প্রবেশদ্বার:লিনাক্স/নির্বাচিত নিবন্ধ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

নির্বাচিত নিবন্ধ ১

প্রবেশদ্বার:লিনাক্স/নির্বাচিত নিবন্ধ/১ লিনাক্স কার্নেল (ইংরেজি: Linux Kernel) একটি ওপেন সোর্স মনোলিথিক ইউনিক্স-সদৃশ কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেম কার্নেললিনাক্স পরিবারের অপারেটিং সিস্টেমগুলো এ কার্নেলের উপর ভিত্তি করে নির্মিত অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে ব্যবহার করে, এবং ঐতিহ্যবাহী কম্পিউটার সিস্টেম যথা-ব্যক্তিগত কম্পিউটার এবং সার্ভার(লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশন) হিসাবে, ও বিভিন্ন এম্বেডেড যন্ত্র যেমন রাউটার, বেতার এক্সেস পয়েন্ট, পিবিএক্স, সেটটপ বক্স, স্মার্ট টিভি উভয়েই লিনাক্স কার্নেল ব্যবহার করা হয়েছে। অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম লিনাক্স কার্নেল কর্তৃক সরবরাহকৃত সেবা ব্যবহার করে। যখন ডেস্কটপ কম্পিউটারে এ কার্নেলের ব্যবহারের পরিমাণ স্বল্প, লিনাক্স-ভিত্তিক অপারেটিং সিস্টেম মোবাইল থেকে মেইনফ্রেমসহ প্রায় কম্পিউটিঙের প্রতিটা বিভাগে নেতৃত্ব দিচ্ছে। , সবচেয়ে শক্তিশালী ৫০০টি সুপারকম্পিউটারের সবগুলোই লিনাক্স ব্যবহার করে।

নিজের ব্যক্তিগত কম্পিউটারে ব্যবহারের জন্যে কোন প্রকার আন্তঃপ্ল্যাটফরম উদ্দেশ্য ছাড়াই লিনাস টরভল্ডস কর্তৃক ১৯৯১ সালে প্রথম লিনাক্স কার্নেল নির্মিত হয়। কিন্তু সে সময় থেকে এটি বিশাল সংখ্যার কম্পিউটার স্থাপত্যকে সাপোর্ট দিয়ে এসেছে, এ সংখ্যা যেকোন কার্নেল বা অপারেটিং সিস্টেম থেকে বেশি। ডেভলপার ও ব্যবহারকারীদের লিনাক্স কার্নেল আকর্ষণ করতে লাগলো, যারা পরবর্তীতে এটিকে অন্যান্য ফ্রি সফটওয়্যার প্রকল্পের, উল্লেখযোগ্যভাবে গ্নু অপারেটিং সিস্টেমের, ভিত্তি হিসাবে গ্রহণ করেছে। লিনাক্স কার্নেল প্রায় ১,২০০ কোম্পানি থেকে ১২,০০০ ডেভলপারের অবদানে গড়ে উঠেছে। (সম্পূর্ণ নিবন্ধ...)

নির্বাচিত নিবন্ধ ২

প্রবেশদ্বার:লিনাক্স/নির্বাচিত নিবন্ধ/২

Logo-ubuntu no(r)-black orange-hex.svg

উবুন্টু একটি জনপ্রিয় ওপেন সোর্স কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেমলিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশন যেটি ডেবিয়ান লিনাক্সের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে। উবুন্টুর তিনটি দাপ্তরিক সংস্করণ রয়েছেঃ পিসির জন্যে উবুন্টু ডেস্কটপ, ক্লাউডসার্ভারের জন্যে উবুন্টু সার্ভার এবং ইন্টারনেট অব থিংসের জন্যে উবুন্টু কোর। উবুন্টুর নতুন সংস্করণ প্রতি ছয় মাস অন্তর প্রকাশ করা হয়, যেখানে দীর্ঘ সমর্থিত শাখাগুলো প্রতি দুই বছর অন্তর প্রকাশ করা হয়।

উবুন্টুর পেছনে রয়েছে ক্যানোনিকেল নামের একটি সংগঠন। ক্যানোনিকেল বিনামূল্যের নির্ভরযোগ্য নিরাপত্তা হালনাগাদ প্রদান করে প্রতিটি সংস্করণের সাথেই, প্রকাশের তারিখ থেকে একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত। উবুন্টুর সাথে সংযুক্ত প্রিমিয়াম সেবা বিক্রির মাধ্যমে ক্যানোনিকেল লিমিটেড মুনাফা অর্জন করে।

