মেইতেই লিপি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মেইতেই ময়েক
ꯃꯤꯇꯩ ꯃꯌꯦꯛ
Meithei manuscript, a Indian language.jpg
ধরন
আবুগিদা
ভাষাসমূহমণিপুরী ভাষা
লিখনাভিমুখবাম থেকে ডান
আইএসও ১৫৯২৪Mtei, 337
ইউনিকোড উপনাম
Meetei Mayek

মেইতেই লিপি বা মেইতেই ময়েক মণিপুরে প্রচলিত মেইতেই ভাষা (মণিপুরী ভাষা) লিখতে ব্যবহার করা হয়। মেইতেই ময়েক হচ্ছে একপ্রকারের আবুগিদা লিখন পদ্ধতি। ১৮শ শতক থেকে এই লিপির প্রচলন ছিল যদিও তার পরবর্তী শতকে বাংলা লিপি এর স্থান নৈয়। বর্তমানে এই লিপির পুনরুদ্ধার করা হয়েছে এবং মেইতেই ভাষা লেখার জন্য সরকারিভাবে এর ব্যবহার করা হয়।

মেইতেই লিপিতে পনেরটি ব্যঞ্জনবর্ণ এবং তার সাথে তিনটি স্বরবর্ণ মেইতেই ভাষার সমস্ত শব্দ লেখার জন্য ব্যবহার করা হয়। অন্য নয়টি ব্যঞ্জনবর্ণ ভারতীয় লিপিসমূহ থেকে ব্যবহারের জন্য ধার করা হয়েছে। লিপিটিতে সাতটি স্বরবর্ণের চিহ্ন এবং একটা ব্যঞ্জনবর্ণের চিহ্নও (/ŋ/) ব্যবহৃত হয়।

মেইতেই লিপির এক বিশেষ বৈশিষ্ট্য হল যে বর্ণসমূহের নামকরণের জন্য শরীরের অংগসমূহের নামের ব্যবহার। প্ৰতিটি বর্ণের নাম মেইতেই ভাষার মানব দেহের একটি অংগের নামে রাখা হয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, প্ৰথম বৰ্ণ "কক্"-এর অর্থ হল মাথা; দ্বিতীয় বর্ণ "চাম" মানে চুল; তৃতীয় বর্ণ "লাই" মানে কপাল, ইত্যাদি।

ইউনিকোড[সম্পাদনা]

ইউনিকোডের ২০০৯ সালের অক্টোবরে প্রকাশিত ৫.২ সংস্করণে মৈতৈ লিপিকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

ইউনিকোড ব্লক[সম্পাদনা]

মেইতেই লিপির ইউনিকোড ব্লকটি মেইতেই ময়েক নামে পরিচিত এবং এটি U+ABC0 থেকে U+ABFF কোড বিন্দু পর্যন্ত বিস্তৃত।

মেইতেই লিপিতে ঐতিহাসিক ভাবে ব্যবহৃত চিহ্নগুলি মেইতেই ময়েক এক্সটেন্সন ব্লকে U+AAE0 থেকে U+AAFF পর্যন্ত অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

টেমপ্লেট:Unicode chart Meetei Mayek টেমপ্লেট:Unicode chart Meetei Mayek Extensions

তথ্যসূত্ৰ[সম্পাদনা]

  • Chelliah, Shobhana L. (1997). A grammar of Meithei. Berlin: Mouton de Gruyter. ISBN 0-19-564331-3.
  • Chelliah, Shobhana L. (2002). Early Meithei manuscripts. In C. I. Beckwith (Ed.), Medieval Tibeto-Burman languages: PIATS 2000: Tibetan studies: Proceedings of the ninth seminar of the International Association of Tibetan Studies, Leiden 2000 (pp. 59–71). Leiden, Netherlands: Brill.
  • Chelliah, Shobhana L. (2002). A glossary of 39 basic words in archaic and modern Meithei. In C. I. Beckwith (Ed.), Medieval Tibeto-Burman languages: PIATS 2000: Tibetan studies: Proceedings of the ninth seminar of the International Association of Tibetan Studies, Leiden 2000 (pp. 189–190). Leiden, Netherlands: Brill.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]