হংসিকা মোতবানী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হংসিকা মোতবানী
Star Hansika.jpg
জন্মহংসিকা মোতবানী
(১৯৯১-০৮-০৯) ৯ আগস্ট ১৯৯১ (বয়স ২৭)[১]
মুম্বাই, মহারাষ্ট্র ভারত
বাসস্থানভারত
জাতীয়তাভারত ভারতীয়
জাতিসত্তাসিন্ধী
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল২০০১–২০০৫, ২০০৭–বর্তমান

হংসিকা মোতবানী (ইংরেজি: Hansika Motwani; জন্ম: ৯ আগস্ট, ১৯৯১) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী যিনি হিন্দি, তামিলতেলুগু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। শিশুশিল্পী হিসেবে হিন্দি চলচ্চিত্র হাওয়া তে তার প্রথম আত্মপ্রকাশ। কোই মিল গয়া, আবরা কা ডাবরা এবং জাগো(২০০৪ হিন্দি চলচ্চিত্র) তে তিনি শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেছেন।হংসিকা দেসামুদুরু তামিল চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অভিনয় জীবনে খ্যাতি পান। দেসামুদুরু চলচ্চিত্রে তাঁর অসাধারণ অভিনয়ের জন্যে তিনি ফিল্ম ফেয়ার সেরা অভিনেত্রী (নবাগত) - সাউথ অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি কান্ত্রি, মাসকা সহ আরও বেশ কয়েকটি বড় বাজেটের চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনি মাপ্পিল্লাই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তেলুগু চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। পরবর্তীতে তিনি ভেলায়ুধাম, অরু কাল অরু কান্নাডি, থিয়া ভেলাই সেইয়ানুম কুমারুমান কারাতে সহ বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

হংসিকা মোতবানী'র বাবা প্রদীপ মোতবানী, পেশায় ব্যবসায়ী এবং মা মোনা মোতবানী পেশায় ত্বক-বিশেষজ্ঞ। তাঁর ভাই প্রশান্ত মোতবানী।[২] তার মাতৃভাষা হল সিন্ধি,[৩] এবং তিনি একজন বৌদ্ধ ধর্ম অনুসারী।[৪] তিনি তাঁর শিক্ষা জীবন শুরু করেন পদার ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এর মাধ্যমে এবং পরবর্তীতে ইন্টারন্যাশনাল কারিকুলাম স্কুল-এ ভর্তি হন।[৫]

অভিনয় জীবন[সম্পাদনা]

প্রাথমিক বছর

তার টেলিভিশন কর্মজীবন শুরু করেন শাকা লাকা বুম বুম নামে একটি সিরিয়াল দিয়ে। পরে তিনি ভারতীয় সিরিয়াল দেস মিন নিকলা হোগা চাঁদে অভিনয় করেছিলেন, যার জন্য তিনি স্টার পরিবার পুরস্কার (প্রিয় শিশু পুরস্কার) পেয়েছিলেন এবং প্রীতি জিনতা এবং ঋত্বিক রোশনের সাথে কোই মিল গায়ায় শিশুদের একজন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
তিনি ১৬ বছর বয়সে পুরী জগন্নাথের তেলেগু চলচ্চিত্র দেশমুদ্দুরে প্রথম নায়িকার ভূমিকা পালন করেন,আল্লু‌ অর্জুনের বিপরীতে । এর জন্য সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার (দক্ষিণ) অর্জন করেন । [7] বলিউডের অভিনেত্রী হিসেবে  অভিষেক হয় হেমেশ রেশম্মিয়ার বিপরীতে আপ কা সূরূর এ অভিনয়ের   মধ্য দিয়ে । যা ছিল মাঝারি হিট। তিনি পরবর্তীতে হেই: দ্য ইনালি ওয়ান নামক হিন্দি চলচ্চিত্রটিতে স্বাক্ষরিত হন, যেখানে তিনি একটি হত্যাকারীর ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন, যে তার পরিবারের জন্য প্রতিশোধ গ্রহণ করতে চায়, [8] তবে চলচ্চিত্রটিকে পরে ছাপানো হয়েছিল।তার ২০০৮ সালের  প্রথম  মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা বিন্দাস, তাঁর প্রথম এবং একমাত্র কন্ন‌ড় চলচ্চিত্র,যাতে পুন্ন‌িত রাজকুমার অভিনয় করেছিলেন। সেই বছর পরে, তিনি কান্ত্রি চলচ্চিত্রে জুনিয়র এনটিআর এর সাথে  অভিনয় করেছিলেন।


