বাল দানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাল দানি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহেমচন্দ্র তুকারাম দানি
জন্ম২৪ মে, ১৯৩৩
দুধানি, মহারাষ্ট্র, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু১৯ ডিসেম্বর, ১৯৯৯
নাশিক, মহারাষ্ট্র, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম, অফ ব্রেক, লেগ ব্রেক
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার, কোচ, প্রশাসক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট১৩ নভেম্বর ১৯৫২ বনাম পাকিস্তান
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১১৬
রানের সংখ্যা - ৬,৪৭৬
ব্যাটিং গড় - ৪৪.৩৫
১০০/৫০ - ১৭/৩৪
সর্বোচ্চ রান - ১৭০*
বল করেছে ৬০ ১২,১৮৩
উইকেট ২০০
বোলিং গড় ১৯.০০ ২১.৯০
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ১/৯ ৭/৫০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৭৯/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১১ জানুয়ারি ২০২০

হেমচন্দ্র তুকারাম বাল দানি (জন্ম: ২৪ মে, ১৯৩৩ - মৃত্যু: ১৯ ডিসেম্বর, ১৯৯৯) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের মহারাষ্ট্রের দুধানি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার, কোচ ও প্রশাসক ছিলেন। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫২ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে মহারাষ্ট্র ও সার্ভিসেস দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতেন। ডানহাতে ব্যাটিং করার পাশাপাশি ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম, লেগ ব্রেক ও অফ ব্রেক বোলিংয়ে সিদ্ধহস্তের অধিকারী ছিলেন বাল দানি

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

নাশিকের রাংতা হাই স্কুলে বিদ্যালয় জীবন সম্পন্ন করেন। সমসাময়িককালের ক্রিকেটার বাপু নাদকর্নীও একই বিদ্যালয়ে পড়াশুনো সম্পন্ন করেছিলেন। বি.এ. (সম্মান) শ্রেণীতে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন মহারাষ্ট্রের মাধ্যমে শুরু করেন।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ১৭ সেঞ্চুরি করেন ও ২০০ উইকেট লাভ করেছিলেন। বেশ কয়েক বছর সার্ভিসেস দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। টেস্ট খেলোয়াড়ী জীবন থেকে প্রত্যাখ্যাত হবার পরই কেবল তিনি সুন্দর খেলা উপহার দিয়েছিলেন। ১৯৫৬ সালে ভারতীয় বিমানবাহিনীতে যোগদানের ফলে সার্ভিসেস দলের সদস্য হন।

১৯৫১-৫২ মৌসুম থেকে ১৯৭২-৭৩ মৌসুম পর্যন্ত বাল দানি’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। মূলতঃ ডানহাতে মাঝারিসারিতে ব্যাটিংয়ে নামতেন। খুব স্বল্পসংখ্যক ভারতীয় ক্রিকেটারদের ঘরোয়া ক্রিকেটে বাল দানি’র তুলনায় অল-রাউন্ডার হিসেবে সেরা ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করতে পেরেছিলেন। সহজাত প্রকৃতি ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে বাল দানি’র সুনাম ছিল। এছাড়াও তিনি মিডিয়াম পেস বল করতে পারতেন। খেলোয়াড়ী জীবনের শেষদিকে অফ ব্রেক ও লেগ ব্রেকের দিকে ঝুঁকে পড়েন।

দুই দশকেরও অধিক সময় সমগ্র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনে ৪৪.৫৪ গড়ে ৬,৪৫৯ রান তুলেছেন। তন্মধ্যে, ১৭টি সেঞ্চুরি ছিল তার। এছাড়াও, বল হাতে নিয়ে ২১.৯৭ গড়ে ১৯৮ উইকেট পেয়েছেন। রঞ্জী ট্রফিতে এ সাফল্যের হার অতি উচ্চ প্রকৃতির। ৪৮.০৫ গড়ে ১৫ সেঞ্চুরি সহযোগে ৪,৭৫৭ রান ও ১৯.১০ গড়ে ১৪৫ উইকেট লাভ করেন। এরজন্যে তাকে ৭৮টি খেলায় অংশগ্রহণ করতে হয়েছিল।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন বাল দানি। ১৩ নভেম্বর, ১৯৫২ তারিখে মুম্বইয়ে সফরকারী পাকিস্তান দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

১৯৫২-৫৩ মৌসুমে পাকিস্তান দল ভারত সফরে আসে। এ সফরেই তিনি তার একমাত্র টেস্টে অংশ নেন। ভারত দল মাত্র চার উইকেট হারিয়ে খেলায় জয় পায়। ফলশ্রুতিতে, বাল দানি ব্যাটিং করার কোন সুযোগ পাননি। তবে, ১০ ওভার বোলিং করে একটিমাত্র উইকেটের সন্ধান পেয়েছিলেন। নজর মোহাম্মদকে শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরৎ পাঠান। ঐ সময়ে তার বয়স ছিল মাত্র ১৯ বছর। ৪১ বছর বয়সী লালা অমরনাথ তার উদ্বোধনী বোলিং জুটি ছিলেন। ১৯৫৪-৫৫ মৌসুমে পাকিস্তান গমন করেন। তবে, কোন টেস্টে অংশ নেয়ার সৌভাগ্য হয়নি তার।

অবসর[সম্পাদনা]

খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর গ্রহণের পর ১৯৬৮ থেকে ১৯৭৫ সময়কালে জাতীয় দল নির্বাচকমণ্ডলীর সদস্যরূপে মনোনীত হয়েছিলেন। ১৯৮৯ থেকে ১৯৯৭ সময়কালে রঞ্জী ট্রফি প্রতিযোগিতায় মহারাষ্ট্র দলের ব্যবস্থাপক, দল নির্বাচক ও কোচের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। পুনেভিত্তিক দাতব্য সংস্থা স্নেহ সেবার সাথে জড়িত ছিলেন তিনি।

১৯৫৬ সালে ভারতীয় বিমানবাহিনীতে যোগদান করেন। এয়ার কমোডর পদে উন্নীত হন ও ১৯৮৭ সালে কর্মজীবন থেকে অবসর গ্রহণ করেন তিনি। ১৯ ডিসেম্বর, ১৯৯৯ তারিখে ৬৬ বছর বয়সে মহারাষ্ট্রের নাশিক এলাকায় বাল দানি’র দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]