নূপুর শর্মা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নূপুর শর্মা
ভারতীয় জনতা পার্টির জাতীয় মুখপাত্র
কাজের মেয়াদ
২০২০ – ২০২২
সভাপতিজগৎ প্রকাশ নাড্ডা
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1985-04-23) ২৩ এপ্রিল ১৯৮৫ (বয়স ৩৭)
নতুন দিল্লি, ভারত
রাজনৈতিক দলভারতীয় জনতা পার্টি (২০০৫–২০২২)
শিক্ষা
পেশা
  • আইনজীবী
  • রাজনীতিবিদ

নূপুর শর্মা (জন্ম ২৩ এপ্রিল ১৯৮৫) একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ও আইনজীবী। তিনি ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) জাতীয় মুখপাত্র ছিলেন।[১] তাকে নির্লজ্জ ও স্পষ্টভাষী হিসেবে বর্ণনা করা হয়, তিনি প্রায়শই ভারতীয় টেলিভিশন বিতর্কে একজন সরকারী মুখপাত্র হিসাবে বিজেপির প্রতিনিধিত্ব করেন।[২] ২০২২ সালের জুনে, ইসলামি নবি মুহাম্মদতার তৃতীয় স্ত্রী আয়েশার বয়স সম্পর্কে, তাদের বিয়ের সময় এবং বিবাহের সমাপ্তি বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে তাকে পার্টি থেকে বরখাস্ত করা হয়।[৩][৪][৫]

প্রাথমিক জীবন ও শিক্ষা

নুপুর শর্মা ১৯৮৫ সালে নতুন দিল্লিতে জন্মগ্রহণ করেন।[৬] তিনি সরকারী কর্মচারী ও ব্যবসায়ী পরিবার থেকে এসেছেন।[৭] তার মা দেরাদুন থেকে আগত।[৮]

শর্মা মথুরা রোডের দিল্লি পাবলিক স্কুলে পড়াশোনা করেছেন। পরে তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের হিন্দু কলেজ থেকে অর্থনীতিতে কলাবিদ্যায় স্নাতক এবং পরে তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইনবিদ্যায় স্নাতক সম্পন্ন করেন।[৯][১০][৭]

ছাত্রী থাকাকালীন তিনি সংঘ পরিবারের শিক্ষার্থী শাখা অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদে (এবিভিপি) যোগদান করেন। তিনি ২০০৮ সালে দিল্লি ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস ইউনিয়নের সভাপতিত্বে জয়লাভ করেন, এবিভিপির জন্য আট বছরের দুর্ভাগ্যের অবসান ঘটান।[৭] তার কার্যকালের একটি উল্লেখযোগ্য ঘটনা হল এবিভিপি জনতার নেতৃত্বে এস.কে.আর. গিলানিকে 'সাম্প্রদায়িকতা, ফ্যাসিবাদ এবং গণতন্ত্র: অলংকার ও বাস্তবতা' বিষয়ক একটি অনুষদ সেমিনারে প্রশ্নবাণে জর্জরিত করা। তিনি সেই রাতে পরে একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে হাজির হন ও তীব্র প্রতিক্রিয়া জানান।[৭][১১][১]

লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স থেকে আইন বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর শর্মা একজন আইনজীবী হন।[১২]

রাজনৈতিক জীবন

শর্মা ২০১০-২০১১ সালে লন্ডন থেকে ফিরে এসে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) কর্মী হয়েছিলেন।[২][৭] ২০১৩ সালে তিনি দিল্লি বিজেপির ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য হন।[৭] তিনি অরবিন্দ প্রধান, অরুণ জেটলিঅমিত শাহের মতো উর্ধ্বতন নেতাদের সাথে কাজ করেছেন বলে জানা গেছে। ২০১৫ সালে ৩০ বছর বয়সে তাকে ২০১৫ সালের দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে আম আদমী পার্টির (এএপি) অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য সুযোগ দেওয়া হয়।[৮][১৩][১৪] তিনি ৩১,০০০ ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হেরে যান।[১৫]

