ডাসার থানা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডাসার
থানা
ডাসার থানা
ডাসার বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
ডাসার
ডাসার
বাংলাদেশে ডাসার থানার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°০৩′৩৯″ উত্তর ৯০°০৮′৫৬″ পূর্ব / ২৩.০৬০৯১৯৫° উত্তর ৯০.১৪৮৯৮৮৭° পূর্ব / 23.0609195; 90.1489887স্থানাঙ্ক: ২৩°০৩′৩৯″ উত্তর ৯০°০৮′৫৬″ পূর্ব / ২৩.০৬০৯১৯৫° উত্তর ৯০.১৪৮৯৮৮৭° পূর্ব / 23.0609195; 90.1489887
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগঢাকা বিভাগ
জেলামাদারীপুর জেলা
উপজেলাকালকিনি উপজেলা
প্রতিষ্ঠাকাল২রা মার্চ, ২০১৩
সংসদীয় আসনমাদারীপুর-৩
আয়তন
 • মোট৭৬.০৮ কিমি (২৯.৩৭ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা [১]
 • মোট৭১,৪৯৪
 • জনঘনত্ব৯৪০/কিমি (২৪০০/বর্গমাইল)
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৭৯১০
ওয়েবসাইটথানা

ডাসার থানা বাংলাদেশের মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার অন্তর্গত একটি থানা যা ৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। এটি ঢাকা বিভাগের অধীন মাদারীপুর জেলার ৫টি থানার মধ্যে একটি এবং মাদারীপুর জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত। ডাসার থানার উত্তরে মাদারিপুর সদর থনা, দক্ষিণে আগৈলঝাড়া থানা, পূর্বে কালকিনি থানা, পশ্চিমে কোটালিপাড়া থানা অবস্থিত। ডাসার থানার উপর দিয়ে পালরদী নদী প্রবাহিত হয়েছে।

২০১৩ সালে ডাসার থানা প্রতিষ্ঠা করা হয়। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ডাসার থানার সংসদীয় আসন মাদারীপুর-৩কালকিনি উপজেলামাদারিপুর সদর উপজেলার ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত মাদারীপুর-৩ আসনটি জাতীয় সংসদে ২২০ নং আসন হিসেবে চিহ্নিত।

পটভূমি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন: কালকিনি উপজেলা

২০১৩ সালের ২রা মার্চ কালকিনি থানার আংশিক এলাকা নিয়ে ডাসার থানা গঠন করা হয়। এর আগে ডাসার ইউনিয়নকে দু’ভাগে বিভক্ত করে বেতবাড়ী ও ডাসার নামে ২টি ইউনিয়ন এবং নবগ্রাম ইউনিয়নকে শশিকর ও নবগ্রাম নামে আরও ২টি ইউনিয়ন গঠন করা হয়। গোপালপুর ও কাজিবাকাই ইউনিয়নসহ মোট ৬টি ইউনিয়ন নিয়ে ২০১২ সলের ২রা ফেব্রুয়ারি ডাসারে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র স্থাপিত হয়।[২] ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর নিকার বৈঠকে ডাসার থাকাকে উপজেলায় উন্নিত করনের কথা থাকলেও তা অনুমদিত হয়নি।[৩]

ভূগোল[সম্পাদনা]

ডাসার থানার ভৌগোলিক অবস্থান ২৩°০৩′৩৯″ উত্তর ৯০°০৮′৫৬″ পূর্ব / ২৩.০৬০৯১৯৫° উত্তর ৯০.১৪৮৯৮৮৭° পূর্ব / 23.0609195; 90.1489887। এর মোট আয়তন ৭৬.০৮ বর্গ কিলোমিটার।[১] ডাসার থানার উত্তরে মাদারিপুর সদর থনা, দক্ষিণে আগৈলঝাড়া থানা, পূর্বে কালকিনি থানা, পশ্চিমে কোটালিপাড়া থানা অবস্থিত।

প্রশাসন[সম্পাদনা]

ডাসার থানায় ৫টি ইউনিয়ন, ৬৭টি মৌজা রয়েছে। ইউনিয়নগুলো হলো গোপালপুর ইউনিয়ন, কাজীবাকাই ইউনিয়ন, বালিগ্রাম ইউনিয়ন, ডাসার ইউনিয়ন, নবগ্রাম ইউনিয়ন[৪] এই থানার স্থানীয় সরকার কার্যক্রম কালকিনি উপজেলাধীন।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ডাসার থানার সংসদীয় আসন মাদারীপুর-৩কালকিনি উপজেলামাদারিপুর সদর উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়ন, ঝাউদি ইউনিয়ন, ঘটমাঝি ইউনিয়ন, মোস্তফাপুর ইউনিয়ন ও কেন্দুয়া ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত মাদারীপুর-৩ আসনটি জাতীয় সংসদে ২২০ নং আসন হিসেবে চিহ্নিত।[৫] বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভের পর অনুষ্ঠিত ১৯৭৩ সালের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেই এই সংসদীয় আসনটি তৈরি করা হয়। প্রথম নির্বাচনে এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ফনী ভূষণ মজুমদার১৯৭৯ সালে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) আবদুল মান্নান শিকদার,[৬] ১৯৮৬ সালে জাতীয় পার্টির শেখ শহীদুল ইসলাম, ১৯৮৮ সালে জাতীয় পার্টির শেখ শহীদুল ইসলাম, ১৯৯১ সালে আওয়ামী লীগের সৈয়দ আবুল হোসেন, ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ তারিখে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের গনেশ চন্দ্র হালদার, জুন ১৯৯৬ তারিখে আওয়ামী লীগের সৈয়দ আবুল হোসেন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ২০০১, ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও এ আসন থেকে নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিরোধীদলগুলো তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিলে আওয়ামী লীগের আ. ফ. ম. বাহাউদ্দিন নাছিম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। ২০১৮ সালের সর্বশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবদুস সোবহান গোলাপ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে এ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৭]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

