ওয়াইএসআর কংগ্রেস পার্টি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
যুবজনা শ্রমিকা রাইথু কংগ্রেস পার্টি
সংক্ষেপেওয়াইএসআরসিপি
প্রেসিডেন্টওয়াই এস জগমনমোহন রেড্ডি
সভাপতিওয়াই এস বিজয়া লক্ষ্মী
মহাসচিবভি বিজয়সাই রেড্ডি
সংসদীয় সভাপতিভি বিজয়সাই রেড্ডি
লোকসভায় নেতাপি ভি মিধুন রেড্ডি
রাজ্যসভায় নেতাভি বিজয়সাই রেড্ডি
প্রতিষ্ঠাতাওয়াই এস জগমনমোহন রেড্ডি
প্রতিষ্ঠা১২ মার্চ ২০১১ (১০ বছর আগে) (2011-03-12)
বিভক্তিভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
সদর দপ্তরPlot no. 13, Suryadevara Township, Tadepalle, Amaravati, Andhra Pradesh[১]
সংবাদপত্রসাক্ষী, প্রজনাথা
আনুষ্ঠানিক রঙ Blue (Official)
White
Green
স্বীকৃতিState party[২]
জাতীয় আহ্বায়কওয়াই এস শর্মিলা
লোকসভায় আসন
২২ / ৫৪৩
রাজ্যসভায় আসন
৭ / ২৪৫
অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভা-এ আসন
১৫১ / ১৭৫
অন্ধ্রপ্রদেশ আইন পরিষদ-এ আসন
১৪ / ৫৮
সরকারে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সংখ্যা
১ / ৩১
নির্বাচনী প্রতীক
Ceiling Fan
ওয়েবসাইট
www.ysrcongress.com/en/
ভারতের রাজনীতি
রাজনৈতিক দল

যুবজনা শ্রমিকা রাইথু কংগ্রেস পার্টি (অনুবাদ- যুব শ্রমিক কৃষক কংগ্রেস পার্টি; সংক্ষেপ ওয়াইএসআরসিপি বা ওয়াইসিপি), একটি ভারতীয় আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল যা অন্ধ্র প্রদেশ রাজ্যে অবস্থিত। [৩] এটি ওয়াইএস জগমনমোহন রেড্ডি ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। [৪] এককালে যিনি ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল কংগ্রেসের সদস্য ছিলেন এবং তারা ২০১১ সালে সেই দল থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন। [৫] তিনি তার সদস্যদের দ্বারা জাতীয় দলের সভাপতি হিসাবেও নির্বাচিত হয়েছিলেন। [৬]

পটভূমি[সম্পাদনা]

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুগুরি সন্দিন্তি রাজশেখর রেড্ডির আকস্মিক মৃত্যুর পর সেপ্টেম্বর ২০০৯ সালে,[৭] তাঁর ছেলে জগনমোহন রেড্ডি, তৎকালীন কাডাপার এমপি, তাঁর বাবার মৃত্যুর পরে যারা আত্মহত্যা করেছিলেন বা শক পেয়ে মারা গিয়েছিলেন তাদের পরিবারগুলিকে সান্ত্বনা দিতে অন্ধ্রপ্রদেশ জুড়ে একটি ওদারপু রথযাত্রা (শোক সফর) শুরু করেছিলেন। এই সফরটি কংগ্রেস নেতৃত্বের দ্বারা সমর্থন করা হয়নি। [৮] কংগ্রেস সভাপতি কংগ্রেস হাই কমান্ডের এই সফর বন্ধের আদেশকে অস্বীকার করে, জগন এপ্রিল, ২০১০ থেকে পশ্চিম গোদাবরী ও খাম্মাম জেলায় "ওদারপু যাত্রার" প্রথম পর্ব নিয়ে এগিয়ে গিয়েছিলেন। [৯]

এদিকে, সাক্ষী টিভি নিউজ চ্যানেল এবং সাক্ষী পত্রিকা ক্রমাগত নতুন মুখ্যমন্ত্রী কোনিজেতি রোসাইয়া এবং নয়া দিল্লির কংগ্রেস নেতৃত্বের সমালোচনা করা হচ্ছিল। কংগ্রেস পার্টির ১২৫তম বার্ষিকী উদ্‌যাপন উপলক্ষে সাক্ষী টিভিতে একটি বিশেষ প্রোগ্রামে, সোনিয়া গান্ধী এবং প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং রাজ্যের "বর্তমান পরিস্থিতি" সম্পর্কে মন্তব্য করেছিলেন, যা কংগ্রেসের অনুগতদের মধ্যে ক্ষোভ এবং বিক্ষোভের সৃষ্টি করেছিল জানিয়েছিল এবং জগন ও কংগ্রেসের অনুগতদের মধ্যে ব্যবধান এবং বিভেদ বাড়িয়েছিল। [১০] চ্যানেল পরে এই মন্তব্যগুলিকে মুছে ফেলেছিল।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

রাজনীতি[সম্পাদনা]

সদস্যতা[সম্পাদনা]

মুখ্যমন্ত্রী[সম্পাদনা]

নির্বাচনী পারফরম্যান্স[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "About us"YSRC Party। ২০১৯-০১-০১। 
  2. "List of Political Parties and Election Symbols main Notification Dated 18.01.2013" (PDF)। India: Election Commission of India। ২০১৩। ২৪ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১৩ 
  3. "Why YSR Congress?"। ২০১১। ১৬ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৪ 
  4. "'YSR Congress' is now Jagan's party - The Times of India"The Times Of India [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. "Jaganmohan Reddy split from congress, for own party"The Economic Times। ২০১০-১১-২৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-১১-৩০ 
  6. "Jaganmohan Reddy walks out of jail after 16 months"IndiaToday। ২০১৩-০৯-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১২-০৭ 
  7. "national - News - msn"www.msn.com 
  8. "Defiant Jagan to go ahead with 'Odarpu' yatra - The Times of India"The Times Of India। ২০১৩-১১-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০১-১৫ 
  9. http://zeenews.india.com/election09/story.aspx?aid=640242[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  10. With TV attack on Sonia & PM, Jagan signals it’s time to go. Indian Express (2010-11-21). Retrieved on 2011-10-20.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]