উবুন্টুতে তৈরি করা হয়েছে বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার প্যাকেজের উপর ভিত্তি করে। এর অধিকাংশই ফ্রি সফটওয়্যার লাইসেন্সের অধিনে প্রকাশিত। এই ধরনের সফটওয়্যার মুক্ত সফটওয়্যার নামে পরিচিত। তবে মূল অনুমতিপত্র হিসাবে ব্যবহার করা হয় গ্নু জিপিএল এবং গ্নু এলজিপিএল। এই অনুমতিপত্রে স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা থাকে যে ব্যবহারকারীরা এটি চালানো, নকল করা, বিতরণ করা, পরিবর্তন করা, পরিবর্ধন করা এবং এর উপর ভিত্তি করে নতুন কোন সফটওয়্যার প্রকাশের ব্যাপারে সম্পূর্ণ স্বাধীন। ক্যানোনিকাল লিমিটেড নামের যুক্তরাজ্য ভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠান উবুন্টুর প্রধান পৃষ্ঠপোষক। মার্ক শাটলওয়ার্থ নামের দক্ষিণ আফ্রিকান এক উদ্যোক্তা এই প্রতিষ্ঠঅনের মালিক। উবুন্টু ফ্রি এবং মুক্ত সফটওয়্যার হিসাবে বিতরণের উদ্দেশ্যে ক্যানোনিকাল কমিউনিটি ডেভলপারদের সহযোগীতা নিয়ে থাকে। উবুন্টু, অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে বিক্রি করে লাভবান না হয়ে উবুন্টু ভিত্তিক বিভিন্ন সেবা এবং পেশাদার মানের কারিগরি সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে মুনাফা লাভ করে।

ক্যানোনিকাল প্রতি ৬ মাস পরপর উবুন্টুর নতুন সংস্করণ প্রকাশ করে। সাধারণভাবে এই সংস্করণসমূহ ব্যবহার করার ক্ষেত্রে পরবর্তী ১৮ মাস পর্যন্ত সহযোগীতা করা হয়ে থাকে। নিরাপত্তা ত্রুটি,প্যাচ, সফটওয়্যার সমূহ এবং মূল অপারেটিং সিস্টেমের বাগ ইত্যাদি সংশোধন করা এবং সফটওয়্যার সমূহের ছোট হালনাগাদ সমূহ প্রকাশ করে। এলটিএসসংস্করণ সমূহ প্রতি দুই বছর পর পর প্রকাশ করা হয়ে থাকে এবং এর ডেক্সটপ সংস্করণ পরবর্তী তিন বছর এবং সার্ভার সংস্করণগুলো ব্যবহারে পরবর্তী পাঁচ বছর সহায়তা করা হতো, যদিও উবুন্টু ১২.০৪ থেকে ডেক্সটপ সংস্করণ এবং সার্ভার সংস্করণগুলো ব্যবহারে পরবর্তী পাঁচ বছর হালনাগাদসহ এবং অন্যান্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে । বর্তমানে উবুন্টুর সর্বশেষ সংস্করণ হল উবুন্টু ২০.০৪ (ফোকাল ফোসসা)। এটি প্রকাশ করা হয় ২৬ এপ্রিল, ২০১৮ তারিখে। (সম্পূর্ণ নিবন্ধ...)

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩

প্রবেশদ্বার:লিনাক্স/নির্বাচিত নিবন্ধ/৩

Debian-OpenLogo.svg
Debian

ডেবিয়ান পৃথিবী জুড়ে স্বেচ্ছাসেবকদের যৌথ প্রয়াস এর মধ্য দিয়ে একটি মুক্ত, সম্পূর্ণ অপারেটিং সিস্টেম তৈরির প্রকল্প। ডেবিয়ান লিনাক্স ১৯৯৩ সনে পারদিউ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আয়ান মারডক কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হয় যিনি ডেবিয়ান মেনিফেস্টোর প্রবর্তক। এ মেনিফেস্টোর মূল ভাবধারা ছিল এটি হবে এমন একটি অপারেটিং সিস্টেম যা উম্মুক্ত পদ্ধতির ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত হবে যেটি মূলত লিনাক্স এবং গ্নু এরই মূল স্পিরিট। তিনি নামটি প্রবর্তন করে তার মেয়েবন্ধু ডেবরা(পরবর্তীকালে স্ত্রী) এর নাম এবং তার নামের প্রথম অংশের সমন্বয়ে যার উচ্চারন হল ডেব-ই-এন।

