মেরু নিশি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মেরু নিশির নীল গোধূলি, ৭৮° উত্তরে গিয়ারবিয়েন, স্‌ভালবার্দ, নরওয়েতে
নারয়ান মার, রাশিয়াতে মেরু নিশি। দুপুর ১১:২৭, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৪।

পৃথিবীর উত্তরতম ও দক্ষিণতম অঞ্চলে মেরু নিশি সংঘটিত হয় যখন রাত ২৪ ঘণ্টার বেশি হয়। এটি শুধুমাত্র মেরু বৃত্তে সংঘটিত হয়।[১] মেরু নিশির বিপরীত ঘটনা হলো নিশীথ সূর্য যা সূর্য ২৪ ঘণ্টার বেশি দিগন্তের উপরে থাকলে সংঘটিত হয়। "রাত" বলতে মুক্ত দিগন্তের নিচে সূর্যের কেন্দ্র হিসাবে বোঝানো হয়। যেহেতু বায়ুমণ্ডলে সূর্যের আলোর প্রতিসরণ ঘটে সেহেতু নিশীথ সূর্যের সময়কাল মেরু নিশি থেকে বেশি হয় এবং নিশীথ সূর্য মেরু নিশি থেকে বেশি স্থানে জুড়ে ঘটে থাকে। মেরু বৃত্ত প্রায় ৬৬.৫ ডিগ্রি অক্ষাংশে এই দুই অঞ্চলের মধ্যে অবস্থিত। ৬৭°৫১'উত্তর অক্ষাংশে সুইডেনের উত্তরের শহর কিরুনায় এ মেরু নিশি প্রায় ২৮ চব্বিশ ঘণ্টা সময় ধরে স্থির হয় এবং যখন নিশীথ সূর্য প্রায় ৫০টি চব্বিশ ঘণ্টা সময়কাল ধরে থাকে। যখন আর্কটিক বৃত্তে দিন তখন অ্যান্টার্কটিক বৃত্তে রাত। আবার যখন আর্কটিক বৃত্তে রাত তখন অ্যান্টার্কটিক বৃত্তে দিন।

যে গ্রহ বা উপগ্রহের যথেষ্ট আক্ষিক আনতি আছে এবং নক্ষত্রের চারদিকে ঘোরার চেয়ে নিজ অক্ষে বেশি ঘুরে (দুটির মধ্যে কোন জোয়ার লকিং নেই) সেই গ্রহ বা উপগ্রহে এই ঘটনা (রাতের সময় নিজ অক্ষে ঘোরার সময়ের চেয়ে বেশি হয়) ঘটে থাকে।

বর্ণনা[সম্পাদনা]

মেরুর সবচেয়ে ছোট দিনটি মেরু বৃত্তের অভ্যন্তরে সর্বত্র অন্ধকার হয় না, কেবলমাত্র মেরুগুলোর প্রায় ৫.৫° এর মধ্যে রয়েছে এমন স্থানে হয় এবং যখন চাঁদ দিগন্তের নিচে থাকে তখনই হয়। মেরু বৃত্তের অভ্যন্তরীণ সীমানায় অবস্থিত অঞ্চলগুলোতে মেরু নিশির পরিবর্তে মেরু গোধূলি দেখা যায়। আসলে, মেরু অঞ্চলগুলোতে সারা বছর জুড়ে নিরক্ষীয় অঞ্চলের চেয়ে বেশি গোধূলি দেখা যায়।

মেরু বৃত্তের অন্তর্গত অঞ্চলের ক্ষেত্রে, সূর্য দিগন্তের নিচে সর্বোচ্চ যে সময়ের জন্য থাকে তা আর্কটিক বৃত্তে এবং অ্যান্টার্কটিক বৃত্তের কিছু ডিগ্রি বাইরে ০ থেকে শুরু করে মেরুতে ১৭৯ দিন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] তবে, এই সমস্ত সময়টিকে মেরু নিশি হিসাবে বিবেচনা করা হয় না কারণ সূর্যালোক প্রতিসরণের ফলে দৃশ্যমান হতে পারে। যখন সূর্যের যেকোন অংশ মেরুতে দিগন্তের উপরে থাকে তার সময় ১৮৬ দিন। পূর্বের সংখ্যাগুলো হলো গড় সংখ্যা: পৃথিবীর কক্ষপথের উপবৃত্ত হওয়ায় দক্ষিণ মেরুতে উত্তর মেরুর চেয়ে সূর্য দিগন্তের নিচে এক সপ্তাহ বেশি দেখা যায়। (বিষুব দেখুন)।

