ভারতের অন্তর্বর্তী সরকার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভারতের অন্তর্বর্তী সরকার
ব্রিটিশ ভারত-এর মন্ত্রিসভা
Nehru with members of Interim gov't faction leaving Viceroy's home after Swearing in.jpg
২শে সেপ্টেম্বর ১৯৪৬-এ শপথ গ্রহণের পর অন্তর্বর্তী সরকারী দলের সদস্যদের সঙ্গে নেহেরু ভাইসরয়ের হাউস ত্যাগ করেন
গঠনের তারিখ২ সেপ্টেম্বর ১৯৪৬ (1946-09-02)
বিলুপ্তির তারিখ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ (1947-08-15)
ব্যক্তি ও সংস্থা
রাষ্ট্রপ্রধানষষ্ঠ জর্জ,
সম্রাট
সরকারপ্রধানজওহরলাল নেহেরু (কার্যনির্বাহী পরিষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট),
সরকার প্রধান
মন্ত্রী সংখ্যা১৫
সদস্য দলগুলি
আইনসভায় অবস্থাজোট
ইতিহাস
পরবর্তী

ভারতের অস্থায়ী সরকার নামে পরিচিত ভারতের অন্তর্বর্তী সরকার ২ সেপ্টেম্বর ১৯৪৬ সালে গঠিত হয়েছিল[১] যা ভারতের নবনির্বাচিত গণপরিষদ থেকে ব্রিটিশ ভারতের স্বাধীনতার উত্তরণে সহায়তা করার দায়িত্ব ছিল। এটি ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ সাল ভারতের স্বাধীনতার (ও বিভাজন) তারিখ ও পাকিস্তান সৃষ্টি পর্যন্ত বহাল ছিল।[২][৩][৪]

গঠন[সম্পাদনা]

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সমাপ্তির পর ভারতবর্ষে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ ভারত ছাড়ো আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী সমস্ত রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি দেয়। দীর্ঘদিন ধরে স্বশাসনের জন্য লড়াই করা ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস, মুসলিম লীগের মতো একটি গণপরিষদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে সম্মত হয়েছিল। ক্লেমেন্ট অ্যাটলির নবনির্বাচিত সরকার ১৯৪৬ সালের ক্যাবিনেট মিশনকে ভারতে একটি সরকার গঠনের প্রস্তাবনা তৈরি করতে প্রেরণ করে যা একটি স্বাধীন ভারতে নেতৃত্ব দেবে।[৪]

গণপরিষদের নির্বাচন সরাসরি নির্বাচন ছিল না, কারণ প্রতিটি প্রাদেশিক আইনসভা থেকে সদস্যরা নির্বাচিত হয়েছিল। এই অনুষ্ঠানে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন জিতেছে প্রায় ৬৯ শতাংশ যার মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দু ভোটার রয়েছে এমন এলাকার প্রায় প্রতিটি আসন। ব্রিটিশ ভারতের এগারোটি প্রদেশের মধ্যে আটটিতে কংগ্রেসের স্পষ্ট সংখ্যাগরিষ্ঠতা ছিল।[৫] মুসলিম ভোটারদের জন্য বরাদ্দকৃত আসনে মুসলিম লীগ জয়লাভ করে।

ভাইসরয়ের কার্যনির্বাহী পরিষদ[সম্পাদনা]

ভাইসরয়ের কার্যনির্বাহী পরিষদ অন্তর্বর্তী সরকারের নির্বাহী শাখায় পরিণত হয়। মূলত ভারতের ভাইসরয়ের নেতৃত্বে এটিকে মন্ত্রী পরিষদে রূপান্তরিত করা হয়েছিল, পরিষদের ভাইস-প্রেসিডেন্টকে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা দেওয়া হয়েছিল, এই পদটি কংগ্রেস নেতা জওহরলাল নেহেরুর অধীনে ছিল। স্বাধীনতার পর ভাইসরয় ব্যতীত সকল সদস্যই ভারতীয় হবেন, আগস্টে গভর্নর-জেনারেল, লর্ড মাউন্টব্যাটেন, যিনি শুধুমাত্র একটি আনুষ্ঠানিক পদে অধিষ্ঠিত হবেন, এবং ভারতের সর্বাধিনায়ক,[৪] স্যার ক্লদ অচিনলেক, স্বাধীনতার পর জেনারেল স্যার রব লকহার্ট দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়।