ডেবিয়ান প্রকল্পটি প্রথমদিকে খুব ধীরগতিতে অগ্রসর হতে থাকে এবং সর্বপ্রথম ভার্সন ০.৯এক্স ভার্সন বের হয় ১৯৯৪ এবং ১৯৯৫ সালের দিকে। অন্য আর্কিটেকচারের জন্য রিলিজ দেয়া শুরু হয় ১৯৯৫ সালেই এবং ১৯৯৬ সালে ১.এক্স ভার্সন রিলিজ পায়। ১৯৯৬ সালে ব্রুস পেরেনস আয়ান মারডকের স্থালাভিষিক্ত হন প্রোজেক্ট লিডার হিসেবে। সহযোগী ইয়ান শুয়েজলার এর পরামর্শক্রমে তিনি ডেবিয়ান এর সামাজিক চুক্তির রূপরেখা এবং ডেবিয়ান উম্মুক্ত সফটওয়্যার নির্দেশনা প্রনয়নে বিশেষ ভূমিকা রাখেন যা ডিস্ট্রিবিউশনটির উন্নয়নে নতুন এক মৌলিক অঙ্গীকার হিসেবে স্বীকৃত হয়। তিনি এর সহযোগী সদস্য প্রতিষ্ঠান সৃষ্টির ব্যাপারে ও সচেতনতা বাড়াতে সাহায্য করেন।

ব্রুস পেরেনস ১৯৯৮ সালে glibc নির্ভর ডেবিয়ান-২.০ রিলিজের পূর্বেই এ প্রকল্প হতে অব্যাহতি নেন। এ সময়ে প্রকল্পের নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য উদ্যেগ নেয়া হয় এবং আরো দুটি ২.এক্স রিলিজ বের হয় যেখানে আরো বেশি প্যাকেজ এবং আরো বেশি আর্কিটেকচার সাপোর্ট অন্তর্ভুক্ত হয়। এ সময়েই APT কে প্রয়োগ করা হয় এবং ডেবিয়ান জিএনইউ/হার্ড, যেটি প্রথম নন-লিনাক্স কার্নেলে অর্ন্তভূক্ত হয়, তার ও ভালোভাবে অগ্রযাত্রা শুরু হয়। ১৯৯৯ সালে ডেবিয়ান লিনাক্স এর উপর ভিত্তি করে প্রথম ডিস্ট্রিবিউশন কোরেল লিনাক্স এবং স্টরমিক্স এর স্টর্ম লিনাক্স বের হয়। যদি ও এখন আর উন্নয়ন করা হয় না কিন্তু এ ডিস্ট্রিবিউশন দু’টিই ডেবিয়ান এর উপর ভিত্তি করে তৈরি প্রথম ডিস্ট্রিবিউশন হিসেবে স্বীকৃত। (সম্পূর্ণ নিবন্ধ...)

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪

প্রবেশদ্বার:লিনাক্স/নির্বাচিত নিবন্ধ/৪

Fedora logo (2021).svg

ফেডোরা একটি লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশন যা ফেডোরা প্রোজেক্ট এর দ্বারা নির্মিত ও আইবিএমের অধীনস্থ রেড হ্যাট এর পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে, এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সহায়তা প্রাপ্ত। ফেডোরা মুক্ত ও ওপেন সোর্স সকল হালানাগাদকৃত সফটওয়্যার সরবরাহ করে থাকে। ফেডোরা হল বাণিজ্যিক রেড হ্যাট এন্টারপ্রাইজ লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশন এবং পরবর্তীকালে সেন্টওএস -এর অপেক্ষাকৃত নতুন এবং হালনাগাদ সংস্করণ।

ফেডোরা ৩০ হতে, ফেডোরা পাঁচটি ভিন্ন সংস্করণে উপলব্ধ: ওয়ার্কস্টেশন(Workstation) ব্যক্তিগত কম্পিউটার এর জন্য, সার্ভার(Server) সার্ভারের জন্য, CoreOS - ক্লাউড কম্পিউটিং এর জন্য, সিলভারব্লু(Silverblue) কন্টেইনার বেসড ডেস্কটপ এর জন্য, IoT - IoT যন্ত্রসমূহের জন্য।

ফেব্রুয়ারি ২০১৬ হিসাব অনুযায়ী আনুমানিক ১২ লাখ মানুষ ফেডোরা ব্যবহার করে, এমনকি লিনাস টরভল্ডস (), লিনাক্স কার্নেল এর প্রতিষ্ঠাতা, একজন ফেডোরা ব্যবহারকারী। (সম্পূর্ণ নিবন্ধ...)

নির্বাচিত নিবন্ধ ৫

প্রবেশদ্বার:লিনাক্স/নির্বাচিত নিবন্ধ/৫

Linux Mint Official Logo.svg

লিনাক্স মিন্ট (ইংরেজি: Linux Mint) ডেবিয়ানউবুন্টু-ভিত্তিক লিনাক্স সম্প্রদায়-চালিত একটি গ্নু/লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশন, যার উদ্দেশ্য হলো ‘তূলনামূলক আরও আরামদায়ক, আকর্ষণীয় ও আধুনিক এবং শক্তিশালী ও সহজে ব্যবহারযোগ্য’ হওয়া। লিনাক্স মিন্ট আউট-অব-দ্য-বক্স পূর্ণ মাল্টিমিডিয়া সহায়তা প্রদান করে, যেখানে কিছু মালিকানাধীন ও ফ্রি-ওপেন সোর্স সফটওয়্যার অন্তর্ভুক্ত থাকে। প্রকল্পটির প্রবক্তা ক্লেমেন্ট লেফেভ্রে এবং বর্তমানে লিনাক্স মিন্ট টিম ও লিনাক্স মিন্ট সম্প্রদায় কর্তৃক সক্রিয়ভাবে ডেভেলপ হচ্ছে। (সম্পূর্ণ নিবন্ধ...)

