পায়ুলেহন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(পায়ু-মুখমৈথুন থেকে পুনর্নির্দেশিত)
দুই নারীর মধ্যে পায়ুলেহন
নারী-পুরুষের মধ্যে পায়ুলেহন

পায়ুলেহন হচ্ছে কারো পায়ুপথে মুখ সংযোগপূবক চুম্বন, চোষণ বা লেহন। এটি এক প্রকার কর্ম যাতে পুরুষাঙ্গ বা যোনীর সংশ্লিষ্টতা নেই। এক কর্মে একজন নারী বা পুরুষ অপর একজন নারী বা পুরুষের মলদ্বার লেহন করে কামনা চরিতার্থ করে। এরূপ পায়ু-মুখ কর্ম মূলতঃ শৃঙ্গারমূলক কর্ম। বাৎসায়নের কামসূত্রে মুখমেহন এর বর্ণনা থাকলেও কামজ কর্ম হিসাবে পায়ুলেহনের বর্ণনা নেই। পায়ু লেহন একজনের পায়ু ও অন্যজনের জিহবার সঙ্গম। যার পায়ু লেহন করা হচ্ছে তাকে সুখ প্রদানই পায়ুলেহনের উদ্দেশ্য। তবে অবমাননাকর এই কর্মের মাধ্যমে মুখপ্রদানকারী মর্ষসুখও লাভ করতে পারে।

শব্দের উৎপত্তি[সম্পাদনা]

পায়ুলেহন শব্দটি ইংরেজি এ্যানালিঙ্গাস (ইং:Anulingus) এর বাংলা প্রতিশব্দ। জার্মান মনঃরোগবিদ রিচার্ড ভন ক্রাফ্ট ইবিং কর্তৃক লিখিত এবং ১৮৮৬ সালে প্রকাশিত গ্রন্থ 'সাইকোপ্যাথিয়া সেক্সুয়ালিস'-এ সর্বপ্রথম “এ্যানালিঙ্গাস” শব্দটির উল্লেখ পাওয়া যায়।[১] ইংরেজী চলতি ভাষায় রিমিং শব্দটি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এছাড়া বাতকর্ম, পেটের অসুখ, পাইলস, মলদ্বারে রক্তপাত ইত্যাদি পায়ুলেহনকারীকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ঠেলে দেয়।

চর্চা[সম্পাদনা]

সাধারণ[সম্পাদনা]

যে ব্যক্তি পায়ু-মুখমৈথুন করবেন তার আনন্দ নিতম্বের প্রতি আকর্ষণের উপর নির্ভর করে।[২][৩] পায়ু এলাকায় প্রত্যেক মানুষেরই স্নায়বিক উত্তেজনা থাকে, সুতরাং যে ব্যক্তির পায়ু চোষা হবে তিনি তার সঙ্গীকে ভালবেসে থাকলে অনেক যৌনসুখ পাবেন। পায়ু-মুখমৈথুনের ক্ষেত্রে যার পায়ুতে মুখমৈথুন হয় তিনি নিষ্ক্রিয় সঙ্গী এবং যিনি মুখমৈথুন করবেন তিনি সক্রিয় সঙ্গী বলে গণ্য হবেন। প্রেম-ভালোবাসার একটি প্রকাশ হিসেবে এটি একটি মূল যৌনকর্ম বা পায়ুপথে শিশ্ন বা আঙ্গুল বা ডিলডো অনুপ্রবেশের আগে বা পরে বা মাঝখানে ব্যবহৃত হতে পারে। দুজন নারী বা দুজন পুরুষ বা দুজন বিষম লিঙ্গের মানুষ তাদের প্রেম বা ভালোবাসা পায়ু-মুখমৈথুনের মাধ্যমে প্রকাশ করবেন যদি তারা এটি পছন্দ করে থাকেন বা এর প্রতি আগ্রহবোধ বা কৌতূহলবশতও করতে পারেন।[৪][৫]

নারী কর্তৃক পুরুষ[সম্পাদনা]

স্বাস্থ্যঝুঁকি[সম্পাদনা]

পায়ুপথ অসংখ্য ব্যাক্টেরিয়ার আবাসস্থল। তাই বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন না করলে পায়ুলেহনের মাধ্যমে ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। এছাড়া যৌনরোগ থাকলে তা সহজে মুখ প্রদানকারীর শরীরে সংক্রমিত হবে। হার্পিস, পায়ুমুখ ওয়ার্ট (ইং: genital warts ), সিফিলিস, গনোরিয়া, হেপাটাইটিস প্রভৃতি রোগ পায়ুলেহনের মাধ্যমে সহজে এক দেহ থেকে অন্য দেহে সংক্রমিত হয়।[৬]

পর্নোগ্রাফিতে পায়ুলেহন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mark Forsyth. The etymologicon // Icon Books Ltd 2011, page 49.
  2. Newman, Felice (২০০৪)। The Whole Lesbian Sex Book: A Passionate Guide for All of UsCleis Press Inc.। পৃষ্ঠা 174। আইএসবিএন 978-1-57344-199-5 
  3. Taormino, Tristan (২০০৬)। The Ultimate Guide to Anal Sex for WomenCleis Press Inc.। পৃষ্ঠা 92। আইএসবিএন 978-1-57344-221-3 
  4. Jonathan Zenilman; Mohsen Shahmanesh (২০১১)। Sexually Transmitted Infections: Diagnosis, Management, and TreatmentJones & Bartlett Publishers। পৃষ্ঠা 329–330। আইএসবিএন 0495812943। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০১৪ 
  5. Diamant AL, Lever J, Schuster M (জুন ২০০০)। "Lesbians' Sexual Activities and Efforts to Reduce Risks for Sexually Transmitted Diseases"। J Gay Lesbian Med Assoc.4 (2): 41–8। ডিওআই:10.1023/A:1009513623365 
  6. Everything You Need to Know About Rimming

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]