আর. মাধবন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(মাধবন থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আর. মাধবন
Madhavan Saala Khadoos (cropped).jpg
২০১৬ সালে মাধবন
জন্ম
মাধবন বালাজী রঙ্গনাথান

(1970-06-01) ১ জুন ১৯৭০ (বয়স ৪৯)
জাতিসত্তাতামিল জাতি
পেশাঅভিনেতা, লেখক, প্রযোজক
কার্যকাল১৯৯৪ - বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীসারিতা বিরজে (১৯৯৯ - বর্তমান)

রঙ্গনাথান মাধবন (জন্ম: ১ জুন ১৯৭০) হচ্ছেন একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা, চলচ্চিত্র-কাহিনী লেখক এবং চলচ্চিত্র প্রযোজক। তিনি জনপ্রিয়ভাবে আর. মাধবন বা শুধু মাধবন নামে পরিচিত। মাধবন চারটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ এবং একটি 'তামিলনাড়ু রাজ্য চলচ্চিত্র পুরষ্কার' পেয়েছেন। তিনি ভারতের অন্যতম অভিনেতা যিনি ভারতের একাধিক ভাষার চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন, যদিও তিনি মূলত একজন তামিল চলচ্চিত্রাভিনেতা।[১][২][৩][৪]

মাধবন তার অভিনয় জীবন শুরু করেন বিভিন্ন টেলিভিশন নাটকে অতিথি চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে, এর মধ্যে তিনি জি টিভিতে প্রচারিত বানেগি আপনি বাত (১৯৯৬) তে অভিনয় করেন। এভাবে অনেক নাটক এবং বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করার পর মাধবন তামিল চলচ্চিত্র শিল্পে কাজ করার সুযোগ পেয়ে যান মণি রত্নমের দ্বারা, মণি তাকে তার আলাইপায়ুদে চলচ্চিত্রে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয়ের প্রস্তাব দেন আর মাধবন রাজী হয়ে যান। পরের বছর তার গৌতম মেননের পরিচালনায় তামিল চলচ্চিত্র মিন্নালে মুক্তি পায় আবার ঐ একই বছর তার এই চলচ্চিত্রের হিন্দি সংস্করণ র‍্যাহনা হে তেরে দিল মে মুক্তি পায়। এছাড়া মাধবন রং দে বাসন্তী (২০০৬) এবং থ্রী ইডিয়ট্স (২০০৯) এর মত কিংবদন্তী হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছেন যেখানে তার সঙ্গে আমির খানও ছিলেন।

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

পূর্ব জীবন[সম্পাদনা]

মাধবনের জন্ম ১৯৭০ সালের ১ জুন বিহার প্রদেশের জামশেদপুরএ, এই জামশেদপুর এখন ঝাড়খণ্ড প্রদেশের অধীনে। মাধবন একটি তামিল পরিবারে জন্মেছিলেন, তার বাবা রঙ্গনাথান টাটা স্টিলের ব্যবস্থাপনা নির্বাহী ছিলেন এবং মা সরোজা 'ব্যাংক অব ইন্ডিয়া'র একজন ব্যবস্থাপক ছিলেন। মাধবনের ছোটো বোন দেবিকা সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে কাজ করেন।[৫] বিহার প্রদেশে থাকা সত্ত্বেও মাধবন পরিবার থেকে তামিল ভাষা শিখেই বড় হয়েছিলেন।[৬]

১৯৮৮ সালে মাধবন কোলাপুরের রাজারাম কলেজ থেকে ভারতকে বিদেশে উপস্থাপন করার জন্য সাংস্কৃতিক রাষ্ট্রদূতের একটি বৃত্তি পেয়েছিলেন এবং রোটারী ইন্টারন্যাশনাল এর সাথে একটি পরিবর্তন প্রকল্পের অংশ হিসেবে তিনি কানাডার স্লেটলার শহরে এক বছর থাকার সুযোগ পেয়েছিলেন। এরপর মাধবন কোলাপুরে ফিরে এসে পুনরায় পড়াশোনায় মনোনিবেশ করেন এবং পরে প্রকৌশলে ডিগ্রী নিয়ে পড়াশোনা শেষ করেন। কলেজে পড়াকালীন মাধবন সহ-শিক্ষা কার্যক্রমের সামরিক প্রশিক্ষণে অংশ নিয়েছিলেন এবং ২২ বছর বয়সে তাকে মহারাষ্ট্র প্রদেশের 'নেতা ক্যাডেট' হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছিলো, তিনি এর মাধ্যমে আরো সাতজন ক্যাডেটের সঙ্গে ইংল্যান্ড যাবার সুযোগ পেয়েছিলেন।[৭] ব্রিটিশ সামরিক বাহিনীকে খুব কাছ থেকে দেখার সুযোগ পেয়েছিলেন মাধবন, তিনি ভারতীয় সামরিক বাহিনীতে যোগ দেবেন বলে মনস্থির করেন।[৮] ভারতে এসে তিনি সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে মন খারাপ করেন কারণ সামরিক বাহিনীতে যোগদানের বয়স সর্বোচ্চ একুশ বছর ছিলো। বিষণ্ণ মাধবন পরে কোলাপুরেই জনসম্মুখে বক্তৃতা দেওয়া বিষয়ক প্রশিক্ষণ করেন, এছাড়াও তিনি ব্যক্তিত্ব উন্নয়নের প্রশিক্ষণও করা শুরু করেন। এরপর তিনি কিষিণচন্দ চেল্লারাম কলেজ, মুম্বাইতে পাবলিক স্পিকিং এ মাস্টার্স করার জন্য ভর্তি হন। এরপর মাধবন 'জনসম্মুখে বক্তৃতা ভারত' প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন এবং জাপান যান, টোকিওতে তিনি তরুণ ব্যবসায়ী সভায় ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন।[৯] মুম্বাইতে থাকাকালীন মাধবন মডেলিং করার সিদ্ধান্ত নেন।[৭]