এরপর তিনি মনোজ তিওয়ারীর অধীনে বিজেপির দিল্লি ইউনিটের প্রাতিষ্ঠানিক মুখপাত্র হিসেবে নিযুক্ত হন। ২০২০ সালে তিনি জগৎ প্রকাশ নাড্ডার সভাপতিত্বে বিজেপির জাতীয় মুখপাত্র হিসাবে নিযুক্ত হন। দিল্লি বিজেপির একজন নেতার মতে এমনকি যখন তিনি দিল্লি ইউনিটের অংশ ছিলেন তাকে প্রায়শই তার আইনী বুদ্ধিমত্তা, জাতীয় সমস্যাগুলোর সঠিক জ্ঞান ও দ্বিভাষিক দক্ষতার কারণে জাতীয় ইস্যুতে টিভি বিতর্কের জন্য পাঠানো হত।[ভঙ্গি][১] টেলিভিশন বিতর্কে নিয়মিত উপস্থিত হওয়ার সাথে তাকে তরুণ, উদ্যমী ও উজ্জ্বল হিসেবে দেখা যায়।[১১][২] তিনি বিরোধী প্যানেলিস্টদের বিরুদ্ধে বেশ কিছু অপমানজনক মন্তব্য করেছেন যা টুইটারে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে বলে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে।[২][৭]

২০১৭ সালে, ২০০২ সালের গুজরাট দাঙ্গার একটি ছবি শেয়ার করার জন্য ও পশ্চিমবঙ্গে সহিংসতার চিত্র তুলে ধরার জন্য তার বিরুদ্ধে কলকাতা পুলিশ মামলা করেছিল।[৭]

মুহাম্মদ সম্পর্কে মন্তব্য

২৬ মে ২০২২-এ শর্মা টাইমস নাউ টেলিভিশন চ্যানেলে জ্ঞানবাপী মসজিদ বিবাদের উপর একটি বিতর্কে অংশ নিয়েছিলেন, যে সময় তিনি মুহাম্মদের স্ত্রী আয়েশার বিয়ের সময় ও বিবাহের সমাপ্তি সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন,[১৬][৫] যা অপমানজনক দৃষ্টিতে দেখা হয়।[১৭] তার মন্তব্যের ভিডিও ক্লিপটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের একটি ফ্যাক্ট-চেকিং ওয়েবসাইট অল্ট নিউজের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ জুবায়ের শেয়ার করেন।[১৮][১৯] শর্মা পরে অভিযোগ করেন যে এটি একটি "খুব বেশি সম্পাদিত ও নির্বাচিত মুহূর্ত", যা অল্ট নিউজ দ্বারা অস্বীকার করা হয় এবং প্রসঙ্গ দেখানোর জন্য একটি দীর্ঘ ক্লিপ অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[১৬][২০] ঘটনার সমালোচনার পর টাইমস নাউ পরের দিন তার ইউটিউব চ্যানেল থেকে অনুষ্ঠানটির ভিডিও মুছে দেয়।[২১] শর্মা পরবর্তীকালে বলেছিলেন যে তিনি ধর্ষণ ও হত্যার হুমকি পেতে শুরু করেছেন যার জন্য জুবায়ের দায়ী। ভিডিও ক্লিপটি দেখার পর দর্শকদের প্রতিক্রিয়ার জন্য অল্ট নিউজ দায় অস্বীকার করেছে।[১৬][২০][২২] পরে দিল্লি পুলিশ শর্মাকে নিরাপত্তা দেয়।[২৩]

পরের দিন মুম্বাইয়ের পাইধোনি থানায় শর্মার বিরুদ্ধে একটি পুলিশ এফআইআর (প্রথম তথ্য প্রতিবেদন) নথিভুক্ত করা হয় যেখানে তাকে "ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত" করার অভিযোগ আনা হয়েছিল।[২৪][২৫] মুহাম্মাদ ও ইসলামের বিরুদ্ধে শর্মার "অপমানজনক, মিথ্যা এবং আঘাতমূলক" শব্দ ব্যবহারের জন্য হায়দ্রাবাদে সর্বভারতীয় মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিনের নেতা ও সংসদ সদস্য আসাদউদ্দিন ওয়াইসির এফআইআর সহ দেশের বিভিন্ন শহরে একাধিক এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছিল।[২০] ৩ জুন এই মন্তব্যের প্রতিবাদে কানপুরের একটি মুসলিম সংগঠনের দ্বারা একটি বন্ধ (হরতাল) ডাকা হয়েছিল, যে সময়ে সহিংসতা শুরু হয় ও ৪০ জন আহত হয়।[২৬]