(২০১১-২০১৫)


২০১১ সালে সফল চলচ্চিত্র ম্যাপিলাইয়ে তার প্রথম তামিল চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে, ধনুষের বিপরীতে। এছাড়াও তার পরবর্তী তামিল ফিল্ম জয়ম রবির বিপরীতে, এনজিউম কধাল, সফল ছিল। [9] ২০১১ সালের ফিল্ম ভ্যালুয়ধাম, যেখানে তিনি বিজয়ের পাশাপাশি অভিনয় করেছিলেন, বক্স অফিসে সাফল্য লাভ করে; এতে প্রথমবারের মতো তিনি গ্রামের মেয়ের ভূমিকা পালন করা করেন। ২০১২ সালে হংসিকার দুটি রিলিজ ছিল, তামিল ও তেলেগু তে । তার প্রথম মুক্তি ছিল এম. রাজেশের রোমান্টিক কমেডি ওরু কাল ওরু কান্নাডি, যা তার প্রথম রানওয়ে হিট হয়ে ওঠে এবং সমালোচকদের কাছ থেকে তার পারফরম্যান্সের জন্য ইতিবাচক রিভিউ অর্জন করে। [10] তেলেগুতে, তিনি বিষ্ণু মাঞ্চুর বিপরীতে দেনিকাইন রেডিতে বৈশিষ্ট্যযুক্ত ছিলেন, যা জনসাধারণের কাছ থেকে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া অর্জন করেছিল। [11] চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য ৬০ তম ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড সাউথে তিনি তার প্রথম সেরা অভিনেত্রী মনোনয়ন পান। ২০১৩ সালে, তিনি চারটি তামিল চলচ্চিত্র এ অভিনয় করেছিলেন, আর্যের বিপরীতে সেটাইই, [12] সুন্দর সির পরিচালনায় থিয়ে ভেলাই সেনিয়ানুম কুমুর এ সিদ্ধার্থের বিপরীতে, হরির সিঙ্গাম ২ তে সুরিয়ার বিপরীতে [13] ,ভেঙ্কাত প্রভূর বিরিয়ানী্তে সুরিয়া এর ভাই কার্থীর সাথে। ২০১৪ সালে তার পাঁচটি রিলিজ ছিল, তাদের মধ্যে দুটি হল তেলেগু চলচ্চিত্র, কমেডি ফ্ল্যাশ পান্ডাভুলু পান্ডভুলু থমদা [14] এবং অ্যাকশন-মাসালা পাওয়ার। [15] তার তামিল রিলিজগুলি ছিল কল্পনাপ্রসূত চলচ্চিত্র মান কারাতে, [16] সুন্দর সি এর হরর কমেডি আরানমানাই [17] এবং অ্যাকশন থ্রিলার মেহামম্যান, পূর্ববর্তী দুটি বছরের সবচেয়ে লাভজনক চলচ্চিত্রগুলির মধ্যে দুটি হয়ে ওঠে। [18] সুন্দর সি'র সঙ্গে তার তৃতীয় কাজ আম্বালা,ছিল তার ২০১৫ সালের প্রথম মুক্তি । পরবর্তীতে তিনি ভালুতে সিলেব্বারসনের সঙ্গে দেখা যায়, [19] যার সাথে তিনি গ্যাংস্টার ফিল্ম ভিটাই মান্নানেও অভিনয় করার কথা ছিল, যা স্থগিত হয়ে যায়। [20] ২০১৫ সালে,লক্ষ্মণের পরিচালনায় তার চলচ্চিত্র রোমিও জুলিয়েট (জয়ম রবি, পুমাম বাজওয়া, ভিটিভি গণেশ, ভামসি কৃষ্ণ, উমা পদ্মনাভন এবং আর্য (অতিথি ভূমিকা)) 1২ জুন ২015 তারিখে মুক্তি পায়। এটি মিশ্র পর্যালোচনা পেয়েছিল[উদ্ধৃতি প্রয়োজন] এবং বক্স অফিসে লাভজনক হয়েছিল। তবে এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করার জন্য সমালোচকদের কাছ থেকে তিনি প্রশংসা পেয়েছিলেন। পুলি চলচ্চিত্রটি আর্থিকভাবে সফল হয়নি।