প্রবীণ কংগ্রেস নেতা বল্লভভাই পটেল পরিষদের স্বরাষ্ট্র দপ্তর, তথ্য ও সম্প্রচার বিভাগের প্রধান নামক দ্বিতীয় সবচেয়ে শক্তিশালী পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।[৬] শিখ নেতা বলদেব সিং প্রতিরক্ষা বিভাগের দায়িত্বে ছিলেন ও চক্রবর্তী রাজাগোপালাচারীকে শিক্ষা ও কলা বিভাগের প্রধান হিসেবে নাম দেওয়া হয়েছিল।[৬] আসফ আলী, একজন মুসলিম কংগ্রেস নেতা, রেলওয়ে ও পরিবহন বিভাগের প্রধান ছিলেন। তফসিলি জাতির নেতা জগজীবন রাম শ্রম বিভাগের প্রধান ছিলেন, রাজেন্দ্র প্রসাদ খাদ্য ও কৃষি বিভাগের প্রধান ও জন মাথাই শিল্প ও সরবরাহ বিভাগের প্রধান ছিলেন।[৬]

মুসলিম লীগ অন্তর্বর্তী সরকারে যোগদানের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ র‍্যাংকিং লীগ রাজনীতিবিদ লিয়াকত আলি খান অর্থ বিভাগের প্রধান হন। আব্দুর রব নিশতার ডাক ও বিমান বিভাগের প্রধান এবং ইবরাহিম ইসমাইল চুন্দ্রিগড় বাণিজ্য বিভাগের প্রধান ছিলেন।[৬] লীগ আইন বিভাগের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য একজন তফসিলি জাতি হিন্দু রাজনীতিবিদ যোগেন্দ্রনাথ মণ্ডলকে মনোনীত করেছিল।[৬]

ভারতের অন্তর্বর্তী সরকারের মন্ত্রিসভা[সম্পাদনা]

প্রথম অন্তর্বর্তী মন্ত্রিসভা[সম্পাদনা]

দপ্তর নাম পার্টি
ভাইসরয় ও ভারতের গভর্নর জেনারেল
কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি
ভিসকাউন্ট ওয়েভেল
সেনাপ্রধান স্যার ক্লদ অচিনলেক
কার্যনির্বাহী পরিষদের সহ-সভাপতি মো
বৈদেশিক বিষয় ও কমনওয়েলথ সম্পর্ক
জওহরলাল নেহেরু ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
স্বরাষ্ট্র
তথ্য ও সম্প্রচার
বল্লভভাই পটেল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
কৃষি এবং খাদ্য রাজেন্দ্র প্রসাদ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
কলা, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সি. রাজাগোপালাচারী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
বাণিজ্য সিএইচ ভাবা ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
প্রতিরক্ষা বলদেব সিং ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
অর্থায়ন জন মাথাই ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
শিল্প ও সরবরাহ সি. রাজাগোপালাচারী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
শ্রম জগজীবন রাম ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
আইন সৈয়দ আলী জহির ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
রেলওয়ে এবং যোগাযোগ
পোস্ট ও বিমান
আসাফ আলী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
কর্ম, খনি ও বিদ্যুৎ শরৎচন্দ্র বসু ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস

পুনর্গঠিত মন্ত্রিসভা[সম্পাদনা]