শর্মার মন্তব্য আন্তর্জাতিকভাবেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে শেয়ার করা হয়েছে। ৪ জুনের মধ্যে উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদ এবং তুরস্কের সমস্ত দেশের শীর্ষ ১০ টি হ্যাশট্যাগের মধ্যে "নবী মোহাম্মদের অবমাননা" উপস্থিত ছিল।[২৭] জর্ডান, লিবিয়া, আফগানিস্তান, ইন্দোনেশিয়া ও পাকিস্তানের সরকার এই মন্তব্যের নিন্দা করেছে।[২৮] ওমানের প্রধান মুফতি এই মন্তব্যকে "উদ্ধত ও অশ্লীল অভদ্রতা" বলে অভিহিত করেছেন এবং একে প্রতিটি মুসলমানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। তিনি সমস্ত ভারতীয় পণ্য বয়কট ও ওমানে সমস্ত ভারতীয় বিনিয়োগ বাজেয়াপ্ত করার আহ্বান জানান।[২৭] কাতার সরকার ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে ও মন্তব্যের জন্য অবিলম্বে নিন্দা ও ক্ষমা চাইতে বলে। রাষ্ট্রদূত উত্তর দিয়েছেন বলে জানা গেছে যে তারা ভারতে "ফ্রিঞ্জ এলিমেন্টস"-এর মতামত ও কোনোভাবেই ভারত সরকারের মতামত প্রতিফলিত করে না।[২৯] কুয়েত ও ইরানও ভারতীয় রাষ্ট্রদূতদের ডেকেছে এবং তাদের প্রতিবাদপত্র দিয়েছে।[৩০][৩১]

৫ জুন শর্মাকে বিজেপি থেকে বরখাস্ত করা হয়। দলীয় বিবৃতিতে বলা হয়েছে, "বিজেপি যে কোনো ধর্মের কোনো ধর্মীয় ব্যক্তিত্বের অবমাননার তীব্র নিন্দা করে।"[৩১] পরে, শর্মা বলেছিলেন যে তিনি "নিঃশর্তভাবে" তার বিবৃতি প্রত্যাহার করে নিচ্ছেন, তবে হিন্দু দেবতা শিবের প্রতি "নিরন্তর অপমান এবং অবজ্ঞা" করার প্রতিক্রিয়া হিসেবে দাবি করে তাদের ন্যায্যতা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন।[১৮][২]