মেরু নিশির প্রকারভেদ[সম্পাদনা]

ট্রমস, নরওয়েতে বিকালে মেরু নিশি।
ইউরোপের উত্তরতম উপদ্বীপ নরওয়ের নর্ডকিন উপদ্বীপে মেরু নিশি।

যেহেতু গোধূলির বিভিন্ন প্রকার রয়েছে সেহেতু মেরু নিশিরও প্রকারভেদ রয়েছে। মেরু নিশি যখন সেইসময়ের গোধূলির থেকে অন্ধকার হয়, সেই হিসাবে বিভিন্ন মেরু নিশিকে সংজ্ঞায়িত করা হয়। নিচের বর্ণনাগুলো অপেক্ষাকৃত পরিষ্কার আকাশের ভিত্তিতে দেওয়া হয়েছে। তাই ঘন মেঘের উপস্থিতিতে আকাশ আরও অন্ধকার হবে।

মেরু গোধূলি[সম্পাদনা]

মেরু গোধূলি এমন অঞ্চলে ঘটে যা মেরু বৃত্তগুলোর অভ্যন্তরীণ সীমান্তে অবস্থিত, যেখানে দক্ষিণায়নের সময় সূর্য সারাদিন দিগন্তে বা দিগন্তের নিচে থাকে। তখন সৌর কাল্মিনেশনে কোন প্রকৃত দিবালোক নেই, কেবল সিভিল গোধূলি। অর্থাৎ, হলো সূর্য দিগন্তের নিচে, তবে ৬°ও কম। সিভিল গোধূলির সময় উচ্চতর বায়ুমণ্ডল এবং আলোর প্রতিসরণের ফলে আলো ছড়িয়ে পড়ায় বেশিরভাগ বাইরের ক্রিয়াকলাপের জন্য যথেষ্ট আলো থাকতে পারে। রাস্তার প্রদীপগুলো চলাকালীন সময়ে কোন ব্যক্তি একটি আলোকিত কক্ষের অভ্যন্তর থেকে দুপুরে জানালার দিকে তাকিয়ে তাদের প্রতিচ্ছবি দেখতে পারে, কারণ বাইরের আলোর মাত্রা অভ্যন্তরের আলোর মাত্রা থেকে কম হয়। এটি ৬৭°২৪’ এবং ৭২°৩৪’ উত্তর বা দক্ষিণ অক্ষাংশের মধ্যে ঘটে যখন সূর্য ওঠে না আর কেবল সিভিল গোধূলি দৃশ্যমান থাকে।

উত্তর গোলার্ধ:

  • ৬৮° উত্তর: ৯ ডিসেম্বর থেকে ২ জানুয়ারি
  • ৬৯° উত্তর: ১ ডিসেম্বর থেকে ১০ জানুয়ারি
  • ৭০° উত্তর: ২৬ নভেম্বর থেকে ১৬ জানুয়ারি
  • ৭১° উত্তর: ২১ নভেম্বর থেকে ২১ জানুয়ারি
  • ৭২° উত্তর: ১৬ নভেম্বর থেকে ২৫ জানুয়ারি

দক্ষিণ গোলার্ধ:

  • ৬৮° দক্ষিণ: ৭ জুন থেকে ৩ জুলাই
  • ৬৯° দক্ষিণ: ৩০ মে থেকে ১১ জুলাই
  • ৭০° দক্ষিণ: ২৪ মে থেকে ১৮ জুলাই
  • ৭১° দক্ষিণ: ১৯ মে থেকে ২৩ জুলাই
  • ৭২° দক্ষিণ: ১৪ মে থেকে ২৭ জুলাই

সিভিল মেরু নিশি[সম্পাদনা]