অভিনয় জীবন[সম্পাদনা]

পূর্ব কাজ[সম্পাদনা]

১৯৯৬ সালের শুরুর দিকে সন্তোষ সিভান পরিচালিত একটি স্যান্ডেলউড ট্যাল্কের বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেন মাধবন, সন্তোষ পরে মাধবনের নাম মণি রত্নম এর কাছে সুপারিশ করেছিলেন, ইরুভার (১৯৯৭) চলচ্চিত্রে একটি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মাধবনকে দিয়ে একটি স্ক্রীন টেস্ট করাতে চেয়েছিলেন সন্তোষ। মাধবন চলচ্চিত্রটির 'তামিলসেলভান' নামক চরিত্রের জন্য অডিশন দেন এবং পাশ করেন, মণি রত্নম এরপর বলেন যে "মাধবন অনেক ইয়াং সেজন্য তাকে এই গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে নেওয়া যাচ্ছেনা"।[১০][১১]চলচ্চিত্রের এই অডিশন দেওয়ার আগে মাধবন মুম্বাইয়ের লোখান্ডওয়ালাতে একদিন হাঁটছিলেন এবং তখনই তাকে একজন টিভি এক্সিকিউটিভ দেখে পছন্দ করে ফেলেন, মাধবনকে হিন্দি টেলিভিশন সিরিয়ালে অভিনয়ের জন্য লোকটি নিয়ে নেন, মাধবন ইউল লাভ স্টোরিস এ প্রথম অভিনয় করেন একজন ধোঁকাবাজের চরিত্রে। জি টিভির বানেগি আপনি বাত এবং ঘর জামাইতে মাধবন মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন, ছায়া নাটকে শেখর চরিত্রে অভিনয় করে তিনি অনেক পরিচিত হয়ে গিয়েছিলেন। জি টিভি ছাড়াও মাধবন 'সি হকস' (ডিডিতে প্রচারিত) নামক টিভি সিরিয়ালে একটি জাহাজের ক্যাপ্টেন হিসেবে অভিনয় করেছিলেন, ইয়ে কাহা আ গায়ে হাম নামের একটি নাটকে তিনি একজন অভিযুক্ত চরিত্রে অভিনয় করেন এবং টোল মোল কে বোল নামক একটি অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থাপক হিসেবে ছিলেন।[১২][১৩] মাধবন অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ছিলো ইস রাত কি সুবাহ নেহি (১৯৯৬) যেখানে তিনি একেবারেই ছোটোখাটো একটি রোলে অভিনয় করেন, তার রোলটি ছিলো একজন বার গায়কের।[১৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "R Madhavan signs up with Atul Kasbekar's Bling Entertainment"। Business of Cinema। ২০০৯। ১ ডিসেম্বর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  2. Sharma, Smrity (১৩ নভেম্বর ২০১০)। "Surya, Vikram need to learn Hindi: Madhavan"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  3. "I have no insecurites: R Madhavan on 'Saala Khadoos', 'Tanu Weds Manu Returns' and Kangana"। FirstPost। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৫ 
  4. "'Tanu Weds Manu Returns' Box Office Collection: Will Kangana-Madhavan Starrer Cross ₹150 Crore and Beat Salman's Movie Record by 6th Weekend?"। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৫ 
  5. Rangarajan, Malathi (২০০৪)। "He loves challenges"The Hindu। ১২ নভেম্বর ২০০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০০৪ 
  6. Jha, Subhash K. (২০০৫)। "He loves challenges"। Nowrunning.com। ৯ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  7. Gupta, Priya K. (২০১৫)। "get along with people who get along with my wife: Maddy"Times of India। ২৩ মে ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৫ 
  8. Jain, Priyanka (২০০৬)। "Madhavan, the remote control pilot"Rediff। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৬ 
  9. Rangaswamy, Hema। "City's Latest Heart Throb"। Chennaibest.com। ৪ মার্চ ২০০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০০১ 
  10. Gliteratti (1996)। "A Close Shave"Outlook India। 23 October 2010 তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ 24 July 1996  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  11. Ganapati, Priya (2000)। "People remember scenes, not episodes"Rediff। 9 July 2012 তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ 8 March 2000  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  12. site admin (১৯৯৭-০৬-১৬)। "The rising stars"। Indiatoday.in। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-২২ 
  13. Express News Service (1998)। "The man who acts Pricey."The Indian Express। 29 September 2007 তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ 11 August 1998  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  14. "'Manu' Mania: R. Madhavan Turns 42!"। ১১ জুন ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]