জ্যাক এডওয়ার্ডস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জ্যাক এডওয়ার্ডস
John Dunlop Edwards c1888.jpg
আনুমানিক ১৮৮৮ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে জ্যাক এডওয়ার্ডস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন ডানলপ এডওয়ার্ডস
জন্ম(১৮৬০-০৬-১২)১২ জুন ১৮৬০
প্রাহরান, ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু৩১ জুলাই ১৯১১(1911-07-31) (বয়স ৫১)
হকসবার্ন, ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৫২)
১৬ জুলাই ১৮৮৮ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট৩০ আগস্ট ১৮৮৮ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
মেলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৫১
রানের সংখ্যা ৪৮ ৯৬১
ব্যাটিং গড় ৯.৬০ ১৩.৭২
১০০/৫০ ০/০ ০/৪
সর্বোচ্চ রান ২৬ ৬৫
বল করেছে ৪৯৩
উইকেট
বোলিং গড় ২৭.৭১
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/০ ১৯/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২২ মার্চ ২০২০

জন ডানলপ এডওয়ার্ডস (ইংরেজি: Jack Edwards; জন্ম: ১২ জুন, ১৮৬০ - মৃত্যু: ৩১ জুলাই, ১৯১১) ভিক্টোরিয়ার প্রাহরান এলাকায় জন্মগ্রহণকারী অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৮৮ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে ভিক্টোরিয়া দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, লেগ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন জ্যাক এডওয়ার্ডস

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৮৮০-৮১ মৌসুম থেকে ১৮৮৯-৯০ মৌসুম পর্যন্ত জ্যাক এডওয়ার্ডসের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ছোটখাটো ও হাল্কাপাতলা গড়নের অধিকারী ছিলেন জ্যাক এডওয়ার্ডস। ব্যাটিংকালে বেশ শক্ত প্রতিরক্ষাব্যূহ ব্যবস্থা গড়ে তুলতেন। এছাড়াও, চমৎকার ফিল্ডার হিসেবে সুনাম কুড়িয়েছেন। ভিক্টোরিয়ার ওয়েসলি কলেজে অধ্যয়ন করেন। এরপর মেলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন। ১৮৮০-৮১ মৌসুমে ভিক্টোরিয়ার পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার।

পরবর্তীতে ১৮৮১-৮২ মৌসুমের গ্রীষ্মকালে এ. শ একাদশের বিপক্ষে ভিক্টোরিয়ার সদস্যরূপে খেলেন। সফরকারীদের বিপক্ষে ৬৫ রান তুলেন। এটিই তার খেলোয়াড়ী জীবনে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ছিল।[১] এরপর তিনি বেন্ডিগোয় চলে যান। সেখানে তিনি ব্যাংকের কেরাণী হিসেবে চাকুরী করেন।[২]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জ্যাক এডওয়ার্ডস। ১৬ জুলাই, ১৮৮৮ তারিখে লর্ডসে স্বাগতিক ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ৩০ আগস্ট, ১৮৮৮ তারিখে ম্যানচেস্টারে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৮৮৮ সালে অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্যরূপে ইংল্যান্ড গমন করেন। কাউন্টি ক্লাবগুলোর বিপক্ষে খেলাগুলোয় বেশ রান তুলেছিলেন।[৩] টেস্ট সিরিজের তিনটি খেলায় অংশ নেন। অংশগ্রহণকৃত ছয় ইনিংসের তিনটিতেই শূন্য রানের সন্ধান পান। ফলে, ব্যাটিং গড় দাঁড়ায় ৯.৬০। সবগুলো খেলাতেই মাঝারিসারিতে ব্যাটিং করতে নেমেছিলেন।

টেস্টের তুলনায় প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে কিঞ্চিৎ ভালো খেলা উপহার দিয়েছিলেন। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ৫১টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়েছেন। ১৩.৭২ গড়ে ৯৬১ রান তুলেছিলেন তিনি।

জীবনের শেষদিকে স্নায়বিক দূর্বলতায় ভোগেন। অতঃপর ৩১ জুলাই, ১৯১১ তারিখে ৫১ বছর বয়সে ভিক্টোরিয়ার হকসবার্ন এলাকায় জ্যাক এডওয়ার্ডসের দেহাবসান ঘটে।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Victoria v A. Shaw's XI 1881-82"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ আগস্ট ২০১৯ 
  2. "Death of J. D. Edwards"Australasian: 25। ৫ আগস্ট ১৯১১। 
  3. The Oxford Companion to Australian Cricket, Oxford, Melbourne, 1996, p. 156.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]