টিনা সানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
টিনা সানি (গায়িকা)
জন্ম নামটিনা সানি
জন্মঢাকা, পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমানে বাংলাদেশ)
ধরনশাস্ত্রীয় সঙ্গীত
গজল
পেশাসঙ্গীতশিল্পী
টেলিভিশন পরিবেশিকা

টিনা সানি উর্দু: ٹینا سانی‎‎) হলেন একজন পাকিস্তানি গায়িকা যিনি শাস্ত্রীয় এবং আধা-শাস্ত্রীয় উর্দু গজলের জন্য বিখ্যাত।[১][২]

শৈশব ও ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

টিনা সানি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন। পরবর্তীতে তাঁর পরিবার কয়েক বছরের জন্য কাবুলে চলে গিয়েছিল, সেখানে তাঁর বাবা নাসির সাহনি একটি তেল সংস্থায় চাকরি করেছিলেন। তারপর তাঁরা করাচিতে ফিরে গিয়েছিলেন। করাচি আমেরিকান স্কুল থেকে স্নাতক পাস করার পরে তিনি বাণিজ্যিক শিল্প নিয়ে পড়াশোনা করেছিলেন। তিনি দিল্লি ঘরানার ওস্তাদ রমজান খানের পুত্র ওস্তাদ নিজামউদ্দিন খান এবং ওস্তাদ চাঁদ আমরোহভী খানের কাছে ধ্রুপদী সংগীতের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছিলেন। তিনি গজল মাস্টার মেহদী হাসানের কাছ থেকেও বিশেষ প্রশিক্ষণ পেয়েছিলেন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

টিনা সানি ১৯৭৭ সালে একটি বিজ্ঞাপন সংস্থার হয়ে কাজ শুরু করেছিলেন। তিনি করাচি আমেরিকান স্কুলে শিল্পকলা বিভাগে শিক্ষকতাও করেছিলেন।

সঙ্গীতজীবন[সম্পাদনা]

১৯৮০ সালে তিনি পেশাদার গানের জগতে প্রবেশ করেছিলেন,[৪] যখন প্রযোজক ইশরাত আনসারী পরিচালকআলমগীরের পরিচালিত 'তরং' শীর্ষক একটি যুব অনুষ্ঠানে টিভিতে তাঁকে পরিচয় করিয়ে দেন।

দক্ষিণ এশিয়ার খ্যাতনামা গজল গায়ক মেহেদী হাসান, মালিকা পুখরাজ, বেগম আক্তার, মুখতার বেগম এবং ফরিদা খানুম দ্বারা প্রভাবিত হলেও তিনি তাঁর নিজস্ব সঙ্গীতশৈলী তৈরি করেছেন। তিনি আরশাদ মেহমুদ রচিত বোল কে লাব আজাদ হ্যায় তেরে এবং বাহার আয়ি র মতো কবিতা সহ ফয়েজ আহমেদ ফয়েজের বিভিন্ন কবিতা গেয়ে পাকিস্তান ও ভারতে অনেক প্রশংসা অর্জন করেছেন।[২] তিনি সমসাময়িক কবিদের কবিতা সম্পূর্ণ স্বাচ্ছন্দ্যে আবৃত্তি করেন এবং জাউক, গালিব, মীর তাকি মীর এবং জালালউদ্দিন রুমির মতো বিখ্যাত কবিদের গানে সমানভাবে প্রদর্শন করেন। [৪]

তাঁর আবৃত্তি করাইকবালের শিকওয়া জওয়াব-ই-শিকওয়া দুর্দান্ত পর্যালোচনা অর্জন করেছে।[৫]

অতি সম্প্রতি টিনা সানি ত্রয়োদশ শতাব্দীর রহস্যময় কবির ফার্সি শ্লোকগুলো উর্দু ভাষায় আনার জন্য জালাল উদ্দিন মুহাম্মদ রুমির মসনবীর প্রথম স্তবক কোক স্টুডিওতে (পাকিস্তান) গেয়েছেন। [৬]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Tribute: Tina Sani pays homage to Faiz Dawn (newspaper), Published 25 December 2011. Retrieved 6 February 2018
  2. Beyond Borders (Tina Sani in India) Indian Express (newspaper), Published 22 August 2009. Retrieved 6 February 2018
  3. I want youngsters to know I just followed my heart, says Tina Sani of her LSA award Dawn (newspaper), 17 April 2017. Retrieved 6 February 2018
  4. In concert: In Tina Sani's company Dawn (newspaper), Published 9 March 2013. Retrieved 6 February 2018
  5. Tina Sani sings Shikwa by Iqbal Dawn (newspaper), Published 17 October 2010. Retrieved 6 February 2018
  6. Omran Shafiqque (৩১ আগস্ট ২০১৬)। "Tina Sani: A voice of her own"। Herald (magazine)। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  7. Tina Sani's Pride of Performance Award listed on Dawn (newspaper) Retrieved 18 June 2019