নির্বাচিত নিবন্ধ ৬

প্রবেশদ্বার:লিনাক্স/নির্বাচিত নিবন্ধ/৬

অ্যান্ড্রয়েড লোগো

অ্যান্ড্রয়েড (ইংরেজি: Android) বা এন্ড্রয়েড একটি ওপেন সোর্স মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম যেটি মোডিফাইড লিনাক্স কার্নেলের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে। বর্তমানে গুগল এটির উন্নয়ন করছে। গুগল এলএলসি প্রাথমিক ডেভেলপারদের (অ্যান্ড্রয়েড ইনকর্পোরেট) কাছ থেকে অ্যান্ড্রয়েড কিনে নেয় ২০০৫ সালে। গুগল এবং অন্যান্য মুক্ত হ্যান্ডসেট এল্যায়েন্সের সদস্যরা অ্যান্ড্রয়েডের ডেভেলপমেন্ট ও রিলিজ নিয়ন্ত্রণ করে থাকে । অ্যান্ড্রয়েড ওপেন সোর্স প্রজেক্ট’টি (এওএসপি) অ্যান্ড্রয়েডের রক্ষনাবেক্ষন এবং ভবিষ্যৎ উন্নয়নের কাজ করে । অ্যান্ড্রয়েড বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেম ।

অ্যান্ড্রয়েডের অনেক ডেভেলপার রয়েছে যারা বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন তৈরী করে থাকে। এখন প্রায় ৩৫ লাখের উপরে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে গুগল প্লে স্টোরে। গুগল প্লে স্টোর হলো গুগলের অ্যাপ্লিকেশন স্টোর, যেটি অধিকাংশ স্মার্টফোনের সাথে পূর্বপ্রদত্ত থাকে। ডেভেলপাররা প্রাথমিকভাবে জাভা দিয়ে প্রোগ্রাম লিখে, যেটা গুগল জাভা লাইব্রেরি দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

ওপেন হ্যান্ডসেট এল্যায়েন্সের শুরুর সাথে সাথে অ্যান্ড্রয়েডের বিতরণ উন্মুক্ত করা হয় ৫ই নভেম্বর ২০০৭ সালে, যেখানে ৮০টি হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার এবং টেলিকম কোম্পানি ছিল। তাদের সকলের উদ্দেশ্য ছিল মুক্ত আদর্শ মোবাইল প্লাটফর্ম তৈরী করা। গুগল অ্যান্ড্রয়েডের বেশিরভাগ কোড উন্মুক্ত করে দেয় এপ্যাচি এবং মুক্ত উৎসের লাইসেন্সের আওতায়। (সম্পূর্ণ নিবন্ধ...)

নির্বাচিত নিবন্ধ ৭

নির্বাচিত নিবন্ধ ৮

নির্বাচিত নিবন্ধ ৯

নির্বাচিত নিবন্ধ ১০

নির্বাচিত নিবন্ধ ১১

নির্বাচিত নিবন্ধ ১২

নির্বাচিত নিবন্ধ ১৩

নির্বাচিত নিবন্ধ ১৪

নির্বাচিত নিবন্ধ ১৫

নির্বাচিত নিবন্ধ ১৬

নির্বাচিত নিবন্ধ ১৭

নির্বাচিত নিবন্ধ ১৮

নির্বাচিত নিবন্ধ ১৯

নির্বাচিত নিবন্ধ ২০

নির্বাচিত নিবন্ধ ২১

নির্বাচিত নিবন্ধ ২২

নির্বাচিত নিবন্ধ ২৩

নির্বাচিত নিবন্ধ ২৪

নির্বাচিত নিবন্ধ ২৫

নির্বাচিত নিবন্ধ ২৬

নির্বাচিত নিবন্ধ ২৭

নির্বাচিত নিবন্ধ ২৮

নির্বাচিত নিবন্ধ ২৯

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩০

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩১

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩২

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩৩

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩৪

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩৫

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩৬

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩৭

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩৮

নির্বাচিত নিবন্ধ ৩৯

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪০

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪১

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪২

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪৩

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪৪

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪৫

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪৬

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪৭

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪৮

নির্বাচিত নিবন্ধ ৪৯

নির্বাচিত নিবন্ধ ৫০