খলিল কোরেশি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
খলিল কোরেশি
জন্মলাহোর, পাঞ্জাব
নাগরিকত্বপাকিস্তান
জাতীয়তাপাকিস্তানি
কর্মক্ষেত্রভৌত রসায়ন
প্রতিষ্ঠানপাকিস্তান পারমাণবিক শক্তি কমিশন
পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়
লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়
লাহোর ইউনিভার্সিটি অফ ম্যানেজমেন্ট সায়েন্স
প্রাক্তন ছাত্রপাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়
ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডন
সন্দর্ভসমূহঅ্যালুমিনা বাষ্প জমা করার ভৌত-রাসায়নিক গবেষণা (১৯৭২) (১৯৭২)
পিএইচডি উপদেষ্টাডেভিড ক্রেগ
পরিচিতির কারণভৌত রসায়ন, বিস্ফোরক গঠন, পারমাণবিক শক্তি এবং পাকিস্তানের পারমাণবিক ডিটারেন্স প্রোগ্রামে কাজ করেন।
উল্লেখযোগ্য
পুরস্কার
হিলাল-ই-ইমতিয়াজ (২০০৩)
সিতারা-ই-ইমতিয়াজ (১৯৯৯)

খলিল আহমদ কোরেশি (উর্দু: خليل احمد قريشى; এইচআই, এসআই) একজন পাকিস্তানি ভৌত রসায়নবিদ এবং পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভৌত রসায়নের অধ্যাপক। তিনি আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান বিষয়ক সাময়িকীগুলিতে পারমাণবিক ভৌত রসায়নের উল্লেখযোগ্য নিবন্ধ প্রকাশ করেছেন এবং জ্বালানী চক্রের বেসামরিক ব্যবহারের বৈজ্ঞানিক প্রয়োগগুলির অগ্রগতিতে অবদান রেখেছেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

লাহোরের বাসিন্দা কোরেশি পরবর্তী সময়ে পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়ন বিষয়ে পড়াশুনা করেন, সেখান থেকেই তিনি বিএসসি থেকে রসায়নে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন।[১] উচ্চতর পড়াশুনার জন্য তিনি ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনে যোগদানের জন্য যুক্তরাজ্যে যান।[১] তিনি রাসায়নিক প্রকৌশলে এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করেন এবং ভৌত ধাতববিদ্যায় ডিআইসি অর্জনের জন্য কাজ করেন।[২] ইম্পেরিয়াল কলেজে তিনি টমাস ওয়েস্ট এবং ডেভিড ক্রেগের নেতৃত্বে ডক্টরাল গ্রুপে যোগ দেন।[৩] তিনি ডেভিড ক্রেগের তত্ত্বাবধানে ভৌত রসায়নে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন এবং ১৯৭২ সালে Al2O3 এর বাষ্প জমার ভৌত-রাসায়নিক গবেষণা নিয়ে তাঁর থিসিস লেখেন।[৩]

পাকিস্তান পারমাণবিক শক্তি কমিশন[সম্পাদনা]

তিনি পাকিস্তানে ফিরে যাওয়ার আগে সংক্ষিপ্তসময় লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভৌত রসায়ন পড়াতেন। ফিরে আসার পর তিনি পাকিস্তান পারমাণবিক শক্তি কমিশনে (পিএইসি) যোগদান করেন এবং পাকিস্তান পারমাণবিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ইনস্টিটিউট (পিনস্টেক) -এর নিউক্লীয় রসায়নের অধ্যাপক নিযুক্ত হন।[৪] পরবর্তীকালে তিনি সহকর্মী রসায়নবিদ আইএইচ কোরেশির নেতৃত্বে গোপন পারমাণবিক বোমা প্রকল্পের রসায়ন বিভাগে যোগ দিয়েছিলেন। পিএইসি চেয়ারম্যান মুনির আহমদ খানকে রাসায়নিক বিস্ফোরক নিয়ে গবেষণার জন্য আংশিকভাবে পিএইসি-র "আর-ল্যাব" গ্রহণ করতে হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে গবেষণাটি আরডিএক্স প্রক্রিয়ার পার্শ্ব-উৎপাদ হিসাবে উৎপাদিত অ-বিষাক্ত বিস্ফোরক এইচএমএক্স এর উন্নয়ন নিয়ে নিয়ে ব্যপৃত ছিল।[৫] ১৯৭০-এর দশকে তিনি ধাতুবিদ্যার গবেষণাগার (মেট ল্যাব) প্রতিষ্ঠা করেন সেখানে তিনি বেশিরভাগ কর্মীদের ভৌত ধাতুবিদ্যা গবেষণা করার জন্য স্থানান্তরিত করেন।[৬]

মেট ল্যাবে কোরেশি এমন ভৌত রসায়নবিদদের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন যারা ধাতুতে প্রলেপ দেওয়া ও যন্ত্রচালিত করার আগে UF6 এর ভৌত রূপকে কঠিন ধাতুতে রূপান্তরিত করার কাজ করছিল।[৬] এই সময় তিনি কেআরএল থেকে রূপান্তরিত হওয়া এইচইসি থেকে ইউরেনিয়াম ধাতু উৎপাদন করার জন্য রাসায়নিক এবং ধাতব শিল্প প্রযুক্তি এবং রূপান্তরকরণ চুল্লি ব্যবহারের বিষয়ে তদারকি এবং নেতৃত্ব দেন।[৬] প্রকল্পের সংবেদনশীলতা এবং সহকর্মী তাত্ত্বিক একিউ খানের উদ্বেগের কারণে প্রকল্পটি ১৯৮০ এর দশকে কেআরএল-এ স্থানান্তর করা হয়।[৬]

