রোটারী ইন্টারন্যাশনাল

স্থানাঙ্ক: ৪২°০২′৪৫″ উত্তর ৮৭°৪০′৫৭″ পশ্চিম / ৪২.০৪৫৮২৬° উত্তর ৮৭.৬৮২৩৯৭° পশ্চিম / 42.045826; -87.682397
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রোটারী ইন্টারন্যাশনাল
রোটারী ইন্টারন্যাশনালের লোগো.svg
নীতিবাক্যনিজের উপরে সেবা
গঠিত১৯০৫; ১১৬ বছর আগে (1905)
ধরনসেবামূলক ক্লাব
সদরদপ্তরইভানস্টন, ইলিনয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
অবস্থান
  • বৈশ্বিক
সদস্যপদ
১.২২ মিলিয়ন
দাপ্তরিক ভাষা
ইংরেজি, পর্তুগীজ, ইতালীয়, ফরাসী, স্পেনিশ, জার্মান, কোরিয়ানজাপানিজ
প্রেসিডেন্ট
কে.আর রাভিন্দ্রন (২০১৫-২০১৬)
মূল ব্যক্তিত্ব
পল পি. হ্যারিস (প্রতিষ্ঠাতা)
ওয়েবসাইটwww.rotary.org

রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ব্যবসায়িক ও পেশাদার ব্যক্তিদের নিয়ে গড়ে উঠা বিশ্বব্যাপী সেবামূলক সংগঠন। উচ্চস্তরের মানদণ্ড, সমাজ সেবা ও আন্তর্জাতিক বোঝাপড়ায় এ সংগঠনের ভূমিকা অপরিসীম। প্রত্যেক ব্যবসায়িক ও পেশাদার ক্লাব থেকে একজন ব্যক্তি রোটারী ক্লাবের সদস্য হয়ে থাকেন। শিকাগোর মার্কিন অ্যাটর্নি পল পি. হ্যারিস ১৯০৫ সালে এ সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন যা বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানরূপে স্বীকৃত। প্রাতিষ্ঠানিক ভিত্তি, ব্যবসায় ও পেশাদারী পর্যায়ে উচ্চ নৈতিক মূল্যবোধ গঠন এবং বিশ্বব্যাপী ফেলোশীপ প্রদানের মহান ব্রত নিয়ে আদর্শ সেবাপ্রদানকল্পে এ সংগঠনটি গঠন করেন। প্রতিষ্ঠাকালীন সময়েই এ সংগঠনের সদস্যপদের জন্য সীমারেখা নির্দিষ্ট করে যান। একবিংশ শতকের শুরুতে বিশ্বের দুই শতাধিক দেশ ও ভৌগোলিক এলাকায় ১.২২ মিলিয়নেরও অধিক সদস্য রয়েছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয়িস অঙ্গরাজ্যের এভানস্টোনে এর সদর দফতর অবস্থিত। ঘূর্ণায়মান পদ্ধতিতে সদস্যদের কার্যালয়ে সভা অনুষ্ঠিত হয় বিধায় এর নাম রোটারী রাখা হয়েছে। শুরুতে এটি ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব রোটারী ক্লাবস নামে পরিচিত ছিল। ১৯২২ সালে এর নামকরণ করা হয় রোটারী ইন্টারন্যাশনাল। কিন্তু বিশ্বের অন্যান্য দেশে এ সংগঠনটি রোটারী ক্লাব নামে পরিচিত। বিভিন্ন জনকল্যাণমূখী সেবামূলক প্রকল্প গ্রহণের পাশাপাশি ১৯২৮ সালে রোটারী ফাউন্ডেশন গঠন করা হয়। ফাউন্ডেশনের অর্থায়ণে বিদেশে পড়াশোনার জন্য বৃত্তি, মানবধর্মী প্রকল্পে অর্থবরাদ্দ এবং রোটারীয়ানদেরকে বিদেশ সফরে নিয়ে যাওয়া হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]