(২০১৬-বর্তমান)


২০১৬ সালে, সুন্দর সি পরিচালিত আরমানমানাই ২ মিশ্র রিভিউতে মুক্তি পায়। সেই বছরের তার পরের ছবি রোম্যান্টিক উয়ির উয়ির ও পোক্কিরী রাজা ফ্লপের তালিকায় ছিল। ২০১৬ সালে তার সর্বশেষ মুক্তি ছিল মানিথন, যেখানে তিনি একজন শিক্ষক ছিলেন। দ্বিতীয়বারের মত উধান্যিধী স্ট্যালিনের বিপরীতে তাকে জুটি বানানো হয়েছিল। তিনি সীমিত মেকআপ পরেন এবং তার আগের গ্ল্যাম ভূমিকা থেকে আলাদা প্রিয়ার ভূমিকায় অভিনয় করার জন্য প্রশংসা জিতেছেন। ২০১৭ সালে তার প্রথম মুক্তি পায় বোগান এবং ইতিবাচক রিভিউ পায়। তৃতীয় বারের মতো জয়ম রবির বিপরীতে তাকে জুটি বানানো হয়েছিল। অনেক সমালোচক ভূমিকা দৃশ্য এবং প্রাক-চূড়ান্ত দৃশ্যের মধ্যে তার কর্মক্ষমতা জন্য প্রশংসা করে। তিনি একটি তেলুগু ফিল্ম লুচকুন্নদু তে অভিনয় করেন।২০১৭ সালে মালয়ালামে আত্মপ্রকাশ হয় ভিলেনের (মহল্লাল, বিশাল ও রাশি খান্না ) মাধ্যম এ। যা মিশ্র পর্যালোচনা পায় বক্স অফিস এ, কিন্তু তার কর্মক্ষমতা প্রশংসিত হয়।গৌতম নন্দ তে তার ছোট ভূমিকা ছিল ও বক্স অফিস এ মিশ্র রিভিউ পায়। ২০১৮ সালের তার প্রথম মুক্তিটি ছিল দেবদেবীর বিপরীতে গুলেবাভালি, যেখানে তিনি বিজয়ী নামে এক শিল্পীর অভিনয় করেছিলেন। চলচ্চিত্রটি মিশ্র রিভিউতে মুক্তি পায়, কিন্তু এটি বক্স অফিসে ভাল করেছিল এবং তার ভূমিকার প্রশংসা হয়। পরবর্তীতে তিনি বিক্রম প্রভূর বিপরীতে থাপ্পাকি মুনাইতে অভিনয় করেন এবং তাকে স্যাম অ্যান্টনের পরিচালিত অথর্বের বিপরীতে শিরোনামহীন একটি তামিল ছবিতে দেখা যাবে।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তিনি "চেন্নাই টারন্স পিঙ্ক" এর ব্র্যান্ড এ্যাম্বাসেডর হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেন, এটি মূলত স্তন ক্যানসার সম্পর্কিত জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন।[৬]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

