জ্যোতিকা জ্যোতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জ্যোতিকা জ্যোতি
জন্ম (1984-09-11) ১১ সেপ্টেম্বর ১৯৮৪ (বয়স ৩৪)
ময়মনসিংহ, বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশ বাংলাদেশি
জাতিসত্তাবাঙালি
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
শিক্ষাইংরেজি
যেখানের শিক্ষার্থীআনন্দমোহন কলেজ
পেশাচিত্রনায়িকা
কার্যকাল২০০৪ – বর্তমান

জ্যোতিকা জ্যোতি একজন বাংলাদেশ অভিনেত্রী। ২০০৫ সালে জ্যোতিকা জ্যোতি অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র আয়না মুক্তি পায়। এরপর তিনি বেলাল আহমেদের নন্দিত নরকে এবং তানভীর মোকাম্মেলের রাবেয়া চলচ্চিত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয় করেন। এরপর তার অভিনীত তানভীর মোকাম্মেলের জীবনঢুলী ও আজাদ কালামের বেদেনী চলচ্চিত্র দুটি মুক্তি পায়। জ্যোতি অভিনীত প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটির নাম ছিল ব্রেক আপ। ২০১০ সালের শুরুর দিকে ব্রেক আপে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত জীবনী[সম্পাদনা]

জ্যোতিকা জ্যোতি একজন টিভি এবং চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী। এছাড়া তিনি উপস্থাপনাতেও নাম লিখিয়েছেন। তিনি ২০০৪ সালে লাক্স-আনন্দধারা ফটোজেনিক প্রতিযোগিতায় সেরা দশে স্থান করে নিয়েছিলেন।

জ্যোতির বাড়ি ময়মনসিংহের গৌরীপুরেআনন্দমোহন কলেজ থেকে ইংরেজিতে মাস্টার্স করার পর তার বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নেবার কথা ছিল। মাস্টার্সে থাকতেই যোগ দেন ময়মনসিংহের বহুরূপী থিয়েটারে। তবে এ নাট্যদলের হয়ে মঞ্চে ওঠার সুযোগ হয়নি তাঁর। বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহনের পরিবর্তে অভিনয়ের নেশা পেয়ে বসে তাকে। সারাহ বেগম কবরীর ‘আয়না’ ছবিতে সুযোগ পান।

নাটক[সম্পাদনা]

জ্যোতিকা জ্যোতি অভিনীত এক পর্বের নাটকের মধ্যে অনিমেষ আইচের ‘একটি ঝড়াক্রান্ত শেফালী গাছ’, শতাব্দি জাহিদের ‘স্বপ্নবুনন’, রনির ‘জাগরণের রংটা ধূসর ছিলো’, রাসেল আজমের ‘মুক্তাহীন ঝিনুক’, নজরুল কোরেশীর ‘ভালোবাসার লাল পিঁপড়া’, দিমা নেফার তিতির ‘স্বপ্ন দেখার সাহস’, ইশতিয়াক মাহমুদের ‘মুক্তি’ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম ভূমিকা সহ-শিল্পী পরিচালক টীকা সূত্র
২০০৫ আয়না অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র
২০০৬ নন্দিত নরকে বেলাল আহমেদ
২০১৪ জীবনঢুলী তানভীর মোকাম্মেল
২০১৫ অনিল বাগচীর একদিন অতসী মোরশেদুল ইসলাম
চাবি
Films that have not yet been released আসন্ন মুক্তি

ধারাবাহিক নাটক[সম্পাদনা]

বছর নাটকের নাম ভূমিকা সহ-শিল্পী পরিচালক টীকা সূত্র

একপর্বের নাটক[সম্পাদনা]

বছর নাটকের নাম ভূমিকা সহ-শিল্পী পরিচালক টীকা সূত্র
আর একবার
ইউসুফ ভাবী সিদ্দিকুর রহমান মামুন খান
ইন্টার মিডিয়েট থার্ড ইয়ার রিমি প্রাণ রায় এফ জামান তাপস
গন্তব্যের দিকে লায়লা মোশাররফ করিম সালাহউদ্দিন লাভলু
চিঠি দিহান তাজু কামরুল
জামাই অভিজান আ খ ম হাসান রবিন খান
পুশিং সেল তসলিমা ইন্তেখাব দিনার রুলীন রহমান
বিশ্বাসে ভালোবাসা প্রকারক চক্রের সদস্য সাব্বির আহমেদ তাজু কামরুল
মুকুটহীন নবাব ফুলমতি রওনক হাসান তাজু কামরুল
হাওয়াই শহরের গল্প আফরান নিশো মাহমুদ দিদার

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]