বিশ্বদেব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বিশ্বদেব (সংস্কৃত: विश्वेदेवाः) হল বিভিন্ন বৈদিক দেবতাকে সামগ্রিকভাবে একত্রিত করা। গ্রিফিথের মতে, ঋগ্বেদে বেশ কয়েকটি স্তোত্র তাদের সম্বোধন করা হয়েছে।[১] ঋগ্বেদ ৩.৫৪.১৭ তাদেরকে ইন্দ্রের নেতৃত্বে সম্বোধন করে।

বিশ্বদেবগণ হলেন দেবতাদের সবচেয়ে ব্যাপক সমাবেশ। তারা এই উদ্বেগের উত্তর দেয় যে প্রশংসা থেকে কোনো দেবত্ব বাদ দেওয়া উচিত নয়।[২] মনুসংহিতা (৩, ৯০,১২১) অনুসারে বিশ্বদেবদের কাছে প্রতিদিন নৈবেদ্য করা উচিত। ব্রহ্মাপিতৃ তাদের হিমালয়ে যে কঠোর তপস্যা করেছিলেন তার পুরস্কার হিসেবে এই বিশেষাধিকারগুলি তাদের দেওয়া হয়েছিল।[৩]

ঋগ্বেদে দেবতাদের সংখ্যা অনেক, কিন্তু এঁরা সম্মিলিতভাবে কাজ করেন। এঁদের মিলিত দৈবশক্তি এক। বেদে দেবতা দুই অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে - প্রথম অর্থে দেবতাগণ সিদ্ধ ও অসংখ্য, এবং দ্বিতীয় অর্থে দেবতাগণ সিদ্ধ পুরুষের মিলিত শক্তি ও তারা এক। অনেক দেবতার মিলিত শক্তির নাম বিশ্বদেব বা ব্রহ্ম[৪]

বিশ্বদেবদের শ্রেণীবিভাগ[সম্পাদনা]

বিশ্বদেবগণ বৈদিক দেবতা। আক্ষরিক অর্থে শব্দটির অর্থ 'সমস্ত দেবতা'। সম্ভবত, প্রার্থনায় বিশেষভাবে উল্লেখ না করে অবশিষ্ট সমস্ত দেবতা, এই শব্দের অধীনে অন্তর্ভুক্ত করা বোঝানো হয়েছে। কিন্তু তারা ধীরে ধীরে আদিত্যগণ বা মরুতদের মতো নির্দিষ্ট গোষ্ঠী হিসাবে বিবর্তিত হয়েছে বলে মনে হয়। এই দেবতাগণ ঋত, নৈতিক আইনের রক্ষক। তারা তাদের ভক্তদের শত্রুদের ধ্বংস করে, মঙ্গলকে রক্ষা করে, শুভ আবাস দেয় এবং রাজাদের মতো নিয়ন্ত্রণ করে। তারা সবসময় তরুণ এবং সুদর্শন হয়। একনিষ্ঠ প্রণাম দ্বারা তারা সহজেই প্রসন্ন হয়।[৫]

পরবর্তী পৌরাণিক কাহিনী তাদের সাধারণত দশ হিসাবে বর্ণনা করে - বসু, সত্য, ক্রতু, দক্ষ, কাল, কাম, ধৃতি, কুরু (কৌরবদের পূর্বপুরুষ), পুরুর্বস ও মদ্রাবাস (আনন্দের কান্না)।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ralph Thomas Hotchkin Griffith, Hymns of the Rigveda (published 1889), Rigveda 1.3,1.89, 3.54-56, 4.55, 5.41-51, 6.49-52, 7.34-37, 39, 40, 42, 43, 8.27-30, 58, 83 10.31, 35, 36, 56, 57, 61-66, 92, 93, 100, 101, 109, 114, 126, 128, 137, 141, 157, 165, 181.
  2. Renou, Louis. L'Inde Classique, vol. 1, p. 328, Librairie d'Ameriqe et d'Orient. Paris 1947, reprinted 1985. আইএসবিএন ২-৭২০০-১০৩৫-৯.
  3. Monier Monier-Williams. A Sanskrit-English Dictionary, p.993, Bay Foreign Language Books, Ashford, Kent. 1899, reprinted 2003. আইএসবিএন ১-৮৭৩৭২২-০৯-৫.
  4. বিশ্বদেব, onushilon.org
  5. Viśvedevas By Swami Harshananda

উৎস[সম্পাদনা]