গবেষণা এবং বিজ্ঞানে সক্রিয়তা[সম্পাদনা]

পিএইসিতে থাকাকালীন কোরেশি সহযোগী অধ্যাপক হিসাবে কায়েদ-ই-আজম বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগে যোগদান করেন। নব্বইয়ের দশকে তিনি ভৌত রসায়ন বিষয়ে স্নাতকোত্তর শ্রেণীতে পাঠধানের জন্য পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করেন। ২০০০-এর দশকে তিনি লাহোর ইউনিভার্সিটি অব ম্যানেজমেন্ট সায়েন্স এর স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এ প্রকৌশল ও নিরাপত্তা পরিচালক হিসাবে যোগদান করেন।[২]

ফুকুশিমা দুর্ঘটনার পর বছরের পর বছর ধরে তিনি পারমাণবিক শক্তি, নিরাপত্তা এবং নিরাপদ শান্তিপূর্ণ ব্যবহারে তার দৃঢ় বৈজ্ঞানিক পক্ষাবলম্বনের জন্য খ্যাতি অর্জন করেন।[৭] তিনি খাওয়ারিজমি সায়েন্স সোসাইটির সদস্য ছিলেন, তিনি পারমাণবিক শক্তি এবং নিউক্লিয় রসায়নের বিষয়গুলি বিবেচনা করে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে বক্তৃতা দিয়েছেন।[৮] তিনি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় গবেষণা সাময়িকীতে বিশ্বজুড়ে রাসায়নিক সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা সম্পর্কিত অসংখ্য নিবন্ধ লিখেছেন।[৯] ২০১১ সালে তিনি ভৌত রসায়ন বিষয়ে বক্তৃতা দেন এবং বর্তমানে কীভাবে পারমাণবিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে এবং লাহোরের ফরম্যান ক্রিশ্চিয়ান কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পারমাণবিক বর্জ্য নিষ্কাশনের বিভিন্ন উপায় নিয়ে কথা বলেন।[১০] পাকিস্তান সরকার তাকে ২০০৩ সালে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ সম্মানজনক খেতাব হিলাল-ই-ইমতিয়াজ এবং ১৯৯৯ সালে সিতারা-ই-ইমতিয়াজ প্রদান করে।[১১]

সম্মাননা এবং স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

  • হিলাল-ই-ইমতিয়াজ (২০০৩)
  • সিতারা-ই-ইমতিয়াজ (১৯৯৯)
  • সভাপতি, পাকিস্তান মেটারিয়ালস রিসার্চ সোসাইটি
  • সভ্য, পাকিস্তান ইনস্টিটিউট অফ মেটালার্জিকাল ইঞ্জিনিয়ার্স
  • পাকিস্তান পারমাণবিক সমিতির সভ্য

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Prof Dr Khalil Qureshi" (microsoft word)Punjab University Press। Punjab University Press। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  2. Editor-in-Chief। "Dr. Khalil Qureshi (H.I., S.I.)"The Khwarizmi Science Society। The Khwarizmi Science Society। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. The Alumni Center (১৯৬৭)। Theses and Dissertations Accepted for Higher Degrees (English ভাষায়)। London: London University Press। পৃষ্ঠা 45। -DTgAAAAMAAJ। 
  4. Khan, Feroz Hassan। "Production of Uranium Metal"। Eating grass the making of the Pakistani bomb। Stanford, California: Stanford Security Studies, an imprint of Stanford University Press। আইএসবিএন 0804784809 
  5. Khan, Feroz Hassan। "§Developing the triggering mechanism"। Eating grass the making of the Pakistani bomb। Stanford, California: Stanford Security Studies, an imprint of Stanford University Press। আইএসবিএন 0804784809 
  6. Khan, Feroz Hassan। "§Production of Uranium Metal"। Eating grass the making of the Pakistani bomb। Stanford, California: Stanford Security Studies, an imprint of Stanford University Press। আইএসবিএন 0804784809 
  7. FCC Communications office। "Benade Physics Society Lecture on Promise of Nuclear Energy"FCC University Press। FCC University Press। ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  8. "Lectures on Physical chemistry and nuclear power by KA Qureshi"। Prof. Khalil Qureshi at Khwarizmi Science Society। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  9. Board on Chemical Sciences and Technology, Division on Earth and Life Studies - (২০১০)। Promoting Chemical Laboratory Safety and Security in Developing Countries। Washington US: Committee on Promoting Safe and Secure Chemical Management in Developing Countries। আইএসবিএন 0309161355 
  10. Staff (১৩ জানুয়ারি ২০১১)। "Benade Physics Society Lecture on Promise of Nuclear Energy"FCCU Communications Office –। ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  11. Staff (১৩ আগস্ট ২০১৩)। "Awards for civilians announced"Dawn news (2003)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  • পারমাণবিক শক্তি ব্যবহার
  • Khan, Feroze Hassan (২০১২), Eating grass the making of the Pakistan atomic bomb, Stanford, California: Stanford Security Studies, an imprint of Stanford University Press, আইএসবিএন 0804784809 
  • Rehman, Shahid ur (১৯৯৯), "§Directorate Chemical X", Long Road to Chagai, Islamabad: Printwise Publications, আইএসবিএন 9698500006