তথ্যসূত্র

  1. Abhinav Rajput (৫ জুন ২০২২), "Nupur Sharma: The BJP firebrand facing party axe", The Indian Express, ৬ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২২ 
  2. Geeta Pandey (৭ জুন ২০২২), "Nupur Sharma: The Indian woman behind offensive Prophet Muhammad comments", BBC News, ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৭ জুন ২০২২ 
  3. "After 'respect all religions' statement, BJP suspends spokespersons Nupur Sharma and Naveen Jindal", The Indian Express, ৫ জুন ২০২২, ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২২ 
  4. "Nupur Sharma suspended from BJP for her comments about Prophet Muhammad", Scroll.in, ৬ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২২ 
  5. Nabeela Jamil (৬ জুন ২০২২), "Why the debate around the age of Aisha, the Prophet's wife, is irrelevant", Scroll.in, ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৭ জুন ২০২২ 
  6. "Nupur Sharma: Biography", OneIndia, ২৩ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২২ [ভাল উৎস প্রয়োজন]
  7. Unnati Sharma (৬ জুন ২০২২), "Who is Nupur Sharma? DUSU ex-president & LSE alum now suspended by BJP for remarks on Prophet", The Print, ৮ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০২২ 
  8. "Kejriwal rival Nupur Sharma has Dehradun roots", Dehradun Post, ২৯ জানুয়ারি ২০১৫, প্রোকুয়েস্ট ১৬৪৮৮১৯৩৪৯ 
  9. "Who is Nupur Sharma"Business Standard। ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-০৬ 
  10. "Who is Nupur Sharma"Business Standard। ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-০৬ 
  11. "Nupur Sharma: impressive past, promising future", BusinessLine, ২০ জানুয়ারি ২০১৫, প্রোকুয়েস্ট ১৬৪৬৮৯২৫৭২, ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২২ 
  12. "Nupur Sharma, suspended Spokesperson of BJP, did her Master in Law from this UK University", The Free Press Journal, ৫ জুন ২০২২, ৫ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০২২ 
  13. Amita Shah (২১ জানুয়ারি ২০১৫), "At 30, will Nupur Sharma be a giant killer?: BJP has fielded former DU student leader Nupur Sharma against AAP chief Kejriwal from New Delhi seat", Daily News & Analysis, প্রোকুয়েস্ট ১৬৪৬৮৭৮০১৮ 
  14. "Meet BJP's New Delhi candidate Nupur Sharma: The girl who plans to take on Kejriwal"Firstpost। ২১ জানুয়ারি ২০১৫। ৬ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২২ 
  15. "Arvind Kejriwal defeats BJP's Nupur Sharma by over 31,000 votes"Livemint। ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। ৫ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০২২ 
  16. "FIR filed against BJP spokesperson Nupur Sharma for comments about Prophet Mohammad", Scroll.in, ২৯ মে ২০২২, ৫ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০২২ 
  17. Sheikh Saaliq (AP) (৬ জুন ২০২২), "Muslim nations slam India over insulting remarks about Islam", The Washington Post, ৮ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৭ জুন ২০২২ 
  18. Stuti Mishra (২০২২-০৬-০৬)। "Prophet Muhammad comments by officials from India's ruling party spark Gulf backlash"The Independent (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-০৬-১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  19. "Mohammed Zubair's Tweet"Twitter (ইংরেজি ভাষায়)। ৬ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-০৭ 
  20. "'Remarks on Prophet': After Thane, Hyderabad Police Files FIR Against BJP's Nupur Sharma", The Wire, ১ জুন ২০২২, ৫ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০২২ 
  21. "Times Now deletes video of Navika Kumar's debate, issues clarification amidst controversy over derogatory comments on Prophet Muhammad (PBUH)"Janta Ka Reporter 2.0। ২৮ মে ২০২২। ৩১ মে ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২২ 
  22. Pratik Sinha, twitter thread ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৫ জুন ২০২২ তারিখে, 28 May 2022.
  23. "BJP's Nupur Sharma, Suspended, Gets Security After Death Threat Complaint"NDTV.com। ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-০৭ 
  24. "BJP's Nupur Sharma booked over remark on Prophet Muhammad", The Free press Journal, ২৯ মে ২০২২, প্রোকুয়েস্ট ২৬৭১০৯৬৩৪২ 
  25. "Mumbai police book BJP spokesperson Nupur Sharma for remarks on Prophet", The Indian Express, ২৯ মে ২০২২, প্রোকুয়েস্ট ২৬৭০৭৯১৫৫৩ 
  26. Kanpur Violence: At Least 40 Injured, Police Register 3 FIRs Against 500 People ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৭ জুন ২০২২ তারিখে, The Wire, 4 June 2022.
  27. "Remarks against Prophet Mohammed: Did West Asia social media outrage force BJP to take action?", The Tribune (Chandigarh), ৫ জুন ২০২২, ৫ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০২২ 
  28. Krishn Kaushik (২০২২-০৬-০৭)। "Row over remarks on the Prophet: UAE and Maldives join Islamic world criticism; India hits back at OIC, Pakistan"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-১০ 
  29. ""Fringe Elements": India Dismisses BJP Leaders' Remarks On Prophet", NDTV, ৬ জুন ২০২২, ৫ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০২২ 
  30. "Qatar, Kuwait, Iran Summon Indian Envoys Over BJP Leaders' Remarks on Prophet Mohammed", The Wire, ৬ জুন ২০২২, ৫ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০২২ 
  31. Hannah Ellis-Petersen (৬ জুন ২০২২), "Prophet Muhammad remarks embroil India in row with Gulf states", The Guardian, ৭ জুন ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৭ জুন ২০২২