঙালি নববর্ষের উদযাপনে বোমা হামলা চালায় । [৭]
  • উপর ৩ জুন ২০০১, গোপালগঞ্জের একটি গির্জায় বোমা হামলা। [৭]
  • ২০০১ সালের ১৬ জুন, দলটি নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ অফিসে বোমা হামলা করে। [৭]
  • ২০০১ সালের ২৩ শে সেপ্টেম্বর, বাগেরহাটে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি সমাবেশে বোমা হামলা করে দলটি। [৭]
  • উপর ২১ মে ২০০৪, গ্রুপ বোমাবর্ষণ সিলেটে শাহ জালাল মাজারে ব্রিটিশ হাইকমিশনার লক্ষ্য করে সিলেট[৭]
  • ২০০৪ সালের ২১ জুন, সুনামগঞ্জে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের একটি দল বোমা হামলা করে। [৭]
  • ২০০৪ সালের ৭ আগস্ট সিলেটের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি সমাবেশে এই দলটি হামলা চালায়। [৭]
  • ২০০৪সালের ২৪ শে আগস্ট, শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন ঢাকা আওয়ামী লীগের একটি সমাবেশে দলটি আক্রমন করেছিল। [৭]
  • ২৭ জানুয়ারি ২০০৫ তারিখে, দলটি শাহ এএমএস কিবরিয়া নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি সমাবেশে আক্রমন করেছিল। [৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Court starts hearing death reference defence plea in Ramna Batamul bombing case"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  2. "Ferocious HujiB now on the wane"Dhaka Tribune। ২১ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  3. "Mufti Hannan files review petition on death penalty"Dhaka Tribune। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  4. "2004 attack on UK envoy: Mufti Hannan files review plea"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  5. "Huji men used as mercenaries"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২২ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  6. "গোড়াপত্তন আফগান মুজাহিদদের হাতে"দৈনিক প্রথম আলো। ৩ নভেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৯ 
  7. Akand, Raihanul Islam (৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭)। "Death warrant read out to Mufti Hannan, execution soon"dhakatribune.com। Dhaka Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  8. "Wider support for Rohingya terrorists hints at further attacks"Dhaka Tribune। ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