ঊষাতন তালুকদার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাননীয় সংসদ সদস্য
ঊষাতন তালুকদার
পূর্বসূরীদীপংকর তালুকদার
১০ম জাতীয় সংসদে ২৯৯ নং (রাঙামাটি) আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
২৯ জানুয়ারি ২০১৪ – ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮
সংখ্যাগরিষ্ঠবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1950-08-05) ৫ আগস্ট ১৯৫০ (বয়স ৬৮)
রাঙ্গামাটি
নাগরিকত্ববাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
রাজনৈতিক দলস্বতন্ত্র
প্রাক্তন শিক্ষার্থীচট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
পেশারাজনীতি
জীবিকাকৃষি ও ব্যবসা

ঊষাতন তালুকদার হলেন বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রামের অধিবাসীদের অধিকার আদায়ের আন্দোলনের প্রথম সারির একজন নেতা, রাজনীতিবিদ এবং সংসদ সদস্য।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

তার জন্ম ১৯৫০ সালের ৫ আগস্ট। বাবার সরকারি চাকরির সুবাদে তিনি পড়াশোনা করেছেন বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি নেন। ছাত্রজীবনে স্কাউট আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ১৯৬৬ সালে পাকিস্তানের করাচিতে অনুষ্ঠিত চতুর্থ জাতীয় জাম্বুরিতে অংশ নিয়েছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় ইউওটিসির(ইউনিভার্সিটি অফিসার ট্রেনিং কর্পস) সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তিনি বিভিন্ন সামাজিক কাজের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন।[১]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

ঊষাতন তালুকদার ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সহসভাপতি। তিনি ১৯৯৯ সাল থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি এবং হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের অন্যতম কেন্দ্রীয় সভাপতি। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির রাঙামাটি জেলা ইউনিটের সহসভাপতি ছিলেন। তিনি ২৯৯ নং (রাঙামাটি) আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য।[২] তিনি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি তারিখে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একজন “সংসদ সদস্য” হিসাবে নির্বাচিত হন।[৩]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ভাবিনি, একদিন আমিও সংসদ সদস্য হব—ঊষাতন তালুকদার"দৈনিক প্রথম আলো। জানুয়ারি ৯, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারী ৫, ২০১৯ 
  2. "১০ম জাতীয় সংসদ সদস্য তালিকা (বাংলা)"www.parliament.gov.bd। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  3. বাংলাদেশ গেজেট : অতিরিক্ত সংখ্যা (PDF)ঢাকা: নির্বাচন কমিশন, বাংলাদেশ। ৮ জানুয়ারি ২০১৪। পৃষ্ঠা ২৩৪। ২৪ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]