দপ্তর নাম পার্টি
ভাইসরয় এবং ভারতের গভর্নর জেনারেল
কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি
দ্য ভিসকাউন্ট ওয়েভেল (১৫ অক্টোবর ১৯৪৬ - ২০ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৭)
বার্মার ভিসকাউন্ট মাউন্টব্যাটেন (২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৭ -)
সেনাপ্রধান স্যার ক্লদ অচিনলেক
কার্যনির্বাহী পরিষদের সহ-সভাপতি
বৈদেশিক বিষয় ও কমনওয়েলথ সম্পর্ক
জওহরলাল নেহেরু ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
স্বরাষ্ট্র
তথ্য ও সম্প্রচার
বল্লভভাই পটেল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
কৃষি ও খাদ্য রাজেন্দ্র প্রসাদ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
বাণিজ্য ইবরাহিম ইসমাইল চুন্দ্রিগড় নিখিল ভারত মুসলিম লীগ
প্রতিরক্ষা বলদেব সিং ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
অর্থায়ন লিয়াকত আলি খান নিখিল ভারত মুসলিম লীগ
শিল্প ও সরবরাহ জন মাথাই ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
শিক্ষা সি. রাজাগোপালাচারী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
স্বাস্থ্য গজানফর আলী খান নিখিল ভারত মুসলিম লীগ
শ্রম জগজীবন রাম ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
আইন যোগেন্দ্রনাথ মণ্ডল নিখিল ভারত মুসলিম লীগ
রেলওয়ে এবং যোগাযোগ
পোস্ট ও বিমান
আব্দুর রব নিশতার নিখিল ভারত মুসলিম লীগ
কর্ম, খনি ও বিদ্যুৎ সিএইচ ভাবা ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
উপরেরটি হল ১৫ অক্টোবর ১৯৪৬ সালের পুনর্গঠিত মন্ত্রিসভা, যখন মুসলিম লীগ অন্তর্বর্তী সরকারে অংশগ্রহণের বর্জন প্রত্যাহার করে।[৭][৮][৯]

কার্যক্রম[সম্পাদনা]

যদিও ১৯৪৭ সালের আগস্ট পর্যন্ত ব্রিটিশ ভারত যুক্তরাজ্যের সার্বভৌমত্বের অধীনে ছিল, অন্তর্বর্তী সরকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ অন্যান্য দেশের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের জন্য এগিয়ে যায়।[৩] ইতিমধ্যে যেখান থেকে অন্তর্বর্তী সরকার গঠিত হয়েছিল তথা গণপরিষদ স্বাধীন ভারতের জন্য একটি সংবিধান প্রণয়নের কাজ শুরু করে।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "India's first government was formed today: All you need to know" 
  2. Vidya Dhar Mahajan (১৯৭১)। Constitutional history of India, including the nationalist movement। S. Chand। পৃষ্ঠা 200–10। 
  3. "Office of the Historian – Countries – India"U.S. State Department। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৮-১৬ "Office of the Historian – Countries – India". U.S. State Department. Retrieved 2009-08-16.
  4. Radhey Shyam Chaurasia (২০০২)। History of Modern India, 1707 A. D. to 2000 A. D.। Atlantic Publishers & Distributors। পৃষ্ঠা 300–400। আইএসবিএন 978-81-269-0085-5 
  5. (Judd 2004)
  6. John F. Riddick (২০০৬)। The History of British India: A Chronology। Greenwood Publishing Group। পৃষ্ঠা 100–150। আইএসবিএন 978-0-313-32280-8 
  7. V. Krishna Ananth. India Since Independence: Making Sense of Indian Politics. Pearson Education India. 2010. pp 28–30.
  8. "Explained: When India's interim government was formed in 1946"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৯-০৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৩-১২ 
  9. Ankit, Rakesh (২০১৮-১২-১৩)। India and the Interregnum: Interim Government, September 1946–August 1947 (ইংরেজি ভাষায়)। Oxford University Press। আইএসবিএন 978-0-19-909560-5