অপ্রকাশিত চলচ্চিত্র নির্দেশ করে অপ্রকাশিত চলচ্চিত্র নির্দেশ করে
সাল চলচ্চিত্র চরিত্র ভাষা মন্তব্য
২০০৩ হাওয়া সঞ্জনার মেয়ে হিন্দি শিশু শিল্পী
কোই... মিল গয়া প্রিয়া সিক্স
আব্রা কা ডাব্রা পিঙ্কি
জাগো শ্রুতি
২০০৪ হাম কৌন হ্যায় সারা উইলিয়ামস
২০০৭ দেসামুদুরু বৈশালী তেলুগু (সেরা অভিনেত্রী )(অভিষেক) ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডস (দক্ষিণ)
আপকা সুরুর রিয়া হিন্দি মনোনীত—(সেরা অভিনেত্রী )(অভিষেক) ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডস
২০০৮ বিন্দাস প্রীথি কন্নড়
ক্রান্তি ভারালাক্সমি তেলুগু
মানি হে ত হনেয় হে আশিমা কাপুর হিন্দি
২০০৯ মাস্কা মীনু তেলুগু
বিল্লা(২০০৯) প্রিয়া তেলুগু অতিথি চরিত্র
জায়িভাবা অন্জলি নরসিমহা তেলুগু
সীথারামুলা নান্ধিনি তেলুগু
২০১১ মাপ্পিল্লাই ২০১১) গায়ত্রী তামিল তামিলে অভিষেক
এঙ্গেয়ুম কাধাল কায়াল্ভিযহি রাজশেখর তামিল
কান্দিরীগা শ্রুতি তেলুগু
ভেলায়ুমধাম বৈদেহী তেলুগু
অহ মাই ফ্রেন্ড রিন্টু‌ তেলুগু
২০১২ 'অরুকাল অরু কান্নাদি মীরা মহেন্দ্রকুমার তামিল সিমা অ্যাওয়ার্ড -সেরা অভিনেত্রী (তামিল)
এদিসন অ্যাওয়ার্ডস( সেরা অভিনেত্রী)
দেনিকাইনা শর্মি‌লা তেলুগু মনোনীত—(সেরা অভিনেত্রী) ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডস (তেলেগু)
২০১৩ সেত্তাই মধুমিতা তামিল
থীয়া ভেলাই সেইয়্যানুম কুমারু সাঞ্জানা তামিল
সামথিং সামথিং সাঞ্জানা তেলুগু
সিঙ্গাম ২ |সত্যা তামিল
বিরিয়ানি প্রিয়াঙ্কা তামিল
২০১৪ পান্দাভুলু পান্দাভুলু থুম্মেদা হানি তেলুগু
মান কারাতে ইয়াযহিনি তামিল (প্রিয় অভিনেত্রী) বিজয় অ্যাওয়ার্ডস
পাওয়ার নিরুপমা তেলুগু
আরান্মানাই সেল্ভি তামিল সিমা অ্যাওয়ার্ড -সেরা অভিনেত্রী (তামিল)[৭]
মেয়াঘামান্ন ঊষা তামিল
২০১৫ আম্বালা মায়া তামিল
রোমিও জুলিয়েট ঐশ্বরিয়া তামিল
ভালু প্রিয়া মহালক্ষ্মী তামিল
পুলি রাজকন্যা মান্থাগিনি তামিল
ইঙ্গিদুপ্পাযহাগি স্বয়ং তামিল অতিথি চরিত্র
সাইজ জিরো স্বয়ং তেলেগু অতিথি চরিত্র
২০১৬ আরান্মানাই ২ মায়া তামিল
পক্কিরি রাজা সুনিতা তামিল
উয়িরে উয়িরে প্রিয়া তামিল
মানিথান প্রিয়া তামিল
২০১৭ লুচকুন্নদু পজিটিভ পদ্মা তেলুগু
বোগান মহালক্ষ্মী তামিল
গৌতম নন্দ স্পূর্তি‌ তেলুগু
ভিলেন শ্রেয়া মালয়ালাম মালায়ালামে অভিষেক
গুলেয়াকাভালি ভিজি

তামিল [৮]

== তথ্যসূত্র ==

  1. "Hansika Motwani"। StarsFact.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৮-২৩ 
  2. "Hansika's tryst with Kevin Pietersen"। Deccan Chronicle। ২০১৩-০৪-১০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৮-১৯ 
  3. Sreedhar, Pillai (৮ আগস্ট ২০০৯)। "I'm here to entertain: Hansika"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১৩ 
  4. Hansika chants for peace Mid-Day - 21 February 2010
  5. My life begins now: Hansika
  6. "Hansika to adopt one more child - The Times of India"The Times Of India 
  7. "SIIMA Awards 2015 Tamil winners list - Times of India" 
  8. "Prabhu Deva clasps MGR'S title now"Top 10 Cinema (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৫-০২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৫-০২ 

== বহিঃসংযোগ ==