জুলহাজ মান্নান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জুলহাজ মান্নান
চিত্র:Xulhaz Mannan.jpg
জুলহাজ মান্নান
জন্ম১২ই অক্টোবর ১৯৭৬
মৃত্যু২৫শে এপ্রিল ২০১৬(2016-04-25) (বয়স ৩৯ বছর)

জুলহাজ মান্নান (ইংরেজি: Xulhaz Mannan; ১২ই অক্টোবর, ১৯৭৬ – ২৫শে এপ্রিল ২০১৬) ছিলেন ঢাকাস্থ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা ও বাংলাদেশের প্রথম ও একমাত্র সমকামীদের পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা।[১] তিনি ও অন্য আর একজন এলজিবিটি কর্মী মাহবুব রাব্বি তনয় একসাথে তার অ্যাপার্টমেন্টে ছুরিকাঘাতের আক্রমণে নিহত হন।[২]

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

মান্নান এর মা হলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এবং বড় ভাই ছিলেন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের, ভাইস প্রেসিডেন্ট। তার বড় বোন হলেন একজন ফার্মাসিস্ট, যিনি বসবাস করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। তার বাবা মারা যান বেশ কয়েক বছর আগে, যিনি সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন ১৯৭১ সালে সংগঠিত হওয়া বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে[৩]

মান্নান জন্মগ্রহণ করেন ১২ই অক্টোবর ১৯৭৬ সালে।[৪] তিনি তার এসএসসি এবং এইচএসসি (১৯৯৩) সম্পন্ন করেন, ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ থেকে। তিনি জুনিয়র স্কুল থেকেই জড়িত ছিলেন বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কার্যক্রমের সাথে। তারপর তিনি বি.কম সম্পন্ন করেন ঢাকা সিটি কলেজ থেকে। এরপরে তিনি পড়াশোনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে স্নাতক ডিগ্রী সম্পন্ন করেন। ২০০৩ সালে তিনি একটি মাস্টার্স ডিগ্রী লাভ করেন, সোশ্যাল সায়েন্সেসের, পিস এন্ড কনফ্লিক্ট স্টাডিজের উপর।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি তার কর্মজীবন শুরু করেন এমজিএইচ গ্রুপে কাজের মাধ্যমে, এবং পরে যোগ দেন ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসে, রাষ্ট্রদূতের একজন প্রটোকল কর্মকর্তা হিসাবে ২০১৫ সাল পর্যন্ত এবং তারপর সেপ্টেম্বর ২০১৫ সালে তিনি ইউএসএইড -এ চাকরীতে যোগদান করেন। তিনি তার দ্বাপ্তরিক কাজের বাইরের আরো অনেক কার্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকতেন। তিনি এনটিভির একটি প্রডাকশনের সাথে প্রথম থেকেই স্ক্রিপ্ট লেখক হিসাবে জড়িত ছিলেন। ফটোগ্রাফি, ভ্রমণ, হাইকিং, ইভেন্ট সংগঠিত করা ছিল তার বেশকিছু শখ।

মান্নান ছিলেন, রূপবান  ম্যাগাজিনের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রকাশক, যা বাংলাদেশের সমকামী সম্প্রদায়ের একমাত্র পত্রিকা, এটি ২০১৪ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়।[৬][৭] তিনি মানবাধিকার বিষয়ে প্রচুর কাজ করতেন, বিশেষ করে বাংলাদেশের এলজিবিটি সম্প্রদায়ের মানবাধিকার বিষয়ে।[৮] তিনি সফলভাবে, একটি "রেইনবো র‍্যালি" আয়োজন করেন ঢাকায়, ১৪ই এপ্রিল ২০১৫ সালে, যদিওবা ২০১৬ সালে নতুন করে করতে চাওয়া এই সমাবেশ বাতিল করাতে হয়েছিল পুলিশের নির্দেশনার কারণে।

২৭শে এপ্রিল ২০১৬ সালে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমালোচনা করেন তার লেখার, এটিতে থাকা প্রাপ্তবয়স্ক বিষয়বস্তুর সাথে তুলনা করে।[৯]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

এপ্রিল ২০১৬ সালের প্রথম দিকে যুব এলজিবিটিদের নিয়ে "রেইনবো র‍্যালি" আয়োজন করার চেষ্টা করার পর তিনি মৃত্যুর হুমকি পান। এরপর মান্নান ও অন্য একজন এলজিবিটি কর্মী মাহবুব রাব্বি তনয় একসাথে তার অ্যাপার্টমেন্টে ছুরিকাঘাতের আক্রমণে নিহত হন।[১০] একজন প্রতক্ষ্যদর্শীর মাধ্যমে জানা যায়, পাঁচজন লোক, ঘটনাস্থল থেকে "আল্লাহু আকবার" ("আল্লাহ মহান") বলতে বলতে পালিয়ে যায়। আনসার-আল-ইসলাম, আল-কায়েদার-সাথে সংযুক্ত একটি গ্রুপ এই খুনের হামলার দায় স্বীকার করেছে।[১১][১২]

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Gay Activist Killed" (6 May 2016)। The Week। ৬ মে ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৬ 
  2. Al-Mahmood, Syed Zain (২৬ এপ্রিল ২০১৬)। "Editor of Bangladesh Gay Magazine Hacked to Death in His Home"The Wall Street Journalআইএসএসএন 0099-9660। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-৩০ 
  3. "Editor of Bangladesh's first gay rights magazine stabbed to death"। Fox News। Associated Press। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৫ 
  4. "Bangladesch: LGBT-Aktivist brutal ermordet"Queeramnesty.ch (জার্মান ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৫-০২ 
  5. "Statement by USAID administrator Gayle Smith on the death of foreign service national Xulhaz Mannan"US Aid। ২০১৬-০৪-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৬ 
  6. Hadi Hussain। "Islamist Extremists Weren't the Only Killers Of My Friend Xulhaz Mannan"The Huffington Post। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-৩০ 
  7. Gani, Saad Hammadi Aisha (২৫ এপ্রিল ২০১৬)। "Founder of Bangladesh's first and only LGBT magazine killed"The Guardianআইএসএসএন 0261-3077। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-৩০ 
  8. "Confronting the comfortable closet in Bangladesh, article by Xulhaz Mannan in Pink Pages, India's National LGBT Magazine"Pink Pages। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৬ 
  9. "Campaign of terror against Bangladesh's liberal voices"The Economist। ২৭ এপ্রিল ২০১৬। আইএসএসএন 0013-0613। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৬ 
  10. "Bangladesh LGBT editor hacked to death"BBC News। ২৫ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৫ 
  11. "Editor Of Bangladesh's Only LGBT Magazine Is Hacked To Death"NPR.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৯ 
  12. CNN, Eliott C. McLaughlin, Don Melvin, and Tiffany Ap। "Al Qaeda claims #Bangladesh LGBT murders"CNN। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৯ 
  13. "Arrest Xulhaz Mannan killers, US Ambassador Bernicat asks Bangladesh government"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৯ 
  14. "LGBT editor hacked to death in Bangladesh by Islamist militants"Independent.ie। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৯ 
  15. "Kerry calls Hasina, demands justice for slain gay-rights activist Xulhaz"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-২৯