সিভিল মেরু নিশির সময় মধ্যাহ্নে কেবলমাত্র হালকা আলো দৃশ্যমান হয়। এটি তখনই ঘটে যখন সিভিল গোধূলি থাকে না এবং সৌর কাল্মিনেশনে কেবল নটিক্যাল গোধূলি ঘটে। সিভিল গোধূলিটি ঘটে যখন সূর্য দিগন্তের নীচে ০ থেকে ৬ ডিগ্রির মধ্যে থাকে এবং সূর্য তার নিচে থাকলে সিভিল রাত হয়। তাই, সিভিল মেরু নিশি ৭২°৩৪' অক্ষাংশের উপরেই হয়ে থাকে , যা মেরু বৃত্তের ঠিক ৬° ভিতরে। ইউরোপের মূল ভূখণ্ডের স্থানেই এই সংজ্ঞাটি মেলেনি। যদিও নরওয়ের সভালবার্ড অঞ্চলে সিভিল মেরু রাত প্রায় ১১ নভেম্বর থেকে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত হয়ে থাকে। রাশিয়ার ডিকসনে, ৬ ডিসেম্বর থেকে ৬ জানুয়ারি সিভিল মেরু নিশি দেখা যায়। নরওয়ের ফিনমার্কের উপকূলের (প্রায় ৭০°) মতো ঘন মেঘে ঢাকা জায়গাগুলোতে অন্ধকার "দিন" দেখা যায়। কানাডার নুনাভুটের পন্ড ইনলেটে সিভিল মেরু নিশি প্রায় ১৬ ডিসেম্বর থেকে ২৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থায়ী হয়।

নটিক্যাল মেরু নিশি[সম্পাদনা]

নটিক্যাল মেরু নিশির সময়কালে, মধ্যাহ্ন ব্যতীত দিবালোকের কোনও চিহ্ন খুঁজে পাওয়া যায় না। এটি তখন ঘটে যখন কোনও নটিক্যাল গোধূলি থাকে না এবং সৌর কাল্মিনেশনে জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক গোধূলি ঘটে। নটিক্যাল গোধূলিটি তখন ঘটে যখন সূর্য দিগন্তের নিচে ৬ থেকে ১২ ডিগ্রির মধ্যে থাকে। আলোর প্রতিসরণের কারণে মধ্যাহ্নে দিগন্তের কিছু জায়গায় অন্য জায়গার তুলনায় বেশি আলো থাকে। নটিক্যাল নিশির সময়, সূর্য দিগন্তরেখার ১২ ডিগ্রির কম নিচে অবস্থান করে। তাই নটিক্যাল মেরু নিশি ৭৮°৩৪' এর উপরের অক্ষাংশের মধ্যে সীমাবদ্ধ, যা মেরু বৃত্ত থেকে ঠিক ১২° বা মেরু থেকে ১১.৫°। কানাডা এবং সারা বিশ্বের উত্তরতম জনবসতি, নুনাভুটের অ্যালার্টে ১৯ নভেম্বর থেকে ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত এটি দেখা যায়।[২]

গ্রিনল্যান্ডের উত্তরতম প্রান্ত, ওদাপ কেকের্তায় ১৫ নভেম্বর থেকে ২৭ জানুয়ারি পর্যন্ত নটিক্যাল মেরু নিশি দেখা যায়। এই জায়গার একেবারে বিপরীত প্রান্তে (৮৩°৪০'দক্ষিণ, ১৫০°০৭'পূর্ব), ১৩ মে থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত এটি ঘটে থাকে।[৩]

কানাডার নুনাভুটের ইউরেকায় ১ ডিসেম্বর থেকে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত নটিক্যাল মেরু নিশি দেখা যায়। এই জায়গার একেবারে বিপরীত প্রান্তে (৭৯°৫৮'দক্ষিণ, ৯৪°০৪'পূর্ব), ১ জুন থেকে ১১ জুলাই পর্যন্ত এটি ঘটে থাকে।