আরও দেখুন: বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থা

২০১১ সালের হিসেব অনুযায়ী ডাসার থানা অঞ্চলের গড় সাক্ষরতার হার শতকরা ৫৪.৮২%।[১]

উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে সরকারি শেখ হাসিনা একাডেমি এন্ড উইমেন্স কলেজ (১৯৯৫), ডি.কে. আইডিয়াল সৈয়দ আতাহার আলী একাডেমি এন্ড কলেজ (১৯৬৪), শশিকর শহীদ স্মৃতি কলেজ (১৯৭৩), নবগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৪৩), শশিকর উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৪৩), গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৭০), দর্শনা উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৭৩), শশিকর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় (১৯৮২), স্নানঘাটা মাদ্রাসা(১৯২৬) প্রভৃতি।[৬] এ থানার ইউনিয়নগুলোর মধ্যে, নবগ্রাম ইউনিয়নের শিক্ষার হার প্রায় ৬৭.৫% ও বালিগ্রাম ইউনিয়নের ৪৬.২%।

ডাসার থানা অঞ্চলের শিক্ষা ব্যবস্থা বাংলাদেশের অন্য সব শহরের মতই। বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থায় প্রধানত পাঁচটি ধাপ রয়েছে: প্রাথমিক (১ থেকে ৫), নিম্ন মাধ্যমিক (৬ থেকে ৮), মাধ্যমিক (৯ থেকে ১০), উচ্চ মাধ্যমিক (১১ থেকে ১২) এবং উচ্চ শিক্ষা। প্রাথমিক শিক্ষা সাধারণত ৫ বছর মেয়াদী হয় এবং প্রাথমিক বিদ্যালয় সমাপনী পরীক্ষার মাধ্যমে শেষ হয়, ৩ বছর মেয়াদী নিম্ন মাধ্যমিক শিক্ষা সাধারণত নিম্ন মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি), ২ বছর মেয়াদী মাধ্যমিক শিক্ষা মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি), ২ বছর মেয়াদী উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সাধারণত উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার মাধ্যমে শেষ হয়।

মূলত বাংলা ভাষায় পাঠদান করা হয় তবে ইংরেজি ব্যাপকভাবে পাঠদান ও ব্যবহৃত হয়। অনেক মুসলমান পরিবার তাদের সন্তানদের বিশেষায়িত ইসলামী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যেমন মাদ্রাসাতে প্রেরণ করেন। মাদ্রাসাগুলোতেও প্রায় একই ধরনের ধাপ উত্তীর্ণ হতে হয়। উচ্চ মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ হওয়ার পর কোন শিক্ষার্থী সাধারণত উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেমন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারে। ডাসারে উচ্চ মাধ্যমিকের পর উচ্চ শিক্ষার জন্য বেশ কয়েকটি কলেজ রয়েছে যা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বিএ ও এমএ ডিগ্রি প্রদান করে।

উল্লেখযোগ্য স্থান[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. পপুলেশন এন্ড হাউজিং সেন্সাস ২০১১ (PDF)। ঢাকা: বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো। ফেব্রুয়ারি ২০১৫। পৃষ্ঠা ৩৫, ৬৯, ২০৫, ৩৮৩। আইএসবিএন 978-984-33-8597-0 
  2. "অপরাধীদের বিষফোঁড়া নবগঠিত ডাসার থানা | বাংলাদেশ প্রতিদিন"বাংলাদেশ প্রতিদিন। ২০১৩-০৭-২৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-১০ 
  3. "৪৯২তম উপজেলা শায়েস্তাগঞ্জ"প্রথম আলো। ২০১৭-১১-২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-১৪ 
  4. "বাংলাদেশ গেজট অতিরিক্ত সংখ্যা" (PDF)মুদ্রণ ও প্রকাশনা অধিদপ্তর। ২০১৮-০৮-০৭। পৃষ্ঠা ১০২৫৯-১০২৬১। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-০৪ 
  5. "Election Commission Bangladesh - Home page"বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-১০ 
  6. মিয়া, আবদুল জাব্বার (১৯৯৪)। মাদারীপুর জেলা পরিচিতি। মাদারিপুর: মিসেস লীনা জাব্বার। পৃষ্ঠা ১৮০–১৮৩। 
  7. "বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জানুয়ারি ১, ২০১৯" (PDF)বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ১ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]