শ্রেষ্ঠ পরিচালক বিভাগে জি সিনে পুরস্কার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শ্রেষ্ঠ পরিচালক বিভাগে জি সিনে পুরস্কার
Zoya Akhtar gracing ‘Filmfare Glamour & Style Awards 2016’ (cropped).jpg
বর্তমান বিজয়ী: জোয়া আখতার
প্রদানের কারণসমালোচকদের দৃষ্টিতে শ্রেষ্ঠ পরিচালকের জন্য
দেশভারত
পুরস্কারদাতাজি এন্টারটেইনমেন্ট এন্টারপ্রাইজ
প্রথম পুরস্কৃত১৯৯৮ (১৯৯৭-এর চলচ্চিত্রের জন্য)
সর্বশেষ পুরস্কৃত২০২০ (২০১৯-এর চলচ্চিত্রের জন্য)
বর্তমানে আধৃতজোয়া আখতার (গল্লি বয়-এর জন্য)
ওয়েবসাইটzeecineawards.com

শ্রেষ্ঠ পরিচালক বিভাগে জি সিনে পুরস্কার হল ভারতের চলচ্চিত্রের জন্য জি সিনে এন্টারটেইনমেন্ট প্রদত্ত বাৎসরিক পুরস্কার। দর্শকদের ভোটে এই পুরস্কারের বিজয়ী নির্ধারিত হয়ে থাকে। ২০০৫ সাল থেকে জি সিনে পুরস্কারের অংশ হিসেবে বলিউডের সেরা পরিচালকদের এই পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। ২০০৯, ২০১০, ও ২০১৫ সালে কোন পুরস্কার প্রদান করা হয়নি। সঞ্জয় লীলা ভন্সালী এই বিভাগে সর্বাধিক পাঁচবার পুরস্কার অর্জন করেন।

বিজয়ী ও মনোনীতদের তালিকা[সম্পাদনা]

করণ জোহর কুচ কুচ হোতা হ্যায় (১৯৯৮) ও মাই নেম ইজ খান (২০১০) চলচ্চিত্র পরিচালনার জন্য দুইবার এই পুরস্কার অর্জন করেন।
সঞ্জয় লীলা ভন্সালী সর্বাধিক পাঁচবার (১৯৯৯, ২০০২, ২০০৫, ২০১৫, ২০১৮) এই পুরস্কার অর্জন করেন।
রাকেশ রোশন কাহো না... প্যায়ার হ্যায় (২০০০) ও কোই... মিল গয়া (২০০৩) চলচ্চিত্র পরিচালনার জন্য দুইবার এই পুরস্কার অর্জন করেন।
আশুতোষ গোয়ারিকর লগান (২০০১) চলচ্চিত্র পরিচালনার জন্য এই পুরস্কার অর্জন করেন।
যশ চোপড়া বীর-জারা (২০০৩) চলচ্চিত্র পরিচালনার জন্য এই পুরস্কার অর্জন করেন।

১৯৯৭-২০০৭[সম্পাদনা]

বছর
(আয়োজন)
পরিচালক চলচ্চিত্র সূত্র
১৯৯৭
(১ম)
জে. পি. দত্ত বর্ডার [১]
১৯৯৮
(২য়)
করণ জোহর কুচ কুচ হোতা হ্যায়
১৯৯৯
(৩য়)
সঞ্জয় লীলা ভন্সালী হাম দিল দে চুকে সনম
২০০০
(৪র্থ)
রাকেশ রোশন কাহো না... প্যায়ার হ্যায়
২০০১
(৫ম)
আশুতোষ গোয়ারিকর লগান
২০০২
(৬ষ্ঠ)
সঞ্জয় লীলা ভন্সালী দেবদাস
২০০৩
(৭ম)
রাকেশ রোশন কোই... মিল গয়া
২০০৪
(৮ম)
যশ চোপড়া বীর-জারা
২০০৫
(৯ম)
সঞ্জয় লীলা ভন্সালী ব্ল্যাক
২০০৬
(১০ম)
রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা রং দে বাসন্তী
২০০৭
(১১তম)
আমির খান তারে জমিন পর

২০১০-এর দশক[সম্পাদনা]

বছর
(আয়োজন)
পরিচালক চলচ্চিত্র সূত্র
২০১০
(১২তম)
করণ জোহর মাই নেম ইজ খান [২]
২০১১
(১৩তম)
ইমতিয়াজ আলী রকস্টার [৩]
২০১২
(১৪তম)
অনুরাগ বসু বর্ফী! [৪]
২০১৩
(১৫তম)
অয়ন মুখার্জী ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি [৫]
২০১৫
(১৬তম)
সঞ্জয় লীলা ভন্সালী বাজীরাও মস্তানী [৬]
২০১৬
(১৭তম)
রাম মাধবাণী নীরজা [৭]
অনিরুদ্ধ রায় চৌধুরী পিঙ্ক
অভিষেক চোবে উড়তা পাঞ্জাব
আলী আব্বাস জাফর সুলতান
নীরজ পাণ্ডে এম.এস. ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি
শকুন বাত্রা কাপুর অ্যান্ড সন্স
২০১৭
(১৮তম)
অশ্বিনী আইয়ার তিওয়ারি বরেলী কী বর্ফী [৮]
অদ্বৈত চন্দন সিক্রেট সুপারস্টার
রোহিত শেঠী গোলমাল অ্যাগেইন
শ্রী নারায়ণ দেব টয়লেট: এক প্রেম কথা
সাকেত চৌধুরী হিন্দি মিডিয়াম
সুভাষ কাপুর জলি এলএলবি ২
২০১৮
(১৯তম)
সঞ্জয় লীলা ভন্সালী পদ্মাবত [৯]
অনুভব সিনহা মুল্‌ক
অমিত রবীন্দরনাথ শর্মা বাধাই হো
মেঘনা গুলজার রাজি
রোহিত শেঠী সিম্বা
শ্রীরাম রাঘবন আন্ধাধুন
২০১৯
(২০তম)
জোয়া আখতার গল্লি বয় [১০]

একাধিকবার বিজয়ী[সম্পাদনা]

৫ বার
২ বার

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Zee Cine Critics' Choice Award For Best Actress - Zee Cine Award For Best Actress & Winners"অ্যাওয়ার্ডস অ্যান্ড শোজ। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  2. "'Dabangg' bags maximum nominations for Zee Cine Awards 2011"জি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ১৪ জানুয়ারি ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  3. "Winners of Zee Cine Awards 2012"ইন্ডিয়া টুডে (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  4. ভট্টাচার্য, অনন্যা (২১ জানুয়ারি ২০১৩)। "Zee Cine Awards 2013: The ones who shone this year!"জি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  5. মুদি, অপর্ণা (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪)। "Zee Cine Awards 2014: Winner`s List"জি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  6. "ZCA 2016 Archives"জি সিনে পুরস্কার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  7. "ZCA 2017 Archives"জি সিনে পুরস্কার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  8. "ZCA 2018 Archives"জি সিনে পুরস্কার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  9. "Zee Cine Awards full winners list: Ranbir Kapoor and Deepika Padukone win big"ইন্ডিয়া টুডে (ইংরেজি ভাষায়)। ২০ মার্চ ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  10. "করোনা আতঙ্কে দর্শকশূন্য Zee Cine Awards, রণবীর-তাপসীদের হাতে উঠল বড় পুরস্কার"হিন্দুস্তান টাইমস। ১৪ মার্চ ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]