নরওয়েজীয় অঞ্চল সভালবার্দ ন্য-ইলেসুন্ডে ১২ থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত নটিক্যাল মেরু নিশি দেখা যায়। এই জায়গার একেবারে বিপরীত প্রান্তে (৭৮°৫৫'দক্ষিণ, ১৬৮°০৪'পশ্চিম ), ১২ জুন থেকে ১ জুলাই পর্যন্ত এটি ঘটে থাকে।

রাশিয়ার ফ্রাঞ্জ জোসেফ ল্যান্ড অঞ্চলটিতে ২৭ নভেম্বর থেকে ১৫ জানুয়ারি নটিক্যাল মেরু নিশি দেখা যায়। এই জায়গার একেবারে বিপরীত প্রান্তে (৮১°দক্ষিণ, ১২৫°পশ্চিম), ২৫ মে থেকে ১৭ জুলাই পর্যন্ত এটি ঘটে থাকে।

জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক মেরু নিশি[সম্পাদনা]

জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক মেরু নিশি হলো অব্যাহত রাতের এমন একটি সময় যেখানে কোনও জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক গোধূলি থাকে না। জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক গোধূলিটি তখন ঘটে যখন সূর্য দিগন্তের চেয়ে ১২ থেকে ১৮ ডিগ্রির নিচে থাকে এবং সূর্য তার চেয়েও নিচে থাকলে জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক নিশি ঘটে। তাই, জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক মেরু নিশি ৮৪°৩৪' এর উপরে অক্ষাংশের মধ্যে সীমাবদ্ধ, যা মেরু বৃত্তের মধ্যে ঠিক ১৮° বা মেরু থেকে ৫.৫°। জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক মেরু নিশির সময় যে নক্ষত্রগুলো খালি চোখে অদৃশ্যমান সেগুলো পুরো দিন জুড়ে দৃশ্যমান হয়। সূর্য দিগন্তের নিচে ১৮° থেকে ২৩°২৬’এর মধ্যে থাকলে এটি ঘটে। এই অবস্থা মেরুতে প্রায় ১১ সপ্তাহ স্থায়ী হয়।

দক্ষিণ মেরু, অ্যান্টার্কটিকায় এটি ১১ মে থেকে ১ আগস্ট পর্যন্ত সংঘটিত হয়।[৪]

উত্তর মেরুতে এটি ১৩ নভেম্বর থেকে ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সংঘটিত হয়।[৫][৬]

মেরু সূর্য চক্র[সম্পাদনা]

উত্তর মেরু বা দক্ষিণ মেরুতে দিগন্তের উপরে সূর্যের সর্বোচ্চ অবস্থানের সময়কাল থেকে দিগন্তের উপরে সূর্যের সর্বোচ্চ অবস্থানের পরবর্তী সময়কালকে যদি ''দিন'' হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা হয়, তবে ''মেরু দিনের'' সময়কাল এক বছর হবে।[৭] অর্থাৎ, মেরু অঞ্চলে সূর্যকে এক বছর পর পর দিগন্ত থেকে সর্বোচ্চ অবস্থানে দেখা যায়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

নিশীথ সূর্য

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Burn, Chris। The Polar Night (PDF)। The Aurora Research Institute। সংগ্রহের তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  2. "Time and Date.com - Alert, Nunavut, Canada"। Time and Date.com। সংগ্রহের তারিখ মে ১৪, ২০১৯ 
  3. "Time and Date.com - Oodap Qeqertaa, Greenland"। Time and Date.com। সংগ্রহের তারিখ মে ১৬, ২০১৯ 
  4. "Time and Date.com - South Pole, Antarctica"। Time and Date.com। সংগ্রহের তারিখ জুন ১, ২০১৯ 
  5. Rao, Joe (২১ সেপ্টেম্বর ২০১০)। "The Myth of Arctic Daylight and Darkness Exposed"Live Science। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০১৭ 
  6. "Time and Date.com - North Pole"। Time and Date.com। সংগ্রহের তারিখ মে ৩১, ২০১৯ 
  7. NASA: The Sun and Seasons NASA. (See last paragraph, section 164.) By David Stern. Last updated Sept. 17, 2004. Downloaded Feb. 17, 2017.

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]