ফিক্রে ক্রকওয়েল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফিক্রে ক্রকওয়েল
ফিক্রে ক্রকওয়েল.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামফিক্রে সালাসি ক্রকওয়েল
জন্ম(১৯৮৫-০৭-০৮)৮ জুলাই ১৯৮৫
বারমুডা
মৃত্যু২০ জুন ২০১৬(2016-06-20) (বয়স ৩০)
পেমব্রোক, বারমুডা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৭)
৬ এপ্রিল ২০০৯ বনাম কেনিয়া
শেষ ওডিআই৮ এপ্রিল ২০০৯ বনাম নেদারল্যান্ডস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ১৫
রানের সংখ্যা ৬৮ ৪৫ ২৩৭ ১৪২
ব্যাটিং গড় ৩৪.০০ ৭.৫০ ১৫.৮০ ২৮.৪০
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৪৫ ১৭ ৪৫ ৪৭
বল করেছে ৪২ ৪৮
উইকেট
বোলিং গড়
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং –/– ১/– ৮/– ৪/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৮ জুন ২০২০

ফিক্রে সালাসি ক্রকওয়েল (ইংরেজি: Fiqre Crockwell; জন্ম: ৮ জুলাই, ১৯৮৫ - মৃত্যু: ২০ জুন, ২০১৬) বারমুডায় জন্মগ্রহণকারী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। বারমুডা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ২০০৯ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে বারমুডার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

এছাড়াও, বারমুডা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে ব্যাটিং উদ্বোধন করতেন ফিক্রে ক্রকওয়েল[১]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০০৯ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত ফিক্রে ক্রকওয়েলের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন ফিক্রে ক্রকওয়েল। ৬ এপ্রিল, ২০০৯ তারিখে পচেফস্ট্রুমে কেনিয়া দলের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ৮ এপ্রিল, ২০০৯ তারিখে একই মাঠে নেদারল্যান্ডস দলের বিপক্ষে সর্বশেষ ওডিআইয়ে অংশ নেন তিনি।

অভিষেক ওডিআইয়ের পাশে আরও দুইটি খেলায় অংশ নেন। ওডিআই না হলেও সেগুলো লিস্ট এ ক্রিকেটের ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০০৯ সালের আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে তার দল যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি। কেনিয়ার বিপক্ষে ওডিআইয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রান তুলেছিলেন তিনি।[২]

বারমুডা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পক্ষে ফিক্রে ক্রকওয়েল খেলেন। ২০০৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত ক্রিকেট বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে ২৩ বছর বয়সী ফিক্রে ক্রকওয়েলের বড়দের দলে অভিষেক ঘটে। ব্যাটিং উদ্বোধনে নেমে ৩৬ রান সংগ্রহ করেন। ঐ খেলায় তার দল ডেনমার্কের বিপক্ষে নয় উইকেটে জয় তুলে নেয়।

একই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকৃত দুইটি ওডিআইয়ে অংশ নেন। কেনিয়া ও নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৪৫ ও ২৩ রান তুললেও উভয় দলের বিপক্ষেই তার দল পরাজয়বরণ করেছিল।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত ২০১২ সালের বিশ্ব টি২০ বাছাইপর্বে বারমুডার পক্ষে সর্বশেষ অংশ নেন। চার খেলায় ২৯.২৫ গড়ে ১১৭ রান তুলেন। জাতীয় দলের পক্ষে নিজস্ব শেষ খেলায় ব্যক্তিগত সেরা ৪৭ রান তুলে উগান্ডার বিপক্ষে দলকে জয় এনে দেন। ইন্ডিয়ানাপোলিসে অনুষ্ঠিত আইসিসি আমেরিকাস প্রথম বিভাগ টুয়েন্টি২০ চ্যাম্পিয়নশীপকে ঘিরে জ্যামাইকা সফরে প্রাথমিক তালিকায় তাকে রাখা হলেও ঐ প্রতিযোগিতায় তৃতীয় স্থান অধিকারী বারমুডা দলের ১৪ সদস্যের চূড়ান্ত তালিকায় তাকে রাখা হয়নি।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

স্থানীয় পর্যায়ে সেন্ট ডেভিডস কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন। এছাড়াও, ১৮৭২ সাল থেকে বারমুডা ক্রিকেটের ঘরোয়া আসরে প্রত্যেক গ্রীষ্মে কাপ ম্যাচ ছুটির দিনের খেলায় বেশ কয়েকবার সেন্ট জর্জেস দলের পক্ষে খেলেছেন।

ফিফা সনদপ্রাপ্ত রেফারি কার্লাইল ম্যাকনীল ইউজিন ক্রকওয়েল ও ফুটবলার মিকাইল ক্রিস্টোফার ক্রকওয়েল সম্পর্কে তার আত্মীয়।

২০ জুন, ২০১৬ তারিখে মাত্র ৩০ বছর বয়সে বারমুডার পার্শ্ববর্তী পেমব্রোক এলাকায় ফিক্রে ক্রকওয়েলেকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। রাত তিনটার অল্প কিছু সময় পূর্বে তিনি গুরুতর জখম হন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Whittaker, James (৮ এপ্রিল ২০০৯)। "BDA cricketers prepare for vital game"Bermuda Sun। সংগ্রহের তারিখ ২৯ এপ্রিল ২০০৯ 
  2. "Bermuda v Kenya in 2008/09"। CricketArchive। ৩ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ এপ্রিল ২০০৯ 
  3. Peter Della Pena (২১ জুন ২০১৬)। "Former Bermuda wicketkeeper Crockwell dies